• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • অবৈধ ভাবে পদোন্নতি! শেষ পর্যন্ত পদ খুইয়ে পিওন-ওয়াচম্যানের পদে ফিরলেন 'আধিকারিকরা'...

অবৈধ ভাবে পদোন্নতি! শেষ পর্যন্ত পদ খুইয়ে পিওন-ওয়াচম্যানের পদে ফিরলেন 'আধিকারিকরা'...

উত্তরপ্রদেশের এই ঘটনা খুবই বিব্রতকর।

উত্তরপ্রদেশের এই ঘটনা খুবই বিব্রতকর।

উত্তরপ্রদেশের এই ঘটনা খুবই বিব্রতকর।

  • Share this:

    #লখনউ: ছয় বছর আগে হওয়া পদোন্নতি অবৈধ বলে প্রমাণিত হওয়ার পর ৪ জেলা তথ্য আধিকারিককে পদচ্যুত করার ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে। ঘটনা উত্তরপ্রদেশের। এভাবে উচ্চপদ থেকে রাতারাতি পদ খুইয়ে নিচু পদে চলে আসার ঘটনা খুবই বিব্রতকর বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। উত্তর প্রদেশ সরকারের তথ্য ও জনসংযোগ দফতরের জারি করা বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, বরেলি, ফিরোজবাদ, মথুরা এবং ভাদোহির (সন্ত রবিদাস নগর) অতিরিক্ত জেলা তথ্য আধিকারিকরা তাদের বাবা-মায়ের চাকরিরত পদে নিযুক্ত হন এবং পরবর্তীতে সেখান থেকে অবৈধভাবে পদোন্নতি হয়। তাদের বাবা-মায়েরা প্রহরী (watchman) (peon) এবং সিনেমা অপারেটর-যোগাযোগ সহায়ক (cinema operator-cum-communication assistants) হিসেবে কাজ করতেন।

    যিনি বরেলির অতিরিক্ত জেলা তথ্য অফিসার হিসাবে যিনি কাজ করছিলেন সেই নরসিংহ পদ খুইয়ে পিয়নের পদে ফিরে গিয়েছেন। ফিরোজাবাদে নিযুক্ত দয়াশঙ্কর প্রহরী হিসাবে পূর্ববর্তী পোস্টিংয়ের দায়িত্বে ফিরেছেন। মথুরার বিনোদ কুমার শর্মা এবং ভাদোহিতে অনিল কুমার সিংকে সিনেমা অপারেটর ও প্রচারের সহকারী হিসাবে কাজে নিয়ে আসা হয়েছে। প্রত্যেকের এখন আগের থেকে নিচু পোস্টে ফিরে যেতে হয়েছে।

    একটি বিবৃতি জারি করে, রাজ্য সরকার জানিয়েছে, ২০১৪ সালের ৩ নভেম্বর এই চার কর্মকর্তার পদোন্নতির ক্ষেত্রে নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছিল। জানুয়ারিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

    এমন ঘটনা ঘটে বিহারেও। সেখানে একটি মামলায়, একজন সহকারী উপ-পরিদর্শককে কনস্টাবলের পদে নামিয়ে দেওয়া হয়, কারণ তিনি এক ধর্ষিতার থেকে ঘুষ চেয়েছিলেন। ঘটনাটি এক মাস আগে প্রকাশ্যে এসেছিল। দুর্নীতির অভিযোগ ও দায়িত্ব পালনের অভিযোগে এএসআই কেডি প্রসাদকে বরখাস্ত করা হয়েছিল।

    Published by:Pooja Basu
    First published: