দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রামের পর এবার হনুমান ! কর্ণাটকে তৈরি হচ্ছে ১২০০ কোটির আকাশছোঁয়া মূর্তি

রামের পর এবার হনুমান ! কর্ণাটকে তৈরি হচ্ছে ১২০০ কোটির আকাশছোঁয়া মূর্তি

একদিকে যখন যোগী সরকার ঘোষণা করল উত্তরপ্রদেশের বরহাটা গ্রামে তৈরি হবে দুনিয়ার সবচেয়ে বড় রাম মূর্তি, তখনই কর্ণাটকে ঘোষিত হল, হাম্পিতে তৈরি হবে আকাশছোঁয়া হনুমান মূর্তি!

  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: বুধবার, ৫ আগস্ট অযোধ্যায় মহা সমারোহে অনুষ্ঠিত হল রাম মন্দিরের ভূমিপূজা! মন্দিরের শিলান্যাস করে প্রধামন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বললেন, '' সরয়ূ নদীর তীরে স্বর্ণযুগের সূচনা হল।'' তাঁর ভাষায়, ''বহু দিনের প্রতীক্ষা শেষ। এত দিন তাঁবুতে মাথা গুঁজে ছিলেন রামলালা। এ বার তাঁর জন্য সুবিশাল মন্দির নির্মিত হবে। বহু শতক ধরে যে ভাঙা-গড়ার খেলা চলে আসছে, আজ রামজন্মভূমি তা থেকে মুক্ত হল।''

একদিকে যখন যোগী সরকার ঘোষণা করল উত্তরপ্রদেশের বরহাটা গ্রামে হবে দুনিয়ার সবচেয়ে বড় রাম মূর্তি, তখনই কর্ণাটকে ঘোষিত হল, হাম্পিতে নির্মিত হবে আকাশছোঁয়া হনুমান মূর্তি!

হাম্পির 'হনুমান জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্ট' তৈরি করবে ২১৫ মিটার উচ্চতার হনুমান মূর্তি । কিষ্কিন্ধ্যায় হনুমানের জন্মস্থলে মূর্তিটি বানাতে আনুমানিক খরচা হবে ১,২০০ কোটি টাকা। আগামী ৬ বছরের মধ্যেই তৈরি হয়ে যাবে এই হনুমান মূর্তি।

'হনুমান জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্ট' একটি বেসরকারি উদ্যোগ। ট্রাস্টের প্রধান গোবিন্দনন্দ সরস্বতী স্বামী জানান, '' অযোধ্যায় রামের মূর্তির উচ্চতা হচ্ছে ২২১ মিটার। রামচন্দ্রের ভক্ত হনুমান, ভক্তের মূর্তি ভগবানের থেকে উঁচু হতে পারে না, তাই পরিকল্পিতভাবেই রামের মূর্তির থেকে ৬ মিটার কম উচ্চতার হবে হনুমানের মূর্তি।''

পুরাণ মতে, বানর রাজ সুগ্রীবের রাজত্ব ছিল হাম্পির কাছে কিষ্কিন্ধ্যায়। সেই রাজত্ব  দণ্ডকারণ্যের একটি অংশ যা বিন্ধ পর্বত থেকে শুরু হয় গোটা দক্ষিণ ভারত জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। গোবিন্দনন্দ সরস্বতী স্বামী জানান, '' বর্তমানে অঞ্জনাদ্রি পাহাড়ের চূড়ায় রয়েছে হনুমানের মূর্তি। কিন্তু পাহাড়চূড়ায় উঠতে ভক্তদের ৫৫০টি সিঁড়ি চড়তে হয়। আমরা এবার এমন মূর্তি তৈরি করব যার কাছে সহজেই পৌঁছতেই পারবে সকল ভক্তগণ।''

সরকারি সূত্রে জানা যায়, কর্ণাটক সরকার এই হনুমান মূর্তি তৈরির কাজে কিছুটা আর্থিক সাহায্য করবে। বাকি টাকা ট্রাস্ট অনুদানের মারফত সংগ্রহ  করবে। ট্রাস্টের পরিকল্পনা, অর্থ সংগ্রহে সারা ভারতজুড়ে অনুষ্ঠিত হবে হনুমান রথ যাত্রা । চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই ট্রাস্টের তরফে    সরকারের কাছে এই প্রজেক্ট সংক্রান্ত প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। কর্ণাটকের শিল্প-সংস্কৃতি মন্ত্রী সিটি রবি জানান, সরকার এই প্রস্তাব গ্রহণ করেছে। কিষ্কিন্ধ্যার সঙ্গে রামায়নের যোগসূত্র ধরে ভক্ত ও পর্যটনপ্রেমীদের জন্য এক অনন্য অভিজ্ঞতা সৃষ্টির প্রয়াস করা হবে।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: August 6, 2020, 9:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर