• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • PRESIDENT RAMNATH KOVIND CONDEMNS VIOLENCE ON REPUBLIC DAY HAILS THREE NEW FARM LAWS DMG

কৃষি আইন স্থগিত রেখেই বিভ্রান্তি কাটাবে সরকার, তাণ্ডবের নিন্দা রাষ্ট্রপতির

রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ৷

  • Share this:

    #দিল্লি: দেশের প্রান্তিক কৃষকদের কথা ভেবেই নতুন তিনটি কৃষি আইন কার্যকর করেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ তার সুফলও পেতে শুরু করেছেন দশ কোটি ছোট কৃষক৷ কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনেই আপাতত নয়া তিন কৃষি আইন স্থগিত রাখবে কেন্দ্র৷ নতুন তিন কৃষি আইনের প্রশংসা করেও বাজেট অধিবেশনের প্রারম্ভিক ভাষণে এমনই জানালেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ৷ একই সঙ্গে প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লিতে কৃষক আন্দোলনের নামে যে তাণ্ডব চলেছে, তাঁরও তীব্র নিন্দা করেছেন রাষ্ট্রপতি৷

    নতুন তিন কৃষি আইন মোদি সরকারের কাছে অস্বস্তির কারণ হয়ে উঠেছে৷ যদিও গত ২৬ জানুয়ারি দিল্লিতে তাণ্ডবের পর আন্দোলনকারী কৃষক সংগঠনগুলি কিছুটা ব্যাকফুটে৷ তবে এ দিনও কৃষি আইনের বিরোধিতায় ও কৃষকদের সমর্থনে রাষ্ট্রপতির ভাষণ বয়কট করে ১৯টি বিরোধী দল৷ ফলে এ দিন রাষ্ট্রপতির ভাষণে কৃষি আইন নিয়ে মোদি সরকারের বক্তব্য কী হয়, সেদিকে নজর ছিল গোটা দেশের৷

    রাষ্ট্রপতি বলেন, 'ছোট এবং প্রান্তিক কৃষকদের উপরে নজর দেওয়া উচিত৷ দেশের মোট কৃষকের ৮০ শতাংশই হলেন প্রান্তি কৃষক৷ নতুন কৃষি আইন প্রণয়নের পর থেকে দেশের ১০ কোটি প্রান্তিক কৃষক এর সুফল পেয়েছেন৷ এই সংস্কারের প্রতি সব রাজনৈতিক দলই অতীতে সমর্থন জানিয়েছিল৷ গত কুড়ি বছর ধরে দেশে বিভিন্ন মঞ্চ থেকে এই সংস্কারগুলির দাবি উঠেছিল৷ কিন্তু এই সরকার দেশের সর্বোচ্চ আদালতের সিদ্ধান্তের সম্মান করে৷ তাই শীর্ষ আদালতের নির্দেশ মেনেই এই তিনটি আইনের প্রণয়ন আপাতত স্থগিত রাখা হচ্ছে৷ গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার প্রতি পূর্ণ মর্যাদা রেখে নতুন তিনটি কৃষি আইন নিয়ে তৈরি হওয়া বিভ্রান্তি কাটানোর চেষ্টা করা হবে৷' একই সঙ্গে রাষ্ট্রপতি প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন দিল্লিতে কৃষক আন্দোলনের নামে হিংসাত্মক ঘটনার কড়া নিন্দা করেন৷ তিনি বলেন, গণতন্ত্রে যেমন নিজস্ব মত প্রকাশের স্বাধীনতা রয়েছে, সেরকমই আইনের সম্মান করার কথাও বলা রয়েছে৷ ২৬ জানুয়ারির ঘটনায় জাতীয় পতাকার অবমাননাও হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন রাষ্ট্রপতি৷

    একই সঙ্গে কষকদের সুবিধার্থে এবং কৃষি ক্ষেত্রের পরিকাঠামো উন্নয়নে মোদি সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের কথা উঠে এসেছে রাষ্ট্রপতির ভাষণে৷ তার মধ্যে প্রধানমন্ত্রী কৃষক সম্মান যোজনা যেমন রয়েছে, সেরকমই ফসল বিমা যোজনার কথাও উল্লেখ করেছে রাষ্ট্রপতি৷ বাদ যায়নি কিসান রেলের কথাও৷

    শুধু কৃষি আইন নয়, করোনার অতিমারি থেকে শুরু করে চিন সীমান্তে উত্তেজনা৷ রাষ্ট্রপতির ভাষণে সবক্ষেত্রেই ছিল মোদি সরকারের ভূয়সী প্রশংসা৷ সরকারের তৈরি করে দেওয়া লিখিত ভাষণে সেটাই প্রত্যাশিত৷ গত ৬ বছরে মোদি সরকার যোগ ব্যয়ামের উপরে জোর দেওয়া, ফিট ইন্ডিয়া, খেলো ইন্ডিয়ার মতো যে কর্মসূচিগুলির উপরে জোর দিয়েছিল, করোনার সঙ্গে মোকাবিলা করতে গিয়ে দেশবাসী তার সুফল পেয়েছে বলেও দাবি করা হয়েছে রাষ্ট্রপতির ভাষণে৷ করোনা অতিমারির সময় আম জনতা এবং গরিব মানুষের সাহায্যে কেন্দ্র কী কী উদ্যোগ নিয়েছে, তাও তুলে ধরেন রাষ্ট্রপতি৷ পাশাপাশি করোনা অতিমারির জেরে ধাক্কা খাওয়া অর্থনীতি মোদি সরকারের হাত ধরে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে বলেও দাবি করেন রামনাথ কোবিন্দ৷ দেশে তৈরি জোরা ভ্যাকসিন যে বিদেশেও রপ্তানি করছে ভারত, মোদি সরকারের প্রশংসা করে সেকথাও বলেছেন রাষ্ট্রপতি৷ একই সঙ্গে 'আত্মনির্ভর ভারত' প্রকল্পের প্রশংসাও করেন তিনি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: