• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • PRASHANT KISHOR HOLDS MEETING WITH RAHUL GANDHI EYEING 2024 ELECTIONS DMG

Rahul Gandhi meets Prashant Kishor: রাহুল গান্ধির সঙ্গে বৈঠকে প্রশান্ত কিশোর, ২০২৪-এর তাগিদেই মিটল দূরত্ব

এ দিন দিল্লিতে রাহুল গান্ধির সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রশান্ত৷ বৈঠকে ছিলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধিও (Rahul Gandhi meets Prashant Kishor)৷

এ দিন দিল্লিতে রাহুল গান্ধির সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রশান্ত৷ বৈঠকে ছিলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধিও (Rahul Gandhi meets Prashant Kishor)৷

  • Share this:

    #দিল্লি: ২০১৭ সালে উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছিল প্রশান্ত কিশোরের৷ উত্তর প্রদেশে কংগ্রেসও বিশ্রী ভাবে হেরেছিল৷ হতাশ প্রশান্ত কিশোর বলেছিলেন, রাহুল গান্ধি এবং কংগ্রেসের সঙ্গে কাজ করা যায় না৷ ভবিষ্যতে তিনি আর কংগ্রেসের হাত ধরবেন না বলেও জানিয়ে দিয়েছিলেন প্রশান্ত কিশোর৷

    কিন্তু রাজনীতিতে কোনও কিছুই স্থায়ী নয়৷ তাই ফের সেই রাহুল গান্ধির সঙ্গেই আলোচনার টেবিলে বসলেন প্রশান্ত কিশোর৷ এ দিন দিল্লিতে রাহুল গান্ধির সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রশান্ত৷ বৈঠকে ছিলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধিও৷ মূলত আগামী বছরের পঞ্জাব, উত্তর প্রদেশ সহ বিভিন্ন রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হলেও আসলে ২০২৪-এ বিজেপি-কে ধরাশায়ী করার লক্ষ্যেই দূরত্ব মিটিয়ে কাছাকাছি এলেন রাহুল এবং প্রশান্ত, এমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের৷

    উত্তরাখণ্ড, গুজরাত,  উত্তর প্রদেশের মতো আগামী বছর পঞ্জাবেও নির্বাচন৷ পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং-এর পরামর্শদাতা হিসেবে আগেই নিযুক্ত হয়েছেন প্রশান্ত কিশোর৷ পঞ্জাবে কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকলেও অমরিন্দর সিং এবং নভজ্যোত সিং সিধুর দ্বন্দ্ব নির্বাচনের আগে কংগ্রেসের বড় মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ এমন কি, সিধুর আম আদমি পার্টিতে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা প্রবল৷ এই পরিস্থিতিতে পঞ্জাবের রাজনৈতিক অঙ্ক নিয়ে এ দিনের বৈঠকে আলোচনা হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল৷ কারণ পঞ্জাবে কংগ্রেসের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা হরিশ রাওয়াতও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বলে খবর৷

    আবার উত্তর প্রদেশে বিজেপি যতটা শক্তিশালী, ততটাই দুর্বল হয়ে পড়েছে কংগ্রেস৷ কিন্তু ২০২৪-এ বিজেপি-কে ধাক্কা দিতে গেলে উত্তর প্রদেশে কংগ্রেসের ভাল ফল করাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ ফলে উত্তর প্রদেশে ঘুরে দাঁড়ানো রণকৌশলও রাহুল- প্রশান্ত- প্রিয়াঙ্কার আলোচনায় উঠে আসবে, এমনটা ধরেই নেওয়া হচ্ছে৷ একই ভাবে বাকি যে রাজ্যগুলিতে আগামী বছর নির্বাচন রয়েছে, সেগুলি নিয়েও আলোচনার সম্ভাবনা রয়েছে৷

    তবে উত্তর প্রদেশ, পঞ্জাব নিয়ে যতই আলোচনা হোক না কেন, এ দিনের বৈঠকের প্রেক্ষাপট আরও অনেক বড় বলেই মনে করা হচ্ছে৷ পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ফল ঘোষণা হওয়ার পর শরদ পাওয়ারের সঙ্গে একাধিক বার বৈঠক করেছেন প্রশান্ত কিশোর৷ বিজেপি বিরোধী নেতাদের সঙ্গেও যোগাযোগ ছিল তাঁর৷ রাজনৈতিক মহলের খবর, আসলে এই বৈঠকগুলি থেকেও বার্তা দেওয়া হয়েছে কংগ্রেস নেতৃত্বকে৷ বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে, ২০২৪-এ বিজেপি-কে ক্ষমতা থেকে সরাতে গেলে বিরোধী দলগুলিকে ঐক্যবদ্ধ করা প্রয়োজন৷ কিন্তু অতীতের মতো কংগ্রেসকে সেখানে সেনাপতি হিসেবে নয়, সহযোদ্ধার ভূমিকায় থাকতে হবে৷ প্রশান্ত কিশোর ঘনিষ্ঠ মহলে বুঝিয়ে দিয়েছেন, বাংলার মতো গোটা দেশেই বিজেপি বিরোধী ভোট ভাগ হতে দেওয়া চলবে না৷ আর তা যদি করা যায়, তাহলেই ২০২৪-এ যে লক্ষ্যে বিরোধীরা এগোচ্ছেন, সেই লক্ষ্যপূরণ অনেকটা সহজ হবে৷

    ২০২৬ সাল পর্যন্ত তৃণমূলের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আই প্যাক৷ এই পরিস্থিতিতে এ দিনের বৈঠকের পর কংগ্রেসের সঙ্গে প্রশান্ত কিশোরের রসায়ন কোন দিকে এগোবে, পিকে-এর মডেলে রাহুল গান্ধিরা সায় দেবেন কি না, তা সময়ই বলবে৷ কিন্তু বর্তমান রাজনৈতিক পরিপ্রেক্ষিতে এ দিনের বৈঠকে যে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: