• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • PNB SCAM ED RECOVERS RS 17 CR FROM NIRAV MODIS SISTER PURVI MODI SANJ

PNB Scam : PNB কাণ্ডে বড় সাফল্য! ED-কে ১৭ কোটি ফেরালেন নীরব মোদির বোন...

পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক জালিয়াতি Photo Courtesy: AFP

পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক জালিয়াতি (Punjub National Bank Scam) কাণ্ডে জড়িত নীরব মোদির (Nirav Modi) বোন ইডি-কে ১৭ কোটি টাকা ফেরালেন বৃহস্পতিবার। আর এর ফলে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের থেকে ক্লিনচিট পেলেন পূরবী মোদি (Purvi Modi) ও তাঁর স্বামী মায়াঙ্ক জৈন।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : লন্ডনে বোনের নামে অ্যাকাউন্ট খুলে তাতে টাকা রেখেছিলেন নীরব মোদি  (Nirav Modi) । সেই টাকাই এবার ফেরত দিয়েছেন পূরবী মোদি। পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক জালিয়াতি (Punjub National Bank Scam) কাণ্ডে জড়িত নীরব মোদির (Nirav Modi) বোন ইডি-কে ১৭ কোটি টাকা ফেরালেন বৃহস্পতিবার। আর এর ফলে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের থেকে ক্লিনচিট পেলেন পূরবী মোদি (Purvi Modi) ও তাঁর স্বামী মায়াঙ্ক জৈন। জানা গিয়েছে, বিবৃতি প্রকাশ করে ইডি জানিয়েছে, লন্ডনে বোনের অ্যাকাউন্টে পলাতক ব্যবসায়ী প্রায় ১৭.২৫ কোটি টাকা রেখেছিলেন। এদিন ভারত সরকারের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সেই টাকা জমা দিয়েছেন পূরবী মোদি।

    ১৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার পিএনবি প্রতারণায় নীরব মোদির  (Nirav Modi)  সঙ্গেই তাঁর বোন পূরবী (Purvi Modi) এবং ভগ্নিপতিরও নাম জড়িয়েছিল। কিন্তু, তদন্তে সাহায্যের আশ্বাস দেওয়ায়, জানুয়ারিতে আদালত তাদের মুক্তি দিয়েছিল। এরপরেই ২৪ জুন ইডি-কে পূরবী মোদি (Purvi Modi)  জানিয়েছিলেন, লন্ডনে তাঁর নামে খোলা একটি ব্যাঙ্ক একাউন্টে প্রচুর টাকা জমা রেখেছেন নীরব। তদন্তের স্বার্থে সেই টাকা ফিরিয়ে দেবেন তিনি।

    সেই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার লন্ডনের ব্যাঙ্ক একাউন্ট থেকে কেন্দ্রীয় সংস্থাকে ১৭.৫ কোটি টাকা ফিরিয়ে দিয়েছেন পূরবী মোদি (Purvi Modi) । জুনেই বিজয় মাল্য, মেহুল চোকসি ও নীরব মোদির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে ৯ হাজার কোটি টাকার বেশি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে ফেরত পাঠিয়েছিল ইডি। এদিকে, ভারতে প্রত্যাপনের বিরোধিতায় নীরব মোদির মামলা খারিজ করে দিয়েছে ইউকে হাইকোর্ট।বিদেশমন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, খুব শীঘ্রই নীরব মোদিকে ভারতে নিয়ে আসা হবে।

    ভারতের পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের কয়েক কোটি টাকা তছরুপের মামলায় অভিযুক্ত নীরব ভারত থেকে পালিয়ে ব্রিটেনে আত্মগোপন করেছিলেন। নীরব আপাতত ব্রিটেনের জেলে বন্দি। উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই নীরব মোদির ভারতে প্রত্যর্পণের সিদ্ধান্তে সবুজ সংকেত দিয়েছিল ব্রিটিশ সরকার। তবে সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানানোর অনুমতি চেয়ে ব্রিটেনের হাইকোর্টে আবেদন জানান নীরব। এদিকে নীরব মোদিকে যে আদালত প্রত্যর্পণের নির্দেশ দিয়েছে, ওই একই আদালত বিজয় মালিয়াকেও প্রত্যর্পণের নির্দেশ দিয়েছে। আর মেহুল চোকসি সম্প্রতি ধরা পড়েছেন ডোমিনিকাতে ৷ সেখানকার আদালতে তাঁর প্রত্যর্পণের বিষয়টি নিয়ে মামলা চলছে।

    এদিকে কয়েকদিন আগেই বিজয় মালিয়া, মেহুল চোকসি, ও নীরব মোদির বাজেয়াপ্ত হওয়া সম্পত্তির একটা অংশ ব্যাঙ্কের হাতে তুলে দেওয়া হয় ইডির তরফে। হস্তান্তরিত সম্পত্তির পরিমাণ ছিল প্রায় ৯ হাজার ৩৭১ কোটি টাকা। এই তিন পলাতক ব্যবসায়ী যে ব্যাঙ্কের সঙ্গে আর্থিক প্রতারণায় অভিযুক্ত, সেই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ককগুলিই এই টাকা দেওয়া হয়। জানা গিয়েছে যে বিজয় মালিয়া, নীরব মোদি ও মেহুল চোকসির ব্যাঙ্ক প্রতারণার আর্থিক পরিমাণ সব মিলিয়ে ২২৫৮৫.৮৩ কোটি টাকা। ইডি ইতিমধ্যে ১৮১৭০.০২ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে। এর মধ্যে বিদেশে থাকা সম্পত্তির পরিমাণ ৯৬৯ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে ব্যাঙ্কের থেকে প্রতারণা করে নেওয়া অর্থের ৮০.৪৫ শতাংশ উদ্ধার করা গিয়েছে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: