• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • PM NARENDRA MODI SAID WE WANT DISCUSSION INSIDE THE PARLIAMENT AS WELL WITH THE FLOOR LEADERS OUTSIDE THE PARLIAMENT ON CORONAVIRUS SB

Narendra Modi Press Conference: 'করোনা নিয়ে সব উত্তর দেব, সুযোগ দিন', সংসদে মোদি উঠতেই সোচ্চার বিরোধীরা

সংসদে মোদি

Narendra Modi Press Conference: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি করোনা ইস্যুতে বলেন, 'করোনার বিরুদ্ধে লড়তে হলে একটাই উপায়, টিকা নিয়ে বাহুবলী হয়ে যান। সেই হিসেবে দেশের ৪০ কোটি মানুষ বাহুবলী হয়ে গিয়েছেন। করোনার বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হয়ে লড়তে হবে।'

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নরমে-গরমে। লোকসভা নির্বাচনের আগে নিয়মমাফিক নির্দিষ্ট কিছু সাক্ষাৎকার দিলেও সাংবাদিক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে পাওয়া যায় না বললেই হয়। কিন্তু সংসদের বাদল অধিবেশনের আগে হঠাৎই সোমবার তিনি মুখোমুখি হলেন সংবাদমাধ্যমর। এদিন সংসদ ভবন চত্বরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে নরেন্দ্র মোদি বলেন, 'সংসদে গঠনমূলক সমস্ত আলোচনা হবে। বিরোধীরা অবশ্যই প্রশ্ন করবেন। সরকার তার উত্তর দেবে।' কিন্তু সাংবাদিক বৈঠকে এদিন কোনও প্রশ্নই নেননি প্রধানমন্ত্রী। নিজের বক্তব্য রেখেই চলে যান তিনি। তবে, সংসদের অধিবেশনের শুরুতেই মোদি বক্তব্য রাখতে শুরু করা মাত্রই হইহট্টগোল শুরু করেন বিরোধী সাংসদরা। তখন মোদিকে বলতে শোনা যায়, 'আমি ভেবেছিলাম, আজ সংসদ অনেক পরিমিত থাকবে। দেশের নতুন মহিলা, দলিত মন্ত্রীরা হয়েছেন, তাঁদের পরিচয় করানোর সুযোগটাও দেওয়া হচ্ছে না।'

    এদিন সংসদ ভবনের বাইরে সাংবাদিকদের সামনে প্রধানমন্ত্রী করোনা ইস্যুতে বলেন, 'করোনার বিরুদ্ধে লড়তে হলে একটাই উপায়, টিকা নিয়ে বাহুবলী হয়ে যান। সেই হিসেবে দেশের ৪০ কোটি মানুষ বাহুবলী হয়ে গিয়েছেন। করোনার বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হয়ে লড়তে হবে।' এরপরই করোনা নিয়ে সংসদে আলোচনার প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'সাংসদরা তীক্ষ্ণ ও ক্ষুরধার প্রশ্ন অবশ্যই করবেন। তবে সরকারপক্ষকে জবাব দেওয়ার সুযোগ দিতে হবে। করোনা রুখতে যা যা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তা বিস্তারিত জানানো হবে। যা করা হয়নি, সেগুলোও করা যেতে পারে।' প্রসঙ্গত, রবিবার মাত্র কিছুক্ষণের জন্য সর্বদল বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি বিরোধী দলের নেতাদের জানিয়েছিলেন, আগামী মঙ্গলবার বিরোধী নেতাদের সঙ্গে করোনার বিষয়ে আলাদাভাবে বিস্তারিত কথা বলবেন তিনি। কিন্তু বিরোধীরা তা খারিজ করে সংসদে প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করেন। রাজনৈতিক মহলের মতে, বিরোধীদের একরোখা মনোভাবের কারণেই এদিন নরেন্দ্র মোদিকে বলতে হল, সংসদে করোনার বিষয়ে আলোচনা করা হবে। প্রসঙ্গত, রবিবারের সর্বদল বৈঠকে ছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, বাণিজ্য মন্ত্রী পীযূষ গোয়াল, তৃণমূলের তরফে ছিলেন ডেরেক ও'ব্রায়েন ও সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, কংগ্রেসের তরফে অধীর চৌধুরী, সমাজবাদী পার্টির তরফে রামগোপাল যাদব, বহুজন সমাজ পার্টি, বিজেডি, সিপিএম, সিপিআই, আরএসপি, জেডি(ইউ), আরজেডি, টি আর এস, টি ডি পি, ডিএমকে, আইডিএমকে, শিরোমনি অকালি দল, ন্যাশনাল কনফারেন্স-সহ অন্যান্য দলের নেতারা। এবারের অধিবেশনে মূলত পেট্রোল ডিজেলের দামবৃদ্ধি এবং করোনাভাইরাস (Coronavirus) মোকাবিলায় কেন্দ্রের ব্যর্থতার অভিযোগ তুলেই সবচেয়ে বেশি সরব হতে চলেছে বিরোধীরা। তাই আগাম প্রস্তুতি নিয়ে রাখলেন প্রধানমন্ত্রীও।
    Published by:Suman Biswas
    First published: