• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • PM NARENDRA MODI MEETING WITH POLITICAL LEADERS FROM JAMMU AND KASHMIR IS AN IMPORTANT STEP IN THE ONGOING EFFORTS TOWARDS A DEVELOMENT AND PROGRESS SB

Modi Meets With Kashmir Leaders: পুরনো রূপ ফিরে পাবে কাশ্মীর? নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বিশেষ বার্তা মোদির

ফলপ্রসূ বৈঠক

Modi Meets With Kashmir Leaders: সাড়ে তিন ঘণ্টার বৈঠক শেষে বিভিন্ন বিরোধী দলের নেতারা দাবি করলেন, জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: জম্মু কাশ্মীরের রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ বহু প্রতীক্ষিত এই বৈঠকেই জম্মু কাশ্মীরকে রাজ্যের তকমা ফিরিয়ে দেওয়া এবং বিধানসভা নির্বাচনের আয়োজনের জন্য কেন্দ্রের তৈরি রূপরেখা ফারুক আবদুল্লা, মেহবুবা মুফতিদের জানানোর কথা ছিল প্রধানমন্ত্রীর৷ আর সাড়ে তিন ঘণ্টার বৈঠক শেষে বিভিন্ন বিরোধী দলের নেতারা দাবি করলেন, জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

    কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদের কথায়, 'আমাদের পাঁচটি দাবির মধ্যে ছিল, শীঘ্রই জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়া, অবিলম্বে বিধানসভা নির্বাচনের আয়োজন, কাশ্মীরি পণ্ডিতদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা, সব রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি ও আধিপত্য আইনে বদল। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জম্মু-কাশ্মীরকে রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।’’

    জম্মু অ্যান্ড কাশ্মীর আপনি পার্টি-র তরফে আলতাফ বুখারি জানিয়েছেন, সুষ্ঠ পরিবেশে আলোচনা হয়েছে। প্রত্যেকেই তাঁদের বক্তব্য বিশদভাবে জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সকলের কথা শুনেছেন। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে জম্মু-কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লাহ্‌, ওমর আবদুল্লাহ্‌ ও মেহবুবা মুফতি উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে। সূত্রের খবর, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'রাজনৈতিক মতবিরোধ থাকতেই পারে, কিন্তু সব দলের উচিত দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করা। দিল্লি থেকে কাশ্মীরের মানসিক দূরত্ব মুছে ফেলতে হবে।' ট্যুইটারে কাশ্মীরের নেতাদের সঙ্গে ছবি শেয়ার করে, ভূস্বর্গে উন্নয়নের বার্তাই দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

    স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, কেন্দ্রীয় সরকারের এই উদ্যোগের পর স্থায়ী ভাবে শান্তি কি ফিরবে কাশ্মীরে? কারণ উপত্যকায় তৈরি হওয়া রাজনৈতিক শূন্যতাকে কাজে লাগিয়েই বিভিন্ন বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন কাশ্মীরের যুব সমাজের একাংশের মধ্যে দেশ বিরোধিতার জিগিড় তুলে তাঁদের বিপথে চালিত করছিল৷ এই বাস্তব সত্যিটা বুঝেই দ্রুত কাশ্মীরে স্বাভাবিক রাজনৈতিক কর্মসূচি ফেরাতে চাইছে মোদি সরকার৷

    তবে, রাজ্যের তকমা ফিরিয়ে দেওয়া হলেও কেন্দ্র যে কাশ্মীরের বিশেষ সাংবিধানিক ক্ষমতা আর ফেরাবে না, তা এক প্রকার নিশ্চিত৷ শুধু তাই নয়, কাশ্মীরের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রের হাতে বিশেষ ক্ষমতাও রাখা হতে পারে বলে সূত্রের খবর৷ তবে মোটের উপর এদিনের বৈঠককে ইতিবাচকই বলা যেতে পারে।

    Published by:Suman Biswas
    First published: