• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • PM MODI TO MEET JAMMU AND KASHMIR LEADERS TODAY GUPKAR ALLIANCE LIKELY TO DEMAND STATEHOOD AKD

PM Modi to meet J & K leaders| জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, উপত্যকায় হাই অ্যালার্ট

কাশ্মীর নিয়ে আজ মোদির সর্বদলীয় বৈঠক।

PM Modi to meet J & K leaders| সূত্রের খবর, বৈঠকের আগে প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে গিয়ে আলাদা করে কথা বলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আজ, বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টেয় কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে সর্বদল বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীরে নির্বাচন করানোর কথা ভাবছে কেন্দ্র। সেই নিয়েই এদিন স্থানীয় রাজনীতিকদের সঙ্গে আলোচনা করতে চান প্রধানমন্ত্রী। সূত্রের খবর, বৈঠকের আগে প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে গিয়ে আলাদা করে কথা বলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগে এদিন সকালে কংগ্রেসের নেতারা পৃথকভাবে গুলাম নবি আজাদের বাড়িতে গিয়ে বৈঠক করেন। বৈঠকে ছিলেন কংগ্রেস নেতা গোলাম আহমেদ মীর। তিনি জানিয়েছেন, দেরিতে হলেও সর্বদল বৈঠকের কথা মনে পড়েছে প্রধানমন্ত্রীর কিন্তু তাঁরা জানাচ্ছেন, উপত্যকায় ৩৭০ ধারা পুনর্বহাল করা এবং বিশেষ মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে অনড় থাকবেন তারা। তিনি দাবি করেছেন আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই যাবতীয় সমস্যার সমাধান মেটাতে হবে।

এ দিকে, আজ বৃহস্পতিবার বিজেপির নেতারাও দলের সদর দফতরে জগত প্রকাশ নাড্ডার সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে উপস্থিত হয়েছিলেন জম্মু-কাশ্মীরের বিজেপিপ্রদেশ সভাপতি রবীন্দ্র রায়না, কবীন্দ্র গুপ্তা, নির্মল সিং-সহ অন্যরা। রবীন্দ্র রায়না জানিয়েছেন, "প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে নতুন রূপে সেজে উঠছে জম্মু ও কাশ্মীর। এখন মানুষ রোজগারের কথা বলছেন। মূল স্রোতে ফিরে আসার আলোচনা চলছে। নির্বাচনী প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। স্বভাবতই কাশ্মীর ভারতের অংশ হিসেবেই ঘুরে দাঁড়াচ্ছে।"

যদিও সরকারি ভাবে বৈঠকের আলোচ্য বিষয় জানানো হয়নি। তবে রাজনৈতিক মহল মনে করছে, জম্মু ও কাশ্মীরে বিধানসভা নির্বাচন করানো নিয়েই মূল আলোচনা করতে চাইছেন নরেন্দ্র মোদি। বিরোধীরা যদিও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল এর পরিবর্তে রাজ্যের মর্যাদা দাবি করবেন।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে বিজেপি ও পিডিপি সরকার পতনের পর ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ এবং ৩৫-এ ধারা বিলোপ করা হয়। একইসঙ্গে  জম্মু কাশ্মীর এবং লাদাখ কে পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়। গৃহবন্দি করা হয় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি, ওমর, ফারুক আবদুল্লা সহ রাজনীতিকদের। তার পর এই প্রথম কাশ্মীরের দলগুলোর মুখোমুখি হচ্ছেন মোদি।

দীর্ঘদিন পর প্রধানমন্ত্রীর সর্বদল বৈঠকের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়েছে গুপকার জোট, কংগ্রেস, সিপিএম সহ জম্মু ও কাশ্মীরের স্থানীয় দলগুলো। মঙ্গলবার নিজেদের মধ্যে আলোচনা সেরেছে গুপকার জোট। নেতৃত্বে রয়েছেন এনসি প্রধান ফারুক আবদুল্লা। সেখানে নেতারা সর্বসম্মতভাবে একটাই সিদ্ধান্তে আসেন। বৈঠকে তাঁরা দাবি তুলবেন, কাশ্মীরকে ফের রাজ্যের মর্যাদা দিতে হবে। ফেরাতে হবে ৩৭০ ধারা। কংগ্রেসের হয়ে বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী গুলাম নবি আজাদ এবং উপত্যকার কংগ্রেস প্রধান জিএ মীর। বৈঠকের আগে অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত বুধবারই জম্মু ও কাশ্মীরের সমস্ত জেলার ডেপুটি কমিশনারদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক সেরে নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। কোন জেলায় কতগুলো বিধানসভা বা লোকসভা কেন্দ্র রয়েছে, সেই নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সূত্র বলছে, উপনির্বাচন কমিশনার চন্দ্রভূষণ কুমার ডিসিদের এ নিয়ে খুঁটিয়ে  প্রশ্ন করেছেন।

Published by:Arka Deb
First published: