PM Modi on Covid 19 : উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনা পরিস্থিতি! রাত ৮ টা ৪৫ মিনিটে জাতির উদ্দেশে ভাষণ মোদির

PM Modi on Covid 19 : উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনা পরিস্থিতি! রাত ৮ টা ৪৫ মিনিটে জাতির উদ্দেশে ভাষণ মোদির

সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, গত রবিবার ভারতে প্রতি ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১০,৮৯৫ হয়েছে৷ আর প্রতি ঘণ্টায় মারা যাচ্ছেন ৬২ জন৷

সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, গত রবিবার ভারতে প্রতি ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১০,৮৯৫ হয়েছে৷ আর প্রতি ঘণ্টায় মারা যাচ্ছেন ৬২ জন৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : উত্তরপ্রদেশ দিল্লিতে অক্সিজেনের হাহাকার, মহারাষ্ট্র লকডাউনের পথে। একই পথে গুজরাত, বিহার ঝাড়খণ্ডও। দেশে ক্রমশ বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে করোনা পরিস্থিতি। সিঁদুরে মেঘ দেখে পরিযায়ী শ্রমিকদের ভিড় বাড়ছে ট্রেন স্টেশন ও বাস টার্মিনাসে। বাড়ছে আতঙ্ক ও উদ্বেগ। এই পরিস্থিতিতে আর কিছুক্ষনের মধ্যেই জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

    যত সময় যাচ্ছে ততই যেন করোনার (Coronavirus in India) দ্বিতীয় ধাক্কা আর ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করছে৷ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্যই বলছে, প্রতি ঘণ্টায় ভারতে করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হচ্ছেন গড়ে ১০ হাজার মানুষ৷ আর মৃত্যু হচ্ছে অন্তত ৬০ জনের৷ দৈনিক সংক্রমণ ছাড়িয়েছে আড়াই লক্ষেরও বেশি। এহেন পরিস্থিতিতে সেনাবাহিনীর শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। অতিমারী মোকাবিলায় স্থানীয় প্রশাসনকে মদত দিতে সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

    মঙ্গলবার ভারচুয়ালি সেনার তিন বাহিনীর প্রধান ও চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াতের সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন রাজনাথ। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থার (DRDO) চেয়ারম্যান ও আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল কলেজের ডিজি। এদিনের আলোচনায় করোনা রুখতে প্রতিরক্ষা বিভাগের প্রস্তুতির দিকটি খতিয়ে দেখেন রাজনাথ সিং। পাশাপাশি, স্থানীয় প্রশাসনকে মদত দিতে সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। সেখানেই সেনার ৯৭টি হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর। পাশাপাশি, সেনাবাহিনীতে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়া ও জরুরি ওষুধ মজুত করা ও তা বিতরণ নিয়ে আলোচনা হয় বলেও জানা গিয়েছে।

    পরিস্থিতি দ্রুত খারাপ হচ্ছে৷ কেন্দ্রীয় সরকারি তথ্য অনুযায়ী, গত ১ এপ্রিল দেশে প্রতি ঘণ্টায় গড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩০১৩ জনের৷ আর প্রতি ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছিল ১৯ জনের৷ মাত্র কুড়ি দিনের মধ্যেই প্রতি ঘণ্টায় আক্রান্ত এবং মৃত্যু হার তিন গুনেরও বেড়ে গিয়েছে। সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, গত রবিবার ভারতে প্রতি ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১০,৮৯৫ হয়েছে৷ আর প্রতি ঘণ্টায় মারা যাচ্ছেন ৬২ জন৷ গত রবিবার দেশে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ২,৬১,৫০০ জন৷ মৃত্যু হয়েছিল ১৫০১ জনের৷ এই পরিস্থিতিতে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্র মোদি তাঁর ভাষণে কী বলেন সেদিকে তাকিয়ে আছে গোটা দেশ।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: