দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে পোষ্যদের কিভাবে রাখবেন বাড়িতে ? খাওয়াবেনই বা কি ? চিন্তায় পশুপ্রেমীরা !

লকডাউনে পোষ্যদের কিভাবে রাখবেন বাড়িতে ? খাওয়াবেনই বা কি ?  চিন্তায় পশুপ্রেমীরা !
photo source collected

চার দেওয়ালের মধ্যে টানা ২১ দিন নিজেদের পোষ্যদের কিভাবে রাখবেন তা নিয়ে চিন্তিত অনেকেই।

  • Share this:

#নয়া দিল্লি: সারা বিশ্বের মানুষ এখন গৃহবন্দি অবস্থাতে রয়েছে। করোনা ভাইরাসকে আটকাতে এছাড়া অন্য কোনও পথ আপাতত সরকারের সামনে নেই। এই ভাইরাসের এখনও কোনও সঠিক চিকিৎসা নেই। ভ্যাকসিন নেই। এই অবস্থায় মানুষকে গৃহবন্দি করা ছাড়া উপায় নেই। তবে করোনা ভাইরাস কি তা বোঝার ক্ষমতা বাড়ির পোষ্যদের নেই।

২১ দিন লকডাউনে মানুষ না হয় নিজেকে বুঝিয়ে বাড়িতে রাখতে পারবে। কিন্তু চার দেওয়ালের মধ্যে টানা ২১ দিন নিজেদের পোষ্যদের কিভাবে রাখবেন তা নিয়ে চিন্তিত অনেকেই। কুকুরদের কিভাবে হাঁটতে নিয়ে বেরোবেন বা লকডাউনের সময় খাবার দরকার পড়লে তাই বা পাবেন কি করে? এই সব প্রশ্ন নিয়ে অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করছেন। ফুড ব্লগার মোনিকা মানচন্দা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে লিখেছেন," আমাকে জানান আপনারা আপনাদের পোষা কুকুরকে কিভাবে হাঁটতে নিয়ে যাবেন ? খাওয়ারের কি ব্যবস্থা করছেন ?

একজন জানিয়েছেন এই পোস্টের উত্তরে,"আমি আমার কুকুরের জন্য কিছু ফ্রজেন মাংস রেখেছি। যা বেশ কিছু দিন রাখা যাবে। ভাত ও ভেজিটেবলের সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়াতে হবে এখন।

আর একজন লিখেছেন, " আমি কুকুরদের সকালে সূর্য ওঠার আগেই একবার বাইরে নিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু আমি খুব চিন্তিত।" কেউ কেউ বাড়ির মধ্যেই রাখছেন। বাইরে বার করছেন না। অনেকেই আবার প্রশ্ন তুলেছেন যদি তাদের দিনে যেকোনও একবার কুকুরদের নিয়ে বাইরে যেতে দেওয়া হত তাহলে ভাল হয়। বাড়ির পোষ্যদের নিয়ে এমন অনেক প্রশ্নই উঠে এসেছে। যদিও তারা সকলেই জানেন লকডাউনে বাইরে বেরোন সম্ভব নয়।

যদিও জনতা কারফিউ যে দিন চালু ছিল সেদিনও এই ধরণের প্রশ্ন তুলেছিলেন পশু প্রেমীরা। কিন্তু এখন করোনা ভাইরাস যেভাবে ভারতে ছড়িয়েছে। মৃ্ত্যু হারও বাড়ছে। সে অবস্থাতে কুকুরদের বাড়িতেই রাখতে হবে। সরকার সারা দেশের মানুষের স্বার্থেই এই ব্যবস্থা নিয়েছেন। তবে পোষ্যদের ২১ দিন লকডাউন করে রাখা সোজা নয়। পোষ্যর মালিককে সময় দিতে হবে পোষ্যদের। মন ভাল রাখার চেষ্টা করতে হবে।

Published by: Piya Banerjee
First published: March 25, 2020, 7:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर