• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • অবশেষে করোনা থেকে মুক্তি? জানুয়ারি থেকেই দেশে মিলবে ভ্যাকসিন!

অবশেষে করোনা থেকে মুক্তি? জানুয়ারি থেকেই দেশে মিলবে ভ্যাকসিন!

টিকাকরণের ইতিহাসে করোনার প্রতিষেধক দেওয়ার এই কর্মসূচি আগামী দিনে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ হিসেবে চিহ্নিত হতে চলেছে৷ বিশ্বের বেশ কিছু দেশে ইতিমধ্যে টিকাকরণ শুরুও হয়ে গিয়েছে৷ ভারতও কিছুদিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিক ভাবে করোনার প্রতিষেধকে ছাড়পত্র দিয়ে দেবে৷

টিকাকরণের ইতিহাসে করোনার প্রতিষেধক দেওয়ার এই কর্মসূচি আগামী দিনে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ হিসেবে চিহ্নিত হতে চলেছে৷ বিশ্বের বেশ কিছু দেশে ইতিমধ্যে টিকাকরণ শুরুও হয়ে গিয়েছে৷ ভারতও কিছুদিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিক ভাবে করোনার প্রতিষেধকে ছাড়পত্র দিয়ে দেবে৷

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন যে দেশে করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে জোরকদমে কাজ চলছে ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: দেশে প্রতিদিনই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে ৷ তারই মাঝে সামনে এল বড় খবর ৷ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী ডা: হর্ষবর্ধন জানিয়েছেন মনে করা হচ্ছে ভারতে করোনা মহামারির সবচেয়ে খারাপ সময় অবশেষে শেষ হয়েছে ৷ তিনি আরও জানিয়েছেন যে অনুমান করা হচ্ছে জানুয়ারিতেই দেশের নাগরিকদের করোনা টীকাকরণ দেওয়া শুরু করা হতে পারে ৷

    কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন যে দেশে করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে জোরকদমে কাজ চলছে ৷ ভ্যাকসিন তৈরি ও রিসার্চের বিষয়ে ভারত সব সময় এগিয়ে থাকে ৷ তবে ভ্যাকসিনের কী কী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে সে বিষয়ে নিশ্চিত না হয়ে কোনওরকম আপোস করতে নারাজ বিজ্ঞানীরা ৷

    তিনি আরও জানিয়েছেন, কিছু মাস আগে পর্যন্ত দেশে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ছিল ১০ লক্ষ যা এখন কমে ৩ লক্ষ হয়েছে ৷ দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটির বেশি হয়ে গিয়েছে ৷ তবে এর মধ্যে ৯৫ লক্ষের বেশি রোগীরা সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৷ ভারতের রিকভারি রেট বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৷ ডা: হর্ষবর্ধন জানিয়েছেন, গত ১০ মাস ধরে যে সঙ্কটের মধ্যে দেশ যাচ্ছিল তা শীঘ্রই শেষ হতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে ৷ করোনার বিরুদ্ধে এই যুদ্ধে অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারত অনেক ভাল জায়গায় রয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে ৷

    টীকাকরণের পদ্ধতি ও প্রক্রিয়া নিয়ে গত ৪ মাস ধরে রাজ্যগুলির সঙ্গে বৈঠক করেছে কেন্দ্র সরকার ৷ সকলে যাতে সুরক্ষিত ভাবে ভ্যাকসিন নিতে পারেন তার জন্য ২৬০ জেলার ২০ হাজারের বেশি কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে ৷ তিনি আরও জানান, প্রথম লক্ষ্য হবে সকলকে এই ভ্যাকসিন দেওয়া, তবে কেউ তা নিতে না চাইলে তাকে জোর করা হবে না ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published: