corona virus btn
corona virus btn
Loading

অশনি সংকেত! আচমকাই উড়ে গেল পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের ধ্বজা, আতঙ্কে ভক্তেরা

অশনি সংকেত! আচমকাই উড়ে গেল পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের ধ্বজা, আতঙ্কে ভক্তেরা
ফাইল ছবি

সোমবার দুপুরের পর হঠাতই মন্দিরের পান্ডারা লক্ষ্য করেন, মন্দিরের মাথায় ধ্বজা নেই । এরপর হইচই পড়ে যায় মন্দির প্রাঙ্গণে ।

  • Share this:

#পুরীঃ চোখ রাঙ্গাচ্ছে আমফান। তার আগে উড়ে গেল পুরীর মন্দিরের ধ্বজা । তবে কি বড় কোনও বিপদের সংকেত !

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, অতি প্রবল গতিতে ধেয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন ‘আমফান’। হাতে আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা। আতঙ্কের প্রহর গুণছে ওড়িশা-সহ গোটা বাংলা । তার আগেই উড়ে গেল পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের নীলচক্রের উপরে উড়তে থাকা 'পতিতপবন বানা' । সোমবার দুপুরের পর হঠাৎই মন্দিরের পান্ডারা লক্ষ্য করেন, মন্দিরের মাথায় ধ্বজা নেই । হইচই পড়ে যায় মন্দির প্রাঙ্গণে । কিছুক্ষণের মধ্যেই ফের লাগান হয় ধ্বজা । কারণ ধ্বজা না থাকলে মন্দিরে জগন্নাথ দেবের সেবা হয় না- এমনই রীতি।

এদিনের ঘটনা জানাজানি হতেই ভক্তদের মধ্যে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয় । অনেকেই দাবি করেন, মন্দিরে ভক্তদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করার জেরেই এত বড় দুর্ঘটনা। আবার কেউ কেউ বলেন, এ এক অশনি সংকেত । কারণ, সোমবার দুপুরে পর পুরীতে নাকি খুব জোরে হাওয়া বইছিল না । তাই হঠাৎ ধ্বজা কী করে উড়ে গেল , তা নিয়ে কোন ব্যাখ্যা খুঁজে পাচ্ছেন না অনেকেই। আমফান আসার ঠিক আগে পুরীর মন্দিরের এই ঘটনায় বড় কোন দুর্যোগ আসছে বলে আশঙ্কা পান্ডা এবং সেবায়েতদের ।

প্রসঙ্গত, এর আগে পুরীর মন্দিরের মাথায় ধ্বজা পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছিল । এমনিতেই ঘূর্ণিঝড়ের হাত থেকে বাঁচতে আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয় পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে । জগন্নাথ দেবের মন্দিরের চূড়ায় ১৫ ফুট লম্বা ধ্বজা সরানো হয়। পরিবর্তে রাখা হয় ৪ ফুট লম্বার ধ্বজা । এর আগে ফণীতে সেই ছোট ধ্বজা উড়ে গিয়েছিল ।

প্রসঙ্গত, পুরীর মন্দিরের মাথায় প্রতিদিনই ধ্বজা পরিবর্তন করা হয়। বলা হয় ধ্বজা পরিবার্তন না করলে আগামী ১৮ বছরের জন্য নাকি পুরী মন্দির বন্ধ হয়ে যেতে পারে । আর পুরীর মন্দিরের পতাকা হাওয়ার দিকেই ওড়ে । যদিও আশ্চর্য এই বিষয়ের এখনও কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি । প্রতিদিন মন্দিরের একজন পুরোহিত মন্দির চূড়ায় গিয়ে এই পাতাকা লাগিয়ে আসেন । এই ৪৫ তলা উঁচুতে পতাকা লাগানোর জন্য কোনও নিরাপত্তা প্রয়োজন হয় না পুরোহিতের । এছাড়া এমন নানা কাহিনী রয়েছে ঐতিহাসিক এই ধ্বজাকে ঘিরে ।

এদিকে, আমফানের জন্য ইতিমধ্যেই ওড়িশার বিভিন্ন জেলায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে । পুরীতেও সতর্কতা জারি করা হয়েছে । তার আগেই এমন ঘটনায় আতঙ্কিত রাজ্যের বাসিন্দারা ।

Published by: Shubhagata Dey
First published: May 18, 2020, 8:39 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर