রোগীর শরীরে HIV-র বাসা, ১২ ঘণ্টা তাকে ছুঁলই না হাসপাতালের কেউ!

চোখের বড় সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন HIV আক্রান্ত রোগী৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 05, 2019 02:06 PM IST
রোগীর শরীরে HIV-র বাসা, ১২ ঘণ্টা তাকে ছুঁলই না হাসপাতালের কেউ!
Representative Image
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 05, 2019 02:06 PM IST

#সম্বলপুর: রোগীর দেহে বাসা বেঁধেছে HIV৷ তাই তাকে ছুঁতে ছুৎমার্গ রয়েছে হাসপাতাল কর্মীদের! বিনা চিকিৎসায় তাই তিনি পড়ে রইলেন৷ কেউ তার খেয়ালও নিলেন না৷ ১২ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে পড়ে রইলেন তিনি৷ এভাবে প্রাণ গেল তার৷ ঘটনা ওড়িশার সম্বলপুরের৷

আরও পড়ুন Viral:সহকর্মীকে নিয়ে সিনেমা হলে গিয়ে বিপাকে তরুণ, স্ত্রী ও শ্যালিকার হাতে বেদম মার!

সম্বলপুরের বীর সুরেন্দ্র সাই ইন্সটিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স এন্ড রিসার্চের এমন ঘটনা নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক৷ HIV ছুঁলে হয় না৷ এক থালায় খেলেও এই রোগ বিস্তার করে না৷ এমন নানা সরকারি প্রচার চলেছে দীর্ঘদিন৷ তবে HIV নিয়ে সরকারি প্রচারেও যে খুব একটা কাজ হয়নি, এই ঘটনাই তার প্রমাণ৷ রোগীকে না ছোঁয়া নিয়ে বিতর্ক তৈরি হওয়ায় সাফাই দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷ তাদের বক্তব্য, মৃত্যুর পর পুলিশের দায়িত্ব ছিল ৭২ ঘণ্টার মধ্যে মৃতদেহ তাদের হেফাজতে রাখা৷ সেখান থেকেই আত্মীয়া দেহটি হস্তান্তরের দাবি জানাতে পারতেন৷ তবে পুলিশ সেই পদক্ষেপ নেয়নি বলে পরোক্ষে পুলিশের ঘারে দোষ চাপিয়েছে হাসপাতাল৷

আরও পড়ুন প্রেমিকাকে বাড়িতে ডেকে বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে ধর্ষণ যুবকের! থানায় অভিযোগ দায়ের

Loading...

চোখের বড় সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন HIV আক্রান্ত রোগী৷ প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয় তাকে৷ কিন্তু তারপর তিনি বেডে পড়েই ছিলেন৷ তাকে স্পর্শ করলে সমস্যা হতে পারে৷ এই ভয়ে কেউ তার ধারে কাছে এলেন না৷ এরপর রোগীর মৃত্যু হলেও, তার দেহটি সরানো হয়নি৷ একইভাবে তার দেহ পড়েছিল বেডে৷ এই নিয়েই তৈরি হয়েছে বিতর্ক৷ তাকে বেড থেকে সরানোর দায়িত্ব কার ছিল, পুলিশ নাকি হাসপাতালের, এই নিয়েই শুরু হয়েছে তুমুল বাকবিতন্ডা৷ তবে প্রায় ৩দিন এভাবে পড়ে থাকার পর দেহ সরানো হল হাসপাতালের মর্গে৷

First published: 01:25:17 PM Nov 05, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर