পরকীয়া সম্পর্কের দোষ!‌ স্বামীকে ঘাড়ে নিয়ে গ্রাম ঘোরার শাস্তি পেলেন মহিলা

Image: ANI

স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ঘটনার প্রেক্ষিতে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

  • Share this:

    #‌ঝাবুয়া:‌ মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়া জেলার এক ঘটনায় অবাক হয়ে গিয়েছেন সকলে। সম্প্রতি একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়, সেখানে দেখা যায়, এক মহিলা ঘাড়ে করে এক পুরুষকে নিয়ে ঘুরছেন। প্রথমে দেখে কেউই বুঝতে পারেননি বিষয়টি কী। পরে বোঝা যায়, এটি হল শাস্তি। ওই মহিলাকে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ার অপরাধে শাস্তি দেওয়া হচ্ছে এভাবে। শাস্তি দিচ্ছে পঞ্চায়েত। যেখানে এলাকার শান্তি বজায় রাখার কথা প্রশাসনের, যেখানে বিচার পৌঁছে দেওয়ার কথা পঞ্চায়েতের, সেখানে তাঁরাই বসিয়েছেন মধ্যযুগীয় বিচারসভা। একুশ শতকের এতদিন পেরিয়ে গিয়েও এই অন্ধকার থেকে এখনও বেরোতে পারেনি সমাজ। স্বাভাবিকভাবেই এই অমানুষিক ঘটনায় অবাক হয়ে গিয়েছে নেট দুনিয়া।

    ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়া এলাকার পারা থানার রানবাস গ্রামে। কী হয়েছিল আসলে?‌ ওই মহিলার স্বামীর সন্দেহ ছিল, তাঁর স্ত্রী অন্য এক পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। ঘটনাটি এরপরই হঠাৎ একদিন জানাজানি হয় গ্রামে। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর গ্রামের লোকেরা নিজেরাই নিজেদের কাঁধে বিচারে ভার তুলে নেন। তারপর গ্রামের লোক জড়ো করে বিচার করা হয়। বিচারে সিদ্ধান্ত হয়, শাস্তি হিসাবে ওই মহিলাকে তাঁর স্বামীকে কাঁধে করে নিয়ে ঘুরতে হবে। প্রতিবাদ করার শক্তি ছিল না মহিলার, তাই বাধ্য হয়ে উপস্থিত জনতার চাপে তিনি স্বামীকে কাঁধে নিয়ে ঘোরেন। পুরো গ্রাম এভাবে ঘোরানো হয় তাঁকে। সেই ঘটনার ভিডিও করা হয়। সেটি ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। তারপরেই নিন্দার ঝড় ওঠে।

    স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ঘটনার প্রেক্ষিতে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। দ্রুত তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ওই মহিলার বয়ানও পুলিশের কাছে এসেছে। যদিও ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। মোট সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন ওই মহিলা। পঞ্চায়েতের নির্দেশেই এই বিচারসভা বসেছিল বলে জানানো হয়েছে।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: