Nandigram: হটস্পট নন্দীগ্রাম, আরও একবার বহিরাগত অভিযোগ নিয়ে কমিশনে তৃণমূল

Nandigram: হটস্পট নন্দীগ্রাম, আরও একবার বহিরাগত অভিযোগ নিয়ে কমিশনে তৃণমূল

মমতা শুভেন্দু খণ্ডযুদ্ধে 'বহিরাগত' কাঁটা। ফাইল চিত্র

আজ তৃণমূলের পক্ষ থেকে ডেরেক ও'ব্রায়েন, কাকলি ঘোষ দস্তিদাররা কমিশনে পুনরায় এই অভিযোগ জানান।

  • Share this:

    #কলকাতা: নন্দীগ্রামে নির্বাচন আগামী ১ তারিখ। তার আগে ফাঁক গলে ঢুকছে বহিরাগতরা। আরও একবার এই নিয়ে অভিযোগ নিয়ে নির্বাচন  কমিশনের দ্বারস্থ তৃণমূল। আজ তৃণমূলের পক্ষ থেকে ডেরেক ও'ব্রায়েন, কাকলি ঘোষ দস্তিদাররা কমিশনে পুনরায় এই অভিযোগ জানান।

    দিন কয়েক আগেই এই একই মর্মে কমিশনে চিঠি দিয়েছিল তৃণমূল। অভিযোগের আঙুল ছিল শুভেন্দু অধিকারীর দিকে। ঠিকানা দিয়ে বলা হয়েছিল নন্দীগ্রামে ভোটের মুখে বহিরাগতরা ঘাঁটি গাড়ছে, এরা বড় অশান্তি তৈরি করতে পারে। মনে করা হচ্ছে, আগের চিঠির কোনও উত্তর না পাওয়াতেই আবার সিইও অফিসে তৃণমূল। তাদের বক্তব্য, শুধু নন্দীগ্রামই নয়, এগরা ভগবানপুরের মতো জায়গায় মানুষের মধ্যে দুষ্কৃতীরা মিশে যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় বাহিনি টহল দিচ্ছে, নাকা চেকিংয় চলছে তবু তাদের চিহ্নিত করা যাচ্ছে না, এমনটাই অভিযোগ তৃণমূলের।

    প্রসঙ্গত এই বহিরাগত ইস্যুতে সরব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। আজও পশ্চিম মেদিনীপুরের একাধিক সভায় তিনি এই প্রসঙ্গ এনেছেন। বলেছেন,  "আমি নন্দীগ্রামে ১ তারিখ পর্যন্ত  থাকব। ভোট করে আমি যাব। ওরা গুন্ডাদের আনছে। বহিরাগতদের ঢুকতে দেবেন না।" কন্টাইয়ে তিরিশজন বন্দুক সমেত ধরা পড়েছে বলেও অভিযোগ করতে শোনা যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যয়কে।

    এর আগে এই বহিরাগত নালিশে চারটি ঠিকানার কথা উল্লেখ করে তৃণমূল। এই চারটি বাড়ির মধ্যে একটি রেয়াপাড়ার কাছে কালীপদ শী-র বাড়ি। দ্বিতীয় বাড়িটি মেঘনাদ পালের, চণ্ডীপুর রোডের ধারে। তৃতীয় বাড়িটি টেঙ্গুয়ার তেরোপাখি গ্রামে। আর রয়েছে বয়াল এলাকার ভজহরি সামন্তর বাড়ি।তৃণমূলের অভিযোগ, এই বাড়িগুলিতে দীর্ঘদিন ধরেই কোথাও ২০ জন, কোথাও ৩০ জন বহিরাগতদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। তাঁরা এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর