CAA Protest: ৬ জনের মৃত্যু, জ্বলছে যোগী-রাজ্য উত্তরপ্রদেশ

CAA Protest: ৬ জনের মৃত্যু, জ্বলছে যোগী-রাজ্য উত্তরপ্রদেশ
বুলন্দশহরে জ্বলছে গাড়ি

লখনৌ মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তার ঘেরাটোপে৷ মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের জেলা গোরক্ষপুরের অবস্থাও শোচনীয়৷ পুলিশের গাড়ি লক্ষ করে ইট, পাথর ছুড়ছে উত্তেজিত জনতা৷ গোরক্ষপুরে সব জায়গায় নামানো হয়েছে পুলিশ৷

  • Share this:

#লখনৌ: নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে আগুন জ্বলছে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্য উত্তরপ্রদেশে৷ আজ অর্থাত্‍‌ শুক্রবার ফিরোজাবাদে পুল্শের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে মৃত্যু হল ১ জনের৷ উত্তরপ্রদেশের বেশির ভাগ শহরেই পুলিশকে লক্ষ করে পাথ, ইট ছুড়ে বিক্ষোভ দেখায় আন্দোলনকারীরা৷ ফিরোজাবাদ, কানপুরে একের পর এক গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়৷ সব মিলিয়ে মৃতের সংখ্যা ৬ জন৷

উত্তরপ্রদেশের ভাদোনি, বাহরাইচ, ফারুকাবাদ, গোরক্ষপুর, সম্ভলে বৃহস্পতিবারের মতো আজও রণক্ষেত্র চেহারা নেয় আন্দোলন৷ ফিরোজাবাদের মৃত্যু সহ এই গত ২৪ ঘণ্টায় নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভে ২ জনের মৃত্যু হল উত্তরপ্রদেশে৷ একজনের মৃত্যু হয়েছে লখনৌয়ে৷ পুলিশ জানিয়েছে, কাঁদানে গ্যাস, ক্যান বহু জায়গায় ব্যবহার করতে হয়েছে৷ কয়েকজন পুলিশকর্মী মারাত্মক আহতও হয়েছেন৷ বিক্ষোভকারীরা হিংসাত্মক ভাবে আন্দোলন করছে৷ ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে, আলিগড়, মউ, আজিমগড়, লখনৌ, কানপুর, বেরেলি, শাহজাহানপুর, গাজিয়াবাদ, বুলন্দশহর, সম্ভল ও এলাহাবাদে৷  

তবে বাকি অংশের তুলনায় লখনৌ ও আলিগড়ে আজ তুলনামূলক শান্ত ছিল পরিস্থিতি৷ লখনৌ মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তার ঘেরাটোপে৷ মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের জেলা গোরক্ষপুরের অবস্থাও শোচনীয়৷ পুলিশের গাড়ি লক্ষ করে ইট, পাথর ছুড়ছে উত্তেজিত জনতা৷ গোরক্ষপুরে সব জায়গায় নামানো হয়েছে পুলিশ৷

বুলন্দশহরের জেলাশাসক রবীন্দ্রকুমারের কথায়, 'আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখতে ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে৷ আজ দুপুর ৩টে থেকেই বন্ধ থাকবে ইন্টারনেট, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত৷'

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে বলা হয়েছে, সেই সব হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পারসি ও খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে, যাঁরা ধর্মীয় নিপীড়নের জেরে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে পালিয়ে ভারতে এসে আশ্রয় নেন৷ ১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব আইনে ভারতের নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য ১২ মাস টানা ভারতে থাকতে হত৷ একই সঙ্গে গত ১৪ বছরের মধ্যে ১১ বছর ভারতবাস জরুরি ছিল। সংশোধনী বিলে দ্বিতীয় নিয়মে পরিবর্তন ঘটানো হচ্ছে। ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্থান থেকে আনা নির্দিষ্ট ৬টি ধর্মাবলম্বীদের জন্য ১১ বছর সময়কালটিকে নামিয়ে আনা হচ্ছে ৬ বছরে। বেআইনি অভিবাসীরা ভারতের নাগরিক হতে পারে না। এই আইনের আওতায়, যদি পাসপোর্ট বা ভিসা ছাড়া কেউ দেশে প্রবেশ করে থাকেন, বৈধ নথি নিয়ে প্রবেশ করার পর নির্দিষ্ট সময়কালের বেশি এ দেশে বাস করে থাকেন, তা হলে তিনি বিদেশি অবৈধ অভিবাসী বলে গণ্য হবেন।

First published: 07:53:21 PM Dec 20, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर