সোশ্যাল মিডিয়ায় বিহার সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুললেই শাস্তি ! বিতর্ক তুঙ্গে !

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিহার সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুললেই শাস্তি ! বিতর্ক তুঙ্গে !
photo source collected

তাহলে কোথায় থাকলো মানুষের বাকস্বাধীনতা? এ নিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

  • Share this:

    #পাটনা: সোশ্যাল মিডিয়ায় যা খুশি তাই লেখার দিন শেষ। মন খুলে সরকারের নিন্দা করবেন ভাবছেন? না হবে না ! এমন ঘটনা চোখে পড়লেই আপনাকে পেতে হতে পারে শাস্তি। এমনকি জেলে পর্যন্ত টানটানি হতে পারে। হ্যাঁ, এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার।

    কয়েক দিন ধরেই রাজ্যের বেশ কিছু মানুষ এবং কিছু গ্রুপ বিহার সরকারকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপত্তিজনক মন্তব্য করছিলেন। আর তাতেই টনক নড়ে। কয়েকদিন ধরেই ফলো করা হচ্ছিল তাদের। এর পর রাজ্যের ইকোনমিক অফেন্সেস উইং-এর আইজি নায়ার হাসনেন বিহারের বিভিন্ন দফতরের সচিবদের চিঠিতে জানিয়েছেন, ‘কয়েক জন ব্যক্তি এবং কিছু সংস্থা সরকার, সম্মাননীয় মন্ত্রী, সাংসদ, বিধায়ক এবং সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে সোশাল মিডিয়ায় আপত্তিজনক বা মানহানিকর মন্তব্য করছেন। এই সব পোস্ট আইনবিরোধী এবং সাইবার অপরাধ বলে গণ্য হবে।’ এই ধরণের পোস্ট নজরে পড়লেই তা ইকোনমিক অফেন্সের উইংকে জানাতে হবে। চট জলদি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

    তাহলে কোথায় থাকলো মানুষের বাকস্বাধীনতা? এ নিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে মানুষ জানাতেই পারেন নিজের মত। সরকার সম্পর্কে কারও ক্ষোভ থাকলে সে কথাও তুলে ধরার স্বাধীনতা থাকা উচিত গণতান্ত্রিক অধিকার হিসেবে। সেই অধিকারে এভাবে হস্তক্ষেপ করাটা কতটা যুক্তি-যুক্ত? সরকারের এত ভয়ই বা কিসের ! এ নিয়ে সরব নেটিজেনরা। সম্প্রতি ট্রাম্পের ফেসবুক অ্যাকাউন্টও বন্ধ করে দিয়েছিলেন জুকারবার্গ নিজে। সে নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়েছিল !


    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    লেটেস্ট খবর