Home /News /national /
Sarpanch Polls: ব্রেইলে স্বাক্ষর! বিশেষ ভাবে সক্ষম শবর প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করল প্রশাসন

Sarpanch Polls: ব্রেইলে স্বাক্ষর! বিশেষ ভাবে সক্ষম শবর প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করল প্রশাসন

শান্তিলাল শবর ব্রেইলে স্বাক্ষর করেছেন মনোনয়নে

শান্তিলাল শবর ব্রেইলে স্বাক্ষর করেছেন মনোনয়নে

Braille Nomination: শান্তিলাল শবর জানিয়েছেন, “আমি ২০০৭ সালের নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলাম এবং ব্রেইলে আমার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলাম।”

  • Share this:

    #ভুবনেশ্বর: ওড়িয়া ভাষার হরফে নয়, ব্রেইলের মাধ্যমে নিজের মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছিলেন দৃষ্টির সমস্যায় ভোগা (visually challenged)। অপ্রত্যাশিতভাবে বাতিল করে দেওয়া হয়েছে সেই মনোনয়ন! ভুবনেশ্বরের নুয়াপাড়া জেলার সরপঞ্চ পদের (sarpanch in Nuapada) জন্য নিজের মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন (Sarpanch Polls)  বিশেষ ভাবে সক্ষম শান্তিলাল শবর (Shantilal Sabar)। মনোনয়ন পত্র যাচাইয়ের সময় তা প্রত্যাখ্যান করেছেন প্রশাসনিক আধিকারিক। মনোনয়ন পত্রে ওড়িয়া ভাষার পরিবর্তে ব্রেইলে নিজের স্বাক্ষর করেছিলেন। এই প্রত্যাখ্যানের প্রতিবাদে ওড়িশা হাইকোর্টে গিয়েছেন প্রার্থী শান্তিলাল শবর।

    প্রার্থী শান্তিলাল শবর (Shantilal Sabar) ডাবরিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি দশম শ্রেণি পাস করার পরে IGNOU থেকে পড়াশোনা করে স্নাতক ডিগ্রিও অর্জন করেছেন শান্তিলাল।

    আরও পড়ুন- ঝিলের জলে বিষ? শয়ে শয়ে পরিযায়ী পাখিদের মৃতদেহ ভাসছে জলে!

    আগামী মাসে পঞ্চায়েত নির্বাচন (Sarpanch Polls) অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়ন যাচাই এবং বাছাইয়ের সময়, কোমনার ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক (BDO) শান্তিলালের মনোনয়ন প্রত্যাখ্যান করেন। কারণ হিসেবে দেখানো হয়, শান্তিলাল ওড়িয়া ভাষা পড়তে ও লিখতে পারেন না।

    শান্তিলাল শবর জানিয়েছেন, “আমি ২০০৭ সালের নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলাম এবং ব্রেইলে আমার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলাম। আমি জানি না কেন আমার কাগজপত্র বাতিল করা হয়েছে। আমি সরকারের কাছে আবেদন করেছি আমাকে জনগণের সেবা করার সুযোগ দেওয়ার জন্য।”

    স্থানীয় বাসিন্দা ধ্রুব শবর বলেন, “শান্তিলাল এই পদের জন্য অবশ্যই একজন ভালো প্রার্থী। সরকার এবং প্রশাসনের উচিত তাঁর আবেদনটি পুনর্বিবেচনা করা।” এ বিষয়ে যদিও ওই কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। রাজ্য অন্ধ সমিতি (State Blind Association) শান্তিলাল শবরকে সবরকম সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

    আরও পড়ুন- 'পাকিস্তানের সমর্থক', ‘জিন্নার উপাসক’! অখিলেশকে আক্রমণ যোগীর

    নুয়াপাড়ার সাব-কালেক্টর (Nuapada sub-collector) তরণীসেন নায়েক (Taranisen Naik) বলেছেন, “নির্দেশিকার নিয়মের ভিত্তিতেই মনোনয়ন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছিল।” নির্দেশিকা অনুসারে, শান্তিলাল যোগ্য প্রার্থী নন কারণ তিনি ওড়িয়া ভাষা পড়তে এবং লিখতে পারেন না। তাই কার্যনির্বাহী কর্মকর্তা তাঁর মনোনয়ন প্রত্যাখ্যান করেছেন,” বলেন কোমনার বিডিও সুশান্ত রানা।

    রাজ্যের ব্লাইন্ড অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শরৎ চন্দ্র দাস প্রশ্ন তুলেছেন, “এই প্রত্যাখ্যান বিশেষ ভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের কাছে ভুল বার্তা নিয়ে যাবে। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা যদি রাষ্ট্রীয় প্রশাসনিক পরিষেবায় কর্মী হিসেবে কাজ করতে পারেন তবে কেন কোনও পদাধিকারী হিসেবে পারবেন না?”

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Odisha

    পরবর্তী খবর