হোম /খবর /দেশ /
আরও বাড়বে ট্রেনের গতি, ট্র‍্যাক পুনর্গঠনে বিশেষ নজর উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের

Indian Rail: আরও বাড়বে ট্রেনের গতি, ট্র‍্যাক পুনর্গঠনে বিশেষ নজর উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলের

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

আগামী কয়েক মাসে বদলে ফেলা হবে আরও কয়েকশো কিলোমিটার রেলওয়ে ট্র‍্যাক। 

  • Share this:

কলকাতা: ট্রেন চলাচলে  সুরক্ষা বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ রক্ষণাবেক্ষণ ও উন্নতির কাজ হাতে নিয়েছে উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল। উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে ২০২২ সালের এপ্রিল থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে রেলের ট্র‍্যাক, স্লিপার এবং টার্নআউট নবীকরণ; ট্র্যাকের ডিপ স্ক্রিনিং,  ট্র্যাক এবং পয়েন্ট ও ক্রসিং টেম্পিং সহ বেশ কয়েকটি ট্র্যাক রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করেছে।

উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেল ট্র্যাকের পরিকাঠামো উন্নত করতে এবং ট্রেন চলাচলের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ট্র্যাক পুনর্নবীকরণের কাজগুলি সম্পাদন করছে৷ ৩৩৪.০৫ কিলোমিটার রেলপথ নতুন করা, ১২৬.৪৩ কিলোমিটার স্লিপার নতুন করা এবং ১৮৯.৭৫ সেটের টার্নআউট পুনর্নবীকরণ এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর, ২০২২ এর মধ্যে করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান! কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী স্বপ্নের রেলযাত্রা চালুর পথে... পরিষেবা শুরু কবে থেকে? জানুন বিস্তারিত

এই সময়ের মধ্যে, যাত্রীদের ঝাঁকুনিমুক্ত এবং আরামদায়ক ভ্রমণের অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে রেলপথে ৩৫ টি থিক ওয়েব সুইচ স্থাপন করা হয়েছে। উন্নত মানের কাজগুলি অর্জনের লক্ষ্যে, উত্তর পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ে ট্র্যাক মেশিন ব্যবহার করে রক্ষণাবেক্ষণের কাজগুলি সম্পাদন করছে৷রেলওয়ে ট্র্যাক-এর আরও টেকসই এবং সমতল নিশ্চিত করার জন্য রেলপথের নীচে ব্যালাস্ট প্যাক করতে এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর, ২০২২ এর মধ্যে ৫৮২১.২০ কিলোমিটার রেলপথ এবং ২৬৭১টি পয়েন্ট ও ক্রসিং টেম্প করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: নোংরা, দুর্গন্ধযুক্ত ট্রেনের টয়লেট আর নয়! রেলের কোচে বদলে যাচ্ছে বাথরুম, দেখুন

এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর ২০২২ এর মধ্যে রেলওয়ে ট্র্যাক-এ পরিছন্ন বালাস্ট কুশন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২২৪.৬২ কিলোমিটার. প্লেইন ট্র্যাক এবং ১৩৯টি টার্ণ আউটের ডিপ স্ক্রীনিং করা হয়েছে। রেলওয়ে ট্র্যাক-এর ডিপ স্ক্রীনিংয়ে বালাস্ট বেড-এর স্থিতিস্থাপকতা পুনরুদ্ধার করে থাকে এবং এর পরিণাম স্বরূপ ট্র্যাক-এর উপর চলাচলের গুণমান উন্নত হয়। উক্ত সময়ের মধ্যে মুঠ ৪.৭৮ লাখ সিইউএম বালাস্ট ট্র্যাক-এ বিছানো হয়েছে এবং ১৫৯টি ব্রীজ ও পুর্নবাসিত করা হয়েছে।

উত্তর পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সব্যসাচী দে জানিয়েছেন, "রেলের ট্র্যাকগুলি নিয়িমতভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়ে থাকে এবং নির্ধারিত ব্যবধানে পরিদর্শন করাও হয়ে থাকে, যাতে প্রতিটি সেকশন ট্রেন পরিচালনার জন্য উপযুক্ত হয়ে থাকে এবং যাত্রীরা আরও ভাল ভ্রমণের অভিজ্ঞতা পেতে পারেন।"

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Indian Railway, Trains