• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • গুজরাত নির্বাচনের দিন ঘোষণা নিয়ে কেন্দ্রের তরফে কোনও চাপ নেই, জানাল নির্বাচন কমিশন

গুজরাত নির্বাচনের দিন ঘোষণা নিয়ে কেন্দ্রের তরফে কোনও চাপ নেই, জানাল নির্বাচন কমিশন

Achal Kumar Joti, India's Chief Election Commissioner

Achal Kumar Joti, India's Chief Election Commissioner

গুজরাত নির্বাচনের দিন ঘোষণা নিয়ে কেন্দ্রের তরফে কোনও চাপ নেই, জানাল নির্বাচন কমিশন

  • Share this:

     #নয়াদিল্লি: হিমাচল প্রদেশের বিধানসভা ভোটের দিন ঘোষণা হয়ে গেলেও গুজরাত নির্বাচনের দিনক্ষণ নিয়ে এখনও কিছুই জানায়নি কমিশন ৷ এই ইস্যুতে উত্তাল রাজনৈতিক মহল ৷ বিরোধীদের অভিযোগে বিদ্ধ কমিশন স্পষ্টভাবে এদিন জানাল, গুজরাতে নির্বাচন নিয়ে মোদি সরকারের তরফে কোনও চাপ সৃষ্টি করা হয়নি ৷ দেশের সর্বোচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ইলেকশন বডি সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে কাজ করে ৷

    মুখ্য নির্বাচনী অফিসার আঁচল কুমার জ্যোতি বিরোধীদের তোলা অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে এদিন বলেন, সমস্ত রাজনৈতিক দলের কাছেই সমান সুযোগ রয়েছে ৷ নির্বাচন কমিশন কোনও দলকেই জনসভা করতে নিষেধ করেনি বা কারোর উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি ৷ কমিশন কোনও দলকেই কোনও বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে না ৷

    উদাহরণ স্বরূপ তিনি বলেন, রবিবারই নির্বাচনী প্রচারে গুজরাতে জনসভা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ সোমবার সে রাজ্যে ছিল রাহুল গান্ধির জনসভা ৷

    গুজরাতে প্রচারে গিয়ে জনসভা থেকেই নরেন্দ্র মোদির সরকারি প্রকল্পের ঘোষণা থেকেই শুরু হয় বিতর্ক ৷ এই বিরোধীরা অভিযোগ করেন, ভোটারদের প্রভাবিত করতেই দলীয় জনসভা থেকে সরকারি প্রকল্পের এমন ঘোষণা ৷ একইসঙ্গে নির্বাচন কমিশনের নীরবতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন বিরোধীরা ৷

    প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম কমিশন ও মোদীকে আক্রমণ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর সভা শেষ হলে ভোটের দিন ধার্য করার অধিকার তাঁকেই দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। গুজরাত সরকার যাবতীয় ছাড় ও প্রকল্পের ঘোষণা করার পরেই ভোটের দিন স্থির করবে কমিশন।’

    বিরোধীদের এই আক্রমণের জবাবেই এদিন মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক বলেন,

    ‘নিবার্চন কমিশন কোনও রাজনৈতিক দলের অধীন নয় ৷ বিরোধীরা এমনভাবে প্রশ্ন করছেন যেন আমরা তাদের প্রচারে বাধা দিয়েছি ৷ প্রত্যেক দলই ভোটের আগে বহু প্রতিশ্রুতি দেয় ৷ সব দলের কাছেই প্রচারের সমান সুযোগ রয়েছে ৷’

    তবে আঁচল কুমার জ্যোতি এও জানিয়েছেন, গুজরাতে নির্বাচনের দিন ঘোষণা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সঙ্গে আলোচনা ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে ৷ ভোট চলাকালীন নিরাপত্তা জোরদার করতে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়ন নিয়ে কমিশন আলোচনা চালাচ্ছে ৷ একইসঙ্গে নির্বাচনকে সফল করতে তৈরি করা হচ্ছে কর্মীদের ডেটাবেস ৷ গুজরাতে ভোট চলাকালীন ৫০, ১২৮ টি পোলিং স্টেশনে দায়িত্বে থাকবেন প্রায় ২.৫ লক্ষ সরকারি কর্মচারী ৷ গুজরাত ভোটেই এযাবৎকালের সব থেকে বেশি ভিভিপ্যাটসের ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছে কমিশন ৷

    First published: