corona virus btn
corona virus btn
Loading

#PulwamaAttack: বিস্ফোরণে বোঝাই গাড়িটি কেনা হয়েছিল মাত্র ১০ দিন আগে, খোঁজ পাওয়া গেল মালিকেরও

#PulwamaAttack: বিস্ফোরণে বোঝাই গাড়িটি কেনা হয়েছিল মাত্র ১০ দিন আগে, খোঁজ পাওয়া গেল মালিকেরও
File photo of Sajjad Bhatt.
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: যতদিন যাচ্ছে তদন্তকারী অফিসারদের সামনে উঠে একের পর এক তথ্য ৷ কীভাবে সাজানো হয়েছিল গোটা হামলার ছক, কারাই বা ছিল মাস্টার মাইন্ড ? ১৪ ফেব্রুয়ারির রাত ৷ প্রেমের দিনটাই এ দেশে এসেছিল হাহাকার আর বুক ফাটা যন্ত্রণার দিন হয়ে ৷ CRPF-র কনভয়ে বোমা বিস্ফোরণে ছিন্নভিন্ন হয়ে গিয়েছিলেন ৪২টি তরতাজা প্রাণ ৷ বেসরকারি হিসেব বলছে সংখ্যাটা আরও বেশি ৷ অনেক জওয়ানের দেহ এতটাই ছিন্নভিন্ন হয়েছিল যে শনাক্তই করা যায়নি তাঁদের ৷ পুলওয়ামা হামলার তদন্তভার গ্রহণ করেছে NIA বা ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি ৷ সম্প্রতি ঘাতক সেই মারুতি ইকো গাড়িটিকে শনাক্ত করেছে জাতীয় তদন্তকারী দল ৷ জানা গিয়েছে, ওই ইকো গাড়িটি কেনা হয়েছিল হামলার মাত্র ১০ দিন আগে ৷ গাড়ির মালিকের নাম সাজিদ ভাট ৷ মহম্মহ মকবুল ভাটের ছেলে এই সাজিদ অনন্তনাগের বীজবেহারা জেলার বাসিন্দা ৷

NIA মুখপাত্র জানিয়েছেন, সোপিয়ানে সিরাজ-উল-উলম-এর ছাত্র সাজিদ ৷ পুলওয়ামার পর ২৩ ফেব্রুয়ারি সাজিদের বাড়িতেই তল্লাশি অভিযানে নেমেছিল ভারতীয় সেনা ৷ তবে সে সময় বাড়িতে ছিলেন না সাজিদ ৷ সূত্রের খবর, সম্প্রতি জইশ-ই-মহম্মদে যোগ দিয়েছেন সাজিদ ৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর অস্ত্র হাতে ছবিও পোস্ট করা হয়েছে ৷ জাতীয় তদন্তকারী আধিকারিকরা জানাচ্ছেন, বিপুল পরিমাণে বিস্ফোরণ বয়ে আনা গাড়িটি আসলে মহম্মদ জালিল আহমেদ হাকানির ৷ জালিল অনন্তনাগের হেভেন কলোনির বাসিন্দা ৷ ২০১১ সালে হাকানির থেকে হাবদল হয়েছিল গাড়িটির ৷ গত ৮ বছরে সাতবার হস্তান্তিরিত হয়েছে সেটি ৷ অবশেষে ৪ ফেব্রুয়ারি গাড়িটির সাজিদের হাতে পৌঁছয় ৷ গাড়ির একটি মেটাল প্লেট আর ইঞ্জিনের নম্বর থেকে সেটি শনাক্ত করে তদন্তকারী দল ৷ এরপরেই যোগসূত্র ধরে গাড়ির মালিকের কাছে পৌঁছয় সেনা ৷ NIA-র অনুমান, গাড়িটির মধ্যে একটি জরিকেনে করে ১৫-২০ কেজি RDX আনা হয়েছিল ৷

First published: February 26, 2019, 11:27 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर