মাওবাদীরা বিভিন্ন গ্যাং তৈরি করে ফেললেই রক্তবন্যা! ছত্তীসগড়ে শান্তি স্থাপনের শেষ চেষ্টা

File Image

এই জনমত সমীক্ষা শান্তি ফেরাতে শেষ মরিয়া চেষ্টা৷ ছত্তীসগড়ে আদিবাসীরা ৭৪৭৭২৮৮৪৪৪ নম্বরে ব্যাপক ফোন করছেন৷ উত্‍সাহের সঙ্গে নিজেদের মত দিচ্ছেন৷

  • Share this:

    SUHAS MUNSHI

    'যতদিন না সিপিআই (মাওবাদী) তাদের নিজেদের কম্যান্ডরদের দ্বারা আফগানিস্তানের মতো বিভিন্ন গ্যাং তৈরি করে ফেলছে, ততদিন আমাদের হাতে মাত্র ৫ বছর সময় আছে ৷' কথাগুলি বেশ জরুরি ভিত্তিতে বললেন শুভ্রাংশু চৌধুরী৷ ব্রিটেনের দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকায় দীর্ঘদিন সাংবাদিকতা করে তারপর বিবিসি সাউথ এশিয়া ব্যুরোর রেডিও প্রোডিউসার৷ গত ৩ বছর ধরে তিনি কেন্দ্রীয় বাহিনী ও মাওবাদীদের মধ্যে হিংসায় বিধ্বস্ত আদিবাসী মানুষদের জন্য কাজ করছেন৷ নিউ পিস প্রসেস (NPP)-এর আহ্বায়ক৷

    সম্প্রতি গোন্ডি, হালবি ও হিন্দি ভাষায় একটি জনমত সমীক্ষা শুরু করেছেন শুভ্রাংশু৷ কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী ও মাওবাদীদের মধ্যে দিনের পর দিন হিংসার ঘটনা কী ভাবে বন্ধ করা যায়, তার জনমত নেওয়া হচ্ছে আদিবাসীদের থেকে৷

    শুভ্রাংশুর কথায়, 'শীর্ষস্থানীয় মাও নেতারা আগামী  ৫ বছরের মধ্যে যে কোনও সময় মারা যেতে পারেন৷ তারপরে গোটা সংগঠনটি চলে যাবে স্থানীয় কম্যান্ডরদের হাতে৷ যেহেতু তারাই এই রাজনৈতিক নেতৃত্বের দ্বিতীয় ধাপ৷ যেমন আমরা ঝাড়খণ্ড বা আফগানিস্তানে দেখেছি৷ জঙ্গিদের নিজেদের মধ্যেই গ্যাং-ওয়ার৷ ওই অবস্থা শুরু হলে রক্তের বন্যা বইবে৷ আমরা যে কোনও ভাবে ওই গ্যাং-ওয়ার রুখতে চাইছি৷ হিংসা থামাতে চাইছি৷'

    এই জনমত সমীক্ষা শান্তি ফেরাতে শেষ মরিয়া চেষ্টা৷ ছত্তীসগড়ে আদিবাসীরা ৭৪৭৭২৮৮৪৪৪ নম্বরে ব্যাপক ফোন করছেন৷ উত্‍সাহের সঙ্গে নিজেদের মত দিচ্ছেন৷ নিজেদের ভাষায়৷ এই দীর্ঘ দিনের হিংসা কি আলোচনায় মেটানো সম্ভব, নাকি মিলিটারিই ভরসা? ফোন করে নিজেদের মত দিচ্ছেন তাঁরা৷ এই ফোন নম্বর ৩ অক্টোবর পর্যন্ত চালু থাকবে৷ গান্ধি জয়ন্তীতে NPP ই-র‌্যালিতে জনমত সমীক্ষার রেজাল্ট বের করা হবে৷

    শুভ্রাংশু বললেন, 'আমরা একটি ধারাবাহিক আলোচনারও প্রস্তুতি নিচ্ছি, যার নাম চায়কলে মাণ্ডি৷ গোন্ডি ভাষায় যার অর্থ, শান্তি ও সুখের জন্য বৈঠক৷ ওই বৈঠকে দু’তরফেরই হিংসা কবলিতদের ডাকা হবে৷ মধ্য ভারতে মাওবাদী হিংসা কী ভাবে বন্ধ করা যায়, তার সমাধান খোঁজা হবে৷' এই পদ্ধতিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় জাতিবিদ্বেষ মূলক হিংসা বন্ধ হয়েছিল ১৯৯৫ সালে, জানালেন তিনি৷

    ২ হাজার ৭০০ পুলিশকর্মী-সহ মোট ১২ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে মাওবাদী হিংসায় গত ২০ বছরে৷ ৫০ হাজারের বেশি মানুষ (মূলত আদিবাসী) ঘরছাড়া৷ 'রক্তবন্যা নিয়ে এখানে একটি অদ্ভূত স্তব্ধতা রয়েছে৷ আমরা সেই স্তব্ধতাকেই ভাঙার চেষ্টা করছি,' বললেন শুভ্রাংশু৷

    'আদিবাসীরা তাঁদের ভবিষ্যত্‍ কী ভাবে গড়তে চান? অনেক রক্ত ইতিমধ্যেই ঝরেছে৷ হিংসার বলি হচ্ছে দু’তরফেই৷ এখন আমাদের সামনে প্রশ্ন হল, শান্তিপূর্ণ ভাবে এই অবস্থা বন্ধ করা যায় না?'

    Published by:Arindam Gupta
    First published: