বায়ুসেনার নিখোঁজ বিমান AN32-এর যাত্রী এখনও সক্রিয় মেসেঞ্জারে

বায়ুসেনার নিখোঁজ বিমান AN32-কে ঘিরে ঘনীভূত রহস্য ৷ নিরুদ্দেশ হওয়ার আটদিন পরেও বিমানটিকে নিয়ে কোনও সূত্র পায়নি প্রতিরক্ষা দপ্তর ৷

বায়ুসেনার নিখোঁজ বিমান AN32-কে ঘিরে ঘনীভূত রহস্য ৷ নিরুদ্দেশ হওয়ার আটদিন পরেও বিমানটিকে নিয়ে কোনও সূত্র পায়নি প্রতিরক্ষা দপ্তর ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বায়ুসেনার নিখোঁজ বিমান AN32-কে ঘিরে ঘনীভূত রহস্য ৷ নিরুদ্দেশ হওয়ার আটদিন পরেও বিমানটিকে নিয়ে কোনও সূত্র পায়নি প্রতিরক্ষা দপ্তর ৷ এদিকে নিখোঁজ বিমানটিতে থাকা এক বিমানকর্মীর ফোন নিয়ে উঠে এল এক চাঞ্চল্যকর তথ্য ৷

    নিখোঁজ এয়ারম্যানের পরিবারের দাবি, এখনও চালু রয়েছে ওই বিমানকর্মীর ফোন ৷ এমন দাবিতে নতুন করে তৈরি হয়েছে জল্পনা ৷ বিমানটি হারিয়ে যাওয়ার পিছনে কোনও ষড়যন্ত্র বা অন্তর্ঘাতের আশঙ্কা এর আগে ভারতীয় গোয়েন্দারা উড়িয়ে দিলেও শনিবার পাওয়া একটি তথ্য নতুন করে বিষয়টি নিয়ে ভাবাচ্ছে ৷

    গত ২২ জুলাই থেকে নিখোঁজ বিমান। অথচ, AN 32 বিমানের এয়ারম্যান রঘুবীর ভার্মার ফোনে এখনও রিং হচ্ছে। চ্যাট অ্যাপ মেসেঞ্জারে লাস্ট সিন দেখাচ্ছে ২৬ জুলাই। বিমান নিখোঁজের পরও কিভাবে এটা সম্ভব ? মিরাকলের আশায় রঘুবীরের পরিবার। তাঁর পরিবার দাবি জানিয়েছে, এয়ারম্যান রঘুবীর বর্মার ফোন এখনও চালু রয়েছে ৷ ফোন করলে রিং হচ্ছে কিন্তু ফোনটি কেউ রিসিভ করছে না ৷ এই সব তথ্য দেওয়া হয়েছে বায়ুসেনাকে। এদিকে, নিখোঁজ বিমানের খোঁজে মার্কিন স্যাটেলাইটের সাহায্য চেয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

    raghubir_verma2

    বায়ুসেনা থেকে নৌসেনা, ইসরো....নিখোঁজ বিমানের খোঁজে সবরকম চেষ্টাই চালাচ্ছে প্রতিরক্ষামন্ত্রক। কিন্তু, এখনও AN 32 বিমানের খোঁজ অধরাই। এরমধ্যে ওই বিমানের এয়ারম্যান, রঘুবীর ভার্মার বাবা লক্ষ্মীচন্দ ভার্মা জানান, ‘রঘুবীরের মা সুনীতা প্রথমে বলেছিলেন, ছেলের ফোনে রিং হচ্ছে। আমরা ভেবেছিলাম মানসিক অবসাদ থেকে ও এসব ভাবছে। কিন্তু, পরে দেখলাম, নিখোঁজ হওয়ার পর রঘুবীরের ফোন বন্ধ থাকলেও, এখন ফোনে সত্যিই রিং হচ্ছে। ’

    এমনকী তাঁরা এটাও জানিয়েছেন, গত ২৬ জুলাই অবধি মেসেঞ্জার অ্যাপ সক্রিয় ছিয় ৷ অথচ বিমানটির খোঁজ নেই ২২ জুলাই থেকেই ৷ এই তথ্যের ভিত্তিতেই ছেলের ঘরে ফেরার একপ্রকার মিরাকল সম্ভাবনাই এখন সম্বল ভার্মা পরিবারের। নিখোঁজ বিমানকর্মী রঘুবীর বর্মার পরিবার পোর্ট ব্লেয়ারে IAF কর্তৃপক্ষকে এই তথ্য দিয়েছে ৷ নিখোঁজ বিমানকর্মীর পরিবারের এই দাবি খতিয়ে দেখছে তদন্তকারীরা ৷

    রাজস্থানে এয়ারবেসে কাজ করতেন রঘুবীর বর্মা ৷ তাম্বারাম থেকে বিমানে রওনা হওয়ার আগেও পরিবারের সঙ্গে তাঁর কথা হয় ৷ ২২ জুলাই চেন্নাইয়ের তাম্বারাম থেকে পোর্ট ব্লেয়ার যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়ে যায় বায়ুসেনার এএন-৩২ বিমানটি ৷ ওই বিমানেই ২৯ জন যাত্রী ও ৬ জন বিমানকর্মীর সঙ্গে সওয়ার ছিলেন এয়ারম্যান রঘুবীর বর্মা ৷

    First published: