এই সপ্তাহে দেশে নতুন করে আক্রান্ত ৮৭,০০০! ভারত কি করোনার দ্বিতীয় স্রোতের সামনে দাঁড়িয়ে

এই সপ্তাহে দেশে নতুন করে আক্রান্ত ৮৭,০০০! ভারত কি করোনার দ্বিতীয় স্রোতের সামনে দাঁড়িয়ে

প্রতীকী ছবি৷ Photo-PTI

গত সাত দিনে ফের ৮৭ হাজার মানুষের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে এসেছে। আরও চিন্তার বিষয় হল, রবিবারের রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪,২৬৪ জন।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: আবার বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। তাই ইতিমধ্যেই ফের ঘরবন্দি হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে দেশে। গত সাত দিনে ফের ৮৭ হাজার মানুষের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে এসেছে। আরও চিন্তার বিষয় হল, রবিবারের রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪,২৬৪ জন।

    সরকারের তৈরি করা করোনা স্বাস্থ্যবিধি শিথীল হওয়ায় এবং মানুষের মধ্যে মাস্ক ব্যবহার করার প্রবণতা কমে যাওয়ার পরেই এক ধাক্কায় আবার বেড়েছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। তাই ফের করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে সরকার পক্ষ থেকে রাজ্যগুলিকে স্বাস্থ্যবিধি আরও কড়া করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

    গত ২৯ জানুয়ারিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৮,৮৫৫। তার পরে আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই কমে যায়। ধরে নেওয়া হয় করোনা মহামারী অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনা গিয়েছে। কিন্তু গত সাতদিনে ফের তিন রাজ্যে বাড়তে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ। বিশেষজ্ঞদের মতে করোনা ঠেকাতে স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে মানুষের সচেতনতা কমে যাওয়ার পরেই এই গ্রাফ আবার উর্ধ্বমুখী।

    গত মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মহারাষ্ট্র ও কেরলে আক্রান্তের সংখ্যা এই কদিনে ক্রমশ বেড়েছে। প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে বলে মহারাষ্ট্রের বেশ কিছু এলাকায় লকডাউন হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। শনিবার শুধু মহারাষ্ট্রেই দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ায় ৬১১২-য়।

    করোনা শৃঙ্খল ভাঙতে সুরক্ষা ও স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখা কতটা জরুরি সেই ব্যাপারে নাগরিকদের ফের সতর্ক করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক। সম্প্রতি ভারতে করোনারই দুটি নতুন স্ট্রেইন পাওয়ার পরেই ফের আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। তবে এই দুই স্ট্রেইনের ক্ষেত্রে করোনা ভ্যাকসিন কতটা কার্যকরী হবে সেই বিষয়ে চিন্তায় রয়েছেন বিজ্ঞানীরা। কার্যকরী না হলে পুনরায় সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

    এই নতুন স্ট্রেনগুলি আরও দ্রুত ছড়ায়। এখন থেকেই সাবধান করছেন বিশেষজ্ঞরা। ন্ত্রক বলেছে যে কেরল, মহারাষ্ট্র, পঞ্জাব, ছত্তিশগড় এবং মধ্য প্রদেশে কোভিড -১৯ এর নতুন কেস বেড়েছে। মন্ত্রক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে ছত্তিশগড়ে গত সাত দিনে ভাইরাস সংক্রমণের প্রতিদিনের ঘটনা বেড়েছে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: