corona virus btn
corona virus btn
Loading

সরকারি কোভিড হাসপাতাল ফাঁকা, বেসরকারিতে উপচে পড়ছে রোগী, দিল্লিতে আজব ছবি

সরকারি কোভিড হাসপাতাল ফাঁকা, বেসরকারিতে উপচে পড়ছে রোগী, দিল্লিতে আজব ছবি

গণস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সরকারি হাসপাতালের সঙ্গে যে একটি খারাপ ইমেজ জড়িয়ে আছে, হাসপাতাল এড়িয়ে যাওয়ার কারণ এটি।

  • Share this:

#‌নয়াদিল্লি:‌ ক’‌দিন আগেই অভিযোগ উঠেছিল দিল্লিতে করোনা আক্রান্তরা বেড পাচ্ছেন না, চিকিৎসা পাচ্ছেন না। কিন্তু দিল্লির সরকারি অ্যাপ এক্কেবারে উল্টো কথা বলছে। সেখানে বলা হচ্ছে দিল্লির সরকারি কোভিড হাসপাতালের ৭০ শতাংশ বেডই ফাঁকা। এদিকে বেসরকারি হাসপাতালে উপচে পড়ছে রোগী। সেখানে ভর্তি হওয়ার যেন কোনও সুযোগই নেই। দিল্লি করোনা অ্যাপে পাওয়া সাম্প্রতিক তথ্য অনুসারে দেখা যাচ্ছে, সরকার পরিচালিত প্রায় ৩ হাজার বেড এখনও ফাঁকা রয়েছে। যেখানে সরকারি কোভিড হাসপাতালে ভর্তি হতে পারেন ৪৩৪৪ জন।

ক’‌দিন আগেই করোনা আক্রান্ত পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল, আক্রান্ত চিকিৎসা পাচ্ছেন না, হাসপাতালে ভর্তি হতে পারছেন না। এদিকে হাসপাতালের বেড তো ফাঁকা, তাহলে কেন ভর্তি হতে পারছেন না আক্রান্ত?‌ গণস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সরকারি হাসপাতালের সঙ্গে যে একটি খারাপ ইমেজ জড়িয়ে আছে, হাসপাতাল এড়িয়ে যাওয়ার কারণ এটি।

রাজীব গান্ধী সুপার স্পেশালিটি হসপিটালের চিকিৎসক জানিয়েছেন, ‘‌আমরা শুধু মারাত্মক করোনা আক্রান্ত রোগী ছাড়া আর কাউকে হাসপাতালে ভর্তি করছি না। বেডের সংখ্যা এখন হাতে রাখা হচ্ছে। যাঁদের শরীরে উপসর্গ সামান্য, তাঁদের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে অথবা তাঁদের কোভিড সেন্টারে চিকিৎসা করা হচ্ছে। হাসপাতালের বেড শুধুমাত্র আশঙ্কাজনক রোগীদের জন্যই রাখা হচ্ছে। তিনি এও জানিয়েছেন, কোভিড বেডের সংখ্যা অনুসারে বেসরকারি হাসপাতাল মোটামুটি পূর্ণ হয়ে গিয়েছে।

আইনজীবী ও গণস্বাস্থ্য অধিকার কর্মী অশোক আগরওয়াল বলেছেন, এর একমাত্র কারণ, এখনও সাধারণ মানুষ সরকারি ব্যবস্থাকে ভরসা করতে পারেন না। তাঁরা বেসরকারি হাসপাতালে ওয়েটিং লিস্টে থাকতে রাজি কিন্তু সরকারি হাসপাতালের ফাঁকা বেডে ভর্তি হতে চান না।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: June 11, 2020, 10:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर