corona virus btn
corona virus btn
Loading

অনলাইন শিক্ষা দেশের বড় অংশের পড়ুয়ার কাছে 'বোঝা', চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট NCERT-র সমীক্ষায়

অনলাইন শিক্ষা দেশের বড় অংশের পড়ুয়ার কাছে 'বোঝা', চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট NCERT-র সমীক্ষায়
Representative Image (AFP)

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, লকডাউন চলাকালীন ও আনলক প্রক্রিয়া শুরুর পরে দেশের ৫০ শতাংশ পড়ুয়া সমস্যার সম্মুখীন৷ ২০ থেকে ৩০ শতাংশ পড়ুয়া জানিয়েছে, খুব খারাপ অভিজ্ঞতা তাদের৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জেরে বিশ্বজুড়ে অনলাইনে পড়াশোনা চলছে৷ ভারতেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি অনলাইনে ক্লাস করানোর উপরে জোর দিচ্ছে৷ কিন্তু ভারতে কি আদৌ সব ছাত্র-ছাত্রী অনলাইনে পড়াশোনা করতে পারছে? উত্তরটা হল, একেবারেই না৷ দেশের একটি বড় অংশের পড়ুয়াই অনলাইনে ক্লাসের সুবিধা থেকে বঞ্চিত৷ তার উদাহরণ হল, NCERT-র সার্ভে রিপোর্ট৷ রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, দেশের ২৭ শতাংশ পড়ুয়ার অনলাইনে পড়াশোনা করার মতো ডিভাইস-ই (স্মার্টফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট ইত্যাদি) নেই৷ বিদ্যুত না থাকায় পড়াশোনা করতে পারছে না ২৮ শতাংশ পড়ুয়া৷

অনলাইন শিক্ষায় পড়ুয়ারা কী ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে, তা জানতে সম্প্রতি NCERT-কে একটি কমিটি গড়ে দেশজুড়ে সমীক্ষা চালাতে নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রক৷ সেই সমীক্ষার রিপোর্টে উঠে এল অন্ধকার দিকটি৷ শিক্ষক-পড়ুয়ার সময়ের বোঝাপড়া, ডিভাইসের অভাব, বাড়িতে পড়াশোনার জন্য সাহায্য না পাওয়া, বিদ্যুত্‍ না থাকা-- ইত্যাদি নানা তথ্য উঠে এসেছে সমীক্ষায়৷ যার নির্যাস, স্কুল বন্ধ থাকায় বহু পড়ুয়া শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে দিনের পর দিন৷

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, লকডাউন চলাকালীন ও আনলক প্রক্রিয়া শুরুর পরে দেশের ৫০ শতাংশ পড়ুয়া সমস্যার সম্মুখীন৷ ২০ থেকে ৩০ শতাংশ পড়ুয়া জানিয়েছে, খুব খারাপ অভিজ্ঞতা তাদের৷ ১০ থেকে ২০ শতাংশ পড়ুয়া স্পষ্ট বলে দিয়েছে, এই ভাবে পড়াশোনা তাদের কাছে বোঝা হয়ে গিয়েছে৷ সমীক্ষা রিপোর্ট অনুযায়ী, 'খারাপ ইন্টারনেট ও নেটওয়ার্কের সমস্যা চরম৷ মোবাইল ফোনে অনলাইন ক্লাস করা খুবই কঠিন৷' যাদের কাছে ডিভাইস রয়েছে, তারা অনেকেই জানে না, অনলাইন শিক্ষার জন্য ডিভাইসটি কী ভাবে ব্যবহার করবে৷ বহু শিক্ষক-শিক্ষিকা অনলাইন ক্লাস নেওয়ার পদ্ধতি জানেন না বলে উঠে এসেছে সমীক্ষায়৷

অর্ধেক ছাত্র-ছাত্রীর সাধারণ অভিযোগ, তারা হার্ড কপি টেক্সট বই পড়ে অভ্যস্ত৷ e-textbook সম্পর্কে কোনও ধারণা নেই৷ যদিও NCERT-র ওয়েবসাইট DIKSHA-য় e-textbook রয়েছে৷

সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ (পড়ুয়া, শিক্ষক, মা-বাবা, স্কুল প্রিন্সিপাল মিলিয়ে) জানিয়েছে, লকডাউনের সময় অনলাইন শিক্ষা তারা উপভোগ করেছেন৷ তারা খুশি৷

Published by: Arindam Gupta
First published: August 20, 2020, 3:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर