corona virus btn
corona virus btn
Loading

জম্মু-কাশ্মীরে কেন বাতিল ৩৭০ ধারা? ব্যাখ্যা দিলেন মোদি

জম্মু-কাশ্মীরে কেন বাতিল ৩৭০ ধারা? ব্যাখ্যা দিলেন মোদি
photo: Narendra Modi

যে আইনে দেশের অন্য রাজ্যের মানুষ সুফল ভোগ করতেন, তা থেকে বঞ্চিত হত জম্মু-কাশ্মীর৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ৩৭০ ধারা বাতিলের পর প্রথমবার মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী। জাতির উদ্দেশে ভাষণে বোঝানোর চেষ্টা করলেন, কেন তিনশো সত্তর ধারা বাতিল করা হয়েছে। এতে উপত্যকাবাসীর কী কী লাভ, তার খতিয়ান তুলে ধরে জম্মু-কাশ্মীরের মন জয়েরও চেষ্টা করলেন নরেন্দ্র মোদি। নিশানা করলেন পাকিস্তানকেও।

৩৭০ ধারা বাতিল এবং ভূস্বর্গ ভাগ করে দুই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল। জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে মোদি সরকারের এই পদক্ষেপে বিশ্বের নজর কেড়েছে। এই পরিস্থিতি বৃহস্পতিবার আসরে নামলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী। নিশানা করলেন পাকিস্তানকেও। মোদির বক্তব্য, শ্যামাপ্রসাদ এবং কোটি মানুষ যে স্বপ্ন দেখেছিলেন তা সফল হল৷ জম্মু-কাশ্মীরে নতুন যুগের শুরু৷ কেউ বলতে পারতেন না ৩৭০-এর জন্য কী লাভ হয়েছে। ৩৭০ ও ৩৫-এ সন্ত্রাসবাদ, পরিবারতন্ত্র ও দুর্নীতির জন্ম দিয়েছে। ৩৭০কে ব্যবহার করছিল পাকিস্তান। ৪২ হাজার নির্দোষের মৃত্যু হয়েছে। উন্নয়ন হয়নি৷ জাতির উদ্দেশে ভাষণে জম্মু-কাশ্মীরবাসীর আস্থা অর্জনের চেষ্টা করেন নরেন্দ্র মোদি। বোঝানোর চেষ্টা করেন কেন ৩৭০ ধারা বাতিলের সিদ্ধান্ত? প্রধানমন্ত্রীর বার্তা, দেশের বাকি অংশের মানুষ যে সব সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পান এবার থেকে জম্মু-কাশ্মীরের বাসিন্দারাও তাই পাবেন। যে আইনে দেশের অন্য রাজ্যের মানুষ সুফল ভোগ করতেন, তা থেকে বঞ্চিত হত জম্মু-কাশ্মীর৷ শিশু ও নারীরা সুবিধা পেতেন না৷ সাফাইকর্মীরা পেতেন না৷
জম্মু-কাশ্মীরে দ্রুত নিয়োগ শুরু হবে সেনা-আধাসেনাতেও নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হবে অন্যান্য কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মতোই সুযোগ-সুবিধা পাবেন জম্মু-কাশ্মীরের সরকারি কর্মী ও পুলিশ কর্মীরা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলি কর্মসংস্থান তৈরিতে জোর দেবে বড় বেসরকারি সংস্থাগুলিকেও এ নিয়ে আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী তিনি জানান, জম্মু-কাশ্মীরের পড়ুয়ারা এবার প্রধানমন্ত্রী স্কলারশিপ যোজনার সুফল পাবেন

বিপুল রাজস্ব ঘাটতি থাকা সত্ত্বেও তার প্রভাব যাতে উন্নয়নের কাজে না পড়ে সেটাও নিশ্চিত করা হবে বলে ঘোষণা করেন মোদি৷উপত্যকার মানুষের হাতে কাজ তুলে দেওয়া যে তাঁর সরকারের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য, নরেন্দ্র মোদি এ দিন বারবারই তা বুঝিয়ে দেন । বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে বড় টুরিস্ট ডেসটিনেশন হওয়ার ক্ষমতা রয়েছে জম্মু-কাশ্মীরের। বলিউড, তামিল ও তেলুগু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বলব এ দিকে নজর দিতে। আইটি সেক্টরকেও বলব এখানে বিনিয়োগ করতে। খেলাধুলাতেও কাশ্মীর এগোবে। নতুন স্পোর্টস অ্যাকাডেমি, স্টেডিয়াম, ও বিজ্ঞানসম্মত ভাবে প্রসিক্ষণ হলে খেলাধুলায় আরও উন্নতি হবে৷

৩৭০ ধারা বাতিল নিয়ে হাজারো বিতর্ক। এর বিরোধিতায় সরব কংগ্রেস। প্রধানমন্ত্রীর অবশ্য দাবি, বৈষম্যের পাঁচিলটা এত বছরে ভাঙল। এবার উন্নয়নের পথে হাঁটবে জম্মু-কাশ্মীর।

First published: August 9, 2019, 4:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर