বাংলার কৃষকদের বঞ্চনার অভিযোগ, মমতার সঙ্গে বামেদেরও তীব্র আক্রমণ মোদির

বাংলার কৃষকদের বঞ্চনার অভিযোগ, মমতার সঙ্গে বামেদেরও তীব্র আক্রমণ মোদির

প্রধানমন্ত্রীর নিশানায় রাজ্য় সরকার৷

  • Share this:

    #দিল্লি: বাংলার ৭০ লক্ষ কৃষক বছরে ৬ হাজার টাকার কেন্দ্রীয় সাহায্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন৷ রাজনৈতিক কারণেই কৃষকদের এই সুবিধে থেকে বঞ্চিত করছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার৷ কৃষকদের সরাসরি বার্তা দিতে গিয়ে এভাবেই রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ একই সঙ্গে রাজ্যে এই নিয়ে আন্দোলন না করার জন্যও বামেদেরও তীব্র সমালোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ অভিযোগ করে বলেছেন, রাজ্যে ঝগড়া করলেও দিল্লিতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের সঙ্গেই হাত মিলিয়ে কৃষকদের ভুল বোঝাচ্ছে বামেরা৷

    অটল বিহারী বাজপেয়ীর জন্মদিনে প্রধানমন্ত্রী কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্পে দ্বিতীয় কিস্তির ১৮ হাজার কোটি টাকা প্রদানের সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ প্রায় ৯ কোটি কৃষক এর ফলে উপকৃত হবেন৷ দেশের বিভিন্ন প্রান্তের কৃষকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সরাসরি কথাও বলেন তিনি৷ কৃষকরা কীভাবে নতুন কৃষি আইনের সুফল পাচ্ছেন, সরকার কীভাবে কৃষকদের পাশে রয়েছে, তা তুলে ধরাই ছিল এই আলাপচারিতার মূল উদ্দেশ্য৷

    এর পরেই কৃষকদের উদ্দেশে বার্তা দিতে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গের প্রসঙ্গ তোলেন প্রধানমন্ত্রী৷ অভিযোগ করেন, একমাত্র পশ্চিমবঙ্গ সরকারই রাজ্যের সত্তর লক্ষ কৃষককে এই সুবিধে থেকে বঞ্চিত করছে৷ ক্ষোভের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'রাজ্য সরকারকে এক পয়সাও দিতে হবে না৷ পুরোটা কেন্দ্র দেবে৷ কিন্তু শুধুমাত্র রাজনৈতিক কারণে পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজি হচ্ছে না৷ বাংলার অনেক কৃষক এই সাহায্য চেয়ে সরাসরি ভারত সরকারকে চিঠিও লিখেছেন৷ বাংলার লক্ষ লক্ষ কৃষক অনলাইনে এই সাহায্য়ের জন্য় আবেদন করেছেন৷ তার পরেও রাজ্য সরকার এই প্রকল্প আটকে রেখেছে৷'

    এই প্রসঙ্গেই বামেদেরও আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, 'যাঁরা তিরিশ বছর ধরে বাংলায় রাজত্ব করলেন, নিজেদের রাজনৈতিক মতাদর্শের কারণে ধ্বংস করলেন, তাঁরাই আজকে কৃষকদের প্রতি সহানুভূতি দেখাচ্ছেন৷ মমতাজির ১৫ বছর পুরোন ভাষণ শুনলে বুঝতে পারবেন কীভাবে এরা বাংলাকে বরবাদ করেছে৷ এতই যদি কৃষকদের জন্য দরদ তাহলে বাংলায় যাতে কৃষকরা কেন্দ্রের পাঠানো টাকা পায়, তার জন্য আন্দোলন করছেন না কেন?'

    বামেদের নিশানা করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, 'বাংলা থেকে এখন পঞ্জাবে উড়ে গিয়ে কৃষকদের আপনারা ভুল বোঝাচ্ছেন৷ মান্ডি- এপিএমসি নিয়ে বড় বড় ভাষণ দিচ্ছেন৷ অথচ কেরলে এপিএমসি- মান্ডির ব্যবস্থা নেই৷ তাহলে ওখানে আন্দোলন করে মান্ডি- এপিএমসি চালু চালু করুন৷ দু' মুখো নীতি নিয়ে কেন রাজনীতি করছেন? খালি মিথ্যে, গুজব ছড়িয়ে কৃষকদের ভয় পাইয়ে দিচ্ছেন৷ '

    কৃষকদের ভুল বোঝানোর জন্য এ দিনও নাম না করে কংগ্রেস সহ বিরোধীদের কাঠগড়ায় তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ পাশাপাশি নতুন কৃষি আইনের কী কী সুবিধা, তাও বিস্তারিত ভাবে বুঝিয়েছেন তিনি৷ তবে আবারও মনে করিয়ে দিয়েছেন, কৃষকদের স্বার্থেই আলোচনার দরজা সব সময় খুলে রেখেছে তাঁর সরকার৷

    এ দিনের অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা ছিল কেন্দ্রীয় সরকারই৷ ফলে সরকারি মঞ্চ থেকেই এবার সরাসরি রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করে বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাংলার কৃষকদের মন জয়ের চেষ্টা করলেন প্রধানমন্ত্রী৷ একই বন্ধনীতে বামেদের বসিয়েও এক তিরে দুই পাখি মারার চেষ্টা করলেন নরেন্দ্র মোদি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর