কোভিডে মৃত হিন্দু বন্ধুর অন্তিম সংস্কারের জন্য ৪০০ কিমি পথ পাড়ি দিলেন মুসলিম ব্যক্তি, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য ছবি উত্তরপ্রদেশে

কোভিডে মৃত হিন্দু বন্ধুর অন্তিম সংস্কারের জন্য ৪০০ কিমি পথ পাড়ি দিলেন মুসলিম ব্যক্তি, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য ছবি উত্তরপ্রদেশে

কোভিড ভাইরাসের মারণ কামড়ে জর্জরিত রাজ্যে সম্প্রীতির এক অনন্য নজির গড়লেন সিরাজ চৌধুরী (Siraz Chaudhury) নামে এক ব্যক্তি। কোভিডে মৃত তাঁর হিন্দু বন্ধুর অন্তিম সংস্কারের জন্য পাড়ি দিলেন ৪০০ কিলোমিটারেরও বেশি। একা হাতে জোগাড় করলেন আ্যাম্বুলেস থেকে চিতার কাঠ

কোভিড ভাইরাসের মারণ কামড়ে জর্জরিত রাজ্যে সম্প্রীতির এক অনন্য নজির গড়লেন সিরাজ চৌধুরী (Siraz Chaudhury) নামে এক ব্যক্তি। কোভিডে মৃত তাঁর হিন্দু বন্ধুর অন্তিম সংস্কারের জন্য পাড়ি দিলেন ৪০০ কিলোমিটারেরও বেশি। একা হাতে জোগাড় করলেন আ্যাম্বুলেস থেকে চিতার কাঠ

  • Share this:

    #লখনউ: ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশের রাজনৈতিক মসনদে বসে ভারতীয় জনতা পার্টি (BJP)। গোরখনাথ মঠের মহন্ত যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) মাথায় ওঠে মুখ্যমন্ত্রীর মুকুট। দীর্ঘ ছাব্বিশ বছর একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে মসনদে ফেরত আসে ভারতীয় জনতা পার্টির সরকার। সৌজন্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির Narendra Modi) রাজনৈতিক 'ইমেজ' ও যোগী আদিত্যনাথের সুশাসনের অঙ্গীকার। এর পর থেকেই আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশ একাধিকবার খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে। তবে সুশাসনের জন্য নয়। কখনও প্রবল সাম্প্রদায়িক অশান্তি তো কখনও মহিলাদের বিরুদ্ধে বাড়তে থাকা অপরাধের নিরিখে৷ কখনও মুসলমান মহল্লাগুলিতে জ্বলেছে আগুন, তো কখনও আঠেরো বছর বয়সীকে দলিত মেয়েকে নির্মম ভাবে ধর্ষণ করা হয়েছে। খবর করতে গেলে যোগী আদিত্যনাথের পুলিশের নির্মমতার শিকার হয়েছেন খোদ সাংবাদিকেরা৷

    দাঙ্গা বিধ্বস্ত সেই উত্তরপ্রদেশ ফের শিরোনামে উঠে এসেছে। তবে এবার আর দাঙ্গা বা অশান্তির জন্যে নয়। বরং কোভিড ভাইরাসের মারণ কামড়ে জর্জরিত রাজ্যে সম্প্রীতির এক অনন্য নজির গড়লেন সিরাজ চৌধুরী (Siraz Chaudhury) নামে এক ব্যক্তি। কোভিডে মৃত তাঁর হিন্দু বন্ধুর অন্তিম সংস্কারের জন্য পাড়ি দিলেন ৪০০ কিলোমিটারেরও বেশি। একা হাতে জোগাড় করলেন আ্যাম্বুলেস থেকে চিতার কাঠ। বন্ধুর মুখে আগুনটুকুর ব্যবস্থাও করলেন নিজে দাঁড়িয়ে থেকে। বিগত কয়েক বছরের সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বা অশান্তি কবলিত উত্তরপ্রদেশে যা যথেষ্ট আশার সঞ্চার করেছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

    দিন কয়েক আগেই কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা যান উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা হেম সিং (Hem Singh)। কোভিডেই আগে গত হয়েছেন, তার পরিবারের বাকি দুই সদস্য, হেম সিং এর স্ত্রী ও পুত্র৷ মৃত হেম সিংয়ের সৎকারের জন্য তার আত্মীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ করেন সিরাজ। কিন্তু কোভিড বিধ্বস্ত উত্তরপ্রদেশে মৃত হেম সিংয়ের দেহের দায়িত্ব নিতে চাননি কেউই। বাধ্য হয়েই চারশো কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে নিজেই সমস্ত দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন৷ সিরাজ। বন্ধুর অন্তিম সংস্কারের জন্য একটু একটু করে পয়সা জমা করেন। ঠাণ্ডা মাথায় সমস্ত কাজ নির্বিঘ্নে সমাধান করেন সিরাজ। এ প্রসঙ্গে তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে মধ্যবয়সের সিরাজ বলেন, 'কোভিডের আতঙ্ক থাকবে, তার জন্য সতর্কতা নিতে হবে। কিন্তু প্রিয়জনকে একা ছাড়তে পারব না।'

    কোভিড মহামারীর প্রকোপে কার্যত শ্মশান হয়ে গিয়েছে গোটা উত্তরপ্রদেশ। একের পর এক চিতা জ্বলছে সারা রাজ্য জুড়ে। দুর্মূল্য হাসপাতালের বেড। শ্বাসবায়ুর অভাবে কার্যত দরজায় দরজায় ঘুরছেন নাগরিকরা। আগ্রা শহরে নিজের কোভিড আক্রান্ত স্বামীর প্রাণ বাঁচাতে তার মুখে মুখ দিয়ে শ্বাসবায়ু জোগানোর মরিয়া চেষ্টা করতে দেখা গিয়েছে স্ত্রীকে। নিজের প্রশাসনের অপদার্থতা ঢাকতে পুলিশি নির্যাতনের রাস্তায় হাঁটছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। অক্সিজেন চেয়ে সামাজিক নেট মাধ্যমে পোস্ট করলে মিলছে পুলিশি জুলুম। সব মিলিয়েই দেশের বৃহত্তম রাজ্য এখন প্রবল অন্ধকারে।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: