Home /News /national /
MURDER: পাবজি খেলতে বাধা, মাকে মাথায় গুলি করে খুন করল ছেলে, লুকিয়ে রাখা দেহর দুর্গন্ধ ঢাকতে ঢালল সুগন্ধি

MURDER: পাবজি খেলতে বাধা, মাকে মাথায় গুলি করে খুন করল ছেলে, লুকিয়ে রাখা দেহর দুর্গন্ধ ঢাকতে ঢালল সুগন্ধি

দেহ ৩ দিন বাড়িতেই লুকিয়ে রেখেছিল ১৬ বছরের অভিযুক্ত কিশোর, পচা-গলা দেহর দুর্গন্ধ ঢাকতে স্প্রে করেছিল প্রচুর পরিমাণ রুম ফ্রেশনার

  • Share this:
    উত্তরপ্রদেশ:  বাবা আর্মিতে কাজ করেন, তাঁর পিস্তল দিয়েই মাকে খুন করল খোদ ছেলে! কারণ? মা তাকে পাবজি খেলতে বাধা দিয়েছিলেন। এখানেই শেষ নয়! মায়ের দেহ ৩ দিন বাড়িতেই লুকিয়ে রেখেছিল ১৬ বছরের অভিযুক্ত কিশোর, পচা-গলা দেহর দুর্গন্ধ ঢাকতে স্প্রে করেছিল প্রচুর পরিমাণ রুম ফ্রেশনার।

    ইউপি পুলিশ সুত্রে জানা যায়, রবিবার রাতে তখন অভিযুক্তের মা  ঘুমাচ্ছিলেন। ঘড়িতে তখন রাত তিনটে। ঘুমের মধ্যেই মাকে খুন করে ছেলে। পাশাপাশি, বোনকে ভয় দেখায়, যদি সে এই ঘটনার কথা কোথাও ফাঁস করে, তা হলে তাকেও মেরে ফেলবে। আপাতত অভিযুক্ত কিশোরকে জুভানাইল হোম-এ পাঠানো হয়েছে।

    লখনৌ (পূর্ব) পুলিশের এডিসিপি কাসিম আবদি জানান, '' মঙ্গলবার পুলিশের কাছে খবর আসে, একজন মহিলাকে গুলি করে মারা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে উপস্থিত থাকা মানুষজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এটা স্পষ্ট বোঝা যায়, মহিলার ছেলেই তাঁকে খুন করেছে। জানা যায়, ছেলেটি পাবজি নামক অনলাইন গেম-এ আসক্ত। মা তাকে খেলতে নিষেধ করে, আর তার ফলেই এহেন চূড়ান্ত পদক্ষেপ করে ছেলে। বাবা সেনায় রয়েছেন, তাঁর লাইসেন্ডড পিস্তলটি বাড়িতেই ছিল,তা দিয়েই মাকে রাতে খুন করে অভিযুক্ত।''

    এডিসিপি কাসিম আবদি আরও জানান, '' আমাদের বিভ্রান্ত করতে অভিযুক্ত বলে বাড়িতে একজন ইলেকট্রিশিয়ান এসেছিল, সেই মহিলাকে খুন করেছে। কিন্তু যখন আমরা তার থেকে ইলেকট্রিশিয়ানের বিস্তারিত জানতে চাইলাম, বুঝতে পারলাম ছেলেটি মিথ্যে বলছে। আমরা অভিযুক্তকে আটক করেছি, তদন্ত চলছে।''

    বর্তমানে অভিযুক্তর বাবা অন্য রাজ্যে কর্মরত। পুলিশ জানিয়েছে, রবিবার সন্ধ্যায় মৃতা দেখেন, বাড়িতে রাখা কিছু টাকার হিসেব মিলছে না। ছেলেকেই টাকা চুরির দোষ দেন মা, যদিও পরে তিনি টাকাটি পেয়ে যান। অকারণে টাকা চুরির দায় চাপানোয় রেগে যায় ছেলে। এমনিতেই বিগত কিছুদিন ধরে মায়ের উপর তার রাগ বাড়ছিল, কারণ মা তাকে মোবাইল ফোনে গেম খেলতে দিচ্ছিল না। এরপরই চূড়ান্ত পরিণতি! আলমারি থেকে বাবার পিস্তল নিয়ে মায়ের মাথায় গুলি করে ছেলে।''

    পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এই ঘটনার কথা ২ দিন কাউকে জানায়নি অভিযুক্ত। বাইরে থেকে ছোট বোনের জন্য খাবার এনে দিয়েছিল। তাকে হুমকি দিয়ে রেখেছিল, যদি এই বিষয়ে মুখ খোলে, তবে তাকেও মেরে ফেলবে। যখন অভিযুক্ত মহিলাকে গুলি করে, তখন মেয়ের সঙ্গেই ঘুমাচ্ছিল ছোট্ট মেয়েটি। গুলির শব্দে ঘুম ভেঙে যায়। বর্তমানে ঠাকুমা-ঠাকুরদা আর বাবার সঙ্গে আছে মেয়েটি। পুলিশ জানিয়েছে, গোটা বাড়ি পচা গন্ধে ভরে গিয়েছিল আর সেই গন্ধ ঢাকতে বারবার রুম ফ্রেশনার স্প্রে করছিল কিশোর। পিস্তলটি মৃতা ও তাঁর স্বামীর নামে নথিভুক্ত রয়েছে। যখন বাবা স্ত্রীয়ের নম্বরে ফোন করেন, ছেলে ফোন ধরে বাবাকে সেই এক গল্পই শোনায়, যে ইলেকট্রিশিয়ান খুন করেছে মাকে। বাবা তড়িঘড়ি অন্যান্য আত্মীয়স্বজনকে ফোন করে বিষয়টি জানান, তারাই পুলিশে খবর দেয়। পুলিশি জেরায় দোষ স্বীকার করে নেয় অভিযুক্ত কিশোর। জানা যয়, ছেলেটির রাগ নাকি মারাত্মক, অতীতে বাড়ি থেকে পালিয়েও গিয়েছিল  রাগের বশে।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Murder

    পরবর্তী খবর