Mukul Roy|| বাসভবন ছাড়তেই হবে মুকুল রায়কে, প্রতিহিংসা বলছেন চাণক্য...

বাসভবন ছাড়তে হবে মুকুল রায়কে।

Mukul Roy|| রেলমন্ত্রী থাকার সময় থেকেই দিল্লিতে ১৮১, সাউথ অ্যাভিনিউয়ের বাসভবনটি মুকুল রায়ের ঠিকানা ছিল।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশ হওয়ার পর মুকুল রায় 'ঘরে' ফিরেছেন। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি পদে থাকাকালীন আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। এর পরেই দিল্লিতে ১৮১, সাউথ অ্যাভিনিউয়ের বাসভবনটি ছেড়ে দেওয়ার নোটিশ দেওয়া হয়েছে মুকুলকে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে মুকুল রায়কে বাসভবন ছেড়ে দেওয়ার প্রথম নোটিশটি দেওয়া হয় ১৯ জুলাই দ্বিতীয় নোটিশটি দেওয়া হয় ২৬ শে জুলাই। এই ঘটনার পর ঘনিষ্ঠমহলে মুকুল রায় বলেছেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই তাঁকে বাড়িছাড়া করল মোদি সরকার।

সূত্রের খবর, দীর্ঘদিন এই ঠিকানায় থাকার ফলে মুকুল রায় বাসভবনটি ছাড়তে চাননি। তার বর্তমান দলের নেতাদের নিজের ইচ্ছের কথা জানান মুকুল। সেইমতো প্রথমে দলের রাজ্যসভার সাংসদ দোলা সেন রাজ্যসভার হাউস কমিটিতে আবেদন জানান। তাঁর অতিথি হিসেবে যেন মুকুল রায়কে এইবার ভবনটিতে থাকতে দেওয়া হয়। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দেয় রাজ্যসভার হাউস কমিটি। এরপর একই আবেদন জানান তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার মুখ্যসচেতক শুখেন্দু শেখর রায়। সম্প্রতি সেই আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। এরপর এই হাল ছেড়ে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। এখন বাসভবনটি ছেড়ে দেওয়া ছাড়া অন্য কোন উপায় নেই মুকুল রায়ের কাছে।

শুক্রবার রাজ্যসভার হাউস কমিটির এক সদস্য নিউজ এইট্টিন বাংলাকে জানান, "মুকুল রায়ের দিল্লির বাড়িটি ছেড়েই দিতে হবে। বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তর অতিথি হিসেবে ওই বাড়িটি দেওয়া হয়েছিল মুকুল রায়কে। পরে মুকুল রায় তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় বাড়িটি ছেড়ে দেওয়ার নোটিশ দেওয়া হয়। মুকুল রায় যাতে ওই বাড়িতেই থাকেন সেজন্য তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে প্রথমে দোলা সেন রাজ্যসভার হাউস কমিটিতে আবেদন জানান। সেই আবেদন নাকচ হওয়ার পর ফের আবেদন জানান সুখেন্দুশেখর রায়। সেটিও নাকচ করে দিয়েছে সরকার। এর ফলে বাড়িটি ছেড়েই দিতে হবে।"সরকারের তরফে আরও একটি নোটিশ দিয়ে অবিলম্বে বাসভবনটি ছেড়ে দিতে বলা হয়েছে মুকুল রায়কে।

RAJIB CHAKRABORTY

Published by:Arka Deb
First published: