উদয়নের বাবা-মায়ের খুনের কথা কি জেনে গিয়েছিল আকাঙ্খা ? হত্যাকাণ্ড বাড়ছে রহস্য

উদয়নের বাবা-মায়ের খুনের কথা কি জেনে গিয়েছিল আকাঙ্খা ? হত্যাকাণ্ড বাড়ছে রহস্য

আকাঙ্খা হত্যাকাণ্ডে প্রতি নিয়ত বেড়ে চলেছে রহস্য ৷

  • Share this:

#ভোপাল: সিরিয়াল কিলিং থ্রিলার। লিভ ইন পার্টনারকে খুনের আগে বাবা-মাকেও খুন করে উদয়ন। দেহ পুঁতে তথ্য-প্রমাণ লোপাটের ক্ষেত্রেও মিলেছে পরিকল্পিত খুনের ইঙ্গিত। খুনি উদয়ন অপরাধমনস্ক মানসিক ভারসাম্যহীন বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের।

প্রিয় মানুষের কাছ থেকে সামান্য বাধা পেলেই খুন। আকাঙ্খা খুনে অভিযুক্ত উদয়নের এটাই বেসিক ইনস্টিংক্ট। খুনের পর দেহ পুঁতে রেখে প্রিয়জনকে কাছে রাখার প্রবণতা। লিভ ইন পার্টনারকে খুনের আগে বাবা-মাকেও খুন করে উদয়ন।

ফেসবুকে বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। এই সন্দেহেই আকাঙ্খাকে গলা টিপে খুন করে উদয়ন। সেরকমই সামান্য কারণে বাবা-মাকেও খুন করে উদয়ন। পুলিশ সূত্রে খবর,  ইঞ্জিনিয়ারিং সেমিস্টারে উদয়ন ফেল করলেও তা বাবা-মাকে জানায়নি ৷  বরং বাবা-মাকে জানায় সে পাস করে গিয়েছে ৷ উদয়নকে চাকরি খুঁজতে বলেন তাঁরা ৷  যা তার পক্ষে সম্ভব নয় বুঝেই খুনের ছক ৷

শুধু খুন করাই নয়। বাবা-মাকে খুনের পর প্রায় এক বছর ধরে লাইফ সার্টিফিকেট দিয়ে বাবার পেনশন ভোগ করে উদয়ন। পরে ভুয়ো ডেথ সার্টিফিকেট দিয়ে মায়ের নামে থাকা বাড়ি নিজের নামে করে নেয়। পরে সেই বাড়িও বিক্রি করে দেয় উদয়ন। বাবা-মায়ের সম্পত্তি দখল করেই বিলাসবহুল জীবনযাপন করত উদয়ন দাস।

আকাঙ্খা হত্যাকাণ্ডে প্রতি নিয়ত বেড়ে চলেছে  রহস্য ৷ বাঁকুড়ায় আকাঙ্খার বাড়িতে যেত উদয়ন বলে জানা গিয়েছে ৷ কত সালে আকাঙ্খা -উদয়নের পরিচয়? সোশ্যাল মিডিয়াতেই কি দুজনের পরিচয়? আকাঙ্খার অ্যাকাউন্ট থেকে বহুবার টাকা তোলা হয় ৷ কী প্রয়োজনে কে টাকা তুলেছিল? আকাঙ্খার আগেই খুন হন উদয়নের বাবা-মা ৷ খুনের কথা কি আকাঙ্খা জেনে গিয়েছিল? আকাঙ্খা-উদয়নের দ্বন্দ্বের সূত্রপাত কী? আকাঙ্খা-উদয়নের মাঝে তৃতীয় ব্যক্তিটি কে? হত্যাকাণ্ড ঘিরে উঠেছে একাধিক প্রশ্ন ৷

সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পেতে আজ কলকাতায় আনা হচ্ছে উদয়নকে ৷ রায়পুর থেকে বিমানে আনা হচ্ছে তাকে ৷ এরপর তাকে নিয়ে যাওয়া হবে বাঁকুড়ায় ৷ এদিনই তাকে আদালতে পেশের সম্ভাবনা রয়েছে ৷ অন্যদিকে, উদয়নকে জেরা করতে চায় বাঁকুড়া পুলিশ ৷

First published: 09:17:46 AM Feb 06, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर