২৫১ টাকায় ফোন বিক্রির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, এবার প্রতারণার দায়ে ধৃত মোহিত গোয়েল

ব্য়বসায়ী মোহিত গোয়েল৷

  • Share this:

    #দিল্লি: ২৫১ টাকায় স্মার্টফোন বিক্রি করার দাবি করে শোরগোল ফেলে দিয়েছেন৷ কয়েক মাসের মধ্যেই বোঝা যায়, 'ফ্রিডম ২৫১' নামে সেই ফোন আর বাজারে আসার সম্ভাবনা নেই৷ যে ব্যবসায়ী এই স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন সেই মোহিত গোয়েলকে এবার আর্থিক প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার করল পুলিশ৷

    অভিযোগ, বেশ কয়েকজন ড্রাই ফ্রুট ব্যবসায়ীকে ঠকিয়েছেন গোয়েল৷ প্রতারণার অঙ্ক প্রায় ২০০ কোটি টাকা৷ ২৫১ টাকার ফোনের কেলেঙ্কারির পর থেকেই অবশ্য নয়ডার ব্যবসায়ী মোহিতের উপরে নজর ছিল পুলিশের৷ সস্তার স্মার্ট ফোন তৈরির জন্য রিংগিং বেলস নামে একটি সংস্থা খুলেছিলেন মোহিত৷ সেই ব্যবসা লাটে ওঠার পর দুবাই ড্রাই ফ্রুটস নামে নতুন সংস্থা খোলেন তিনি৷ আরও পাঁচ জনের সঙ্গে এই সংস্থা খুলেছিলেন মোহিত৷ রবিবার বিকেলে নয়ডার সেক্টর ৫১-র একটি অফিস থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়৷

    পুলিশ জানিয়েছে, নয়ডার অভিজাত একটি বাণিজ্যিক বহুতলে অফিস খুলে প্রতারণার ফাঁদ পেতেছিল মোহিত গোয়েল৷ মোহিত গোয়েলের এই সংস্থার বিরুদ্ধে হরিয়ানা, পঞ্জাব, উত্তর প্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ সহ বিভিন্ন রাজ্যে চল্লিশটির বেশি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছিল৷ ঝাঁ চকচকে দফতরের ফ্রন্ট অফিসে তিন জন বিদেশিকে নিয়োগ করা হয়েছিল৷ যাতে সংস্থা সম্পর্কে মানুষের মনে উঁচু ধারণা তৈরি করা যায়৷ জানা গিয়েছে, প্রথমে বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের ড্রাই ফ্রুটের অর্ডার দিত গোয়েলের সংস্থা৷ প্রথমে বিশ্বাস অর্জন করার জন্য অগ্রিম টাকাও দিত তারা৷ কিন্তু তার পরই টাকা দেওয়া বন্ধ করে দিত৷ যে চেকগুলি দেওয়া হত, সেগুলি বাউন্স করত৷ যাঁদের প্রতারিত করা হত, উল্টে সেই ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধেই এর পর আদালতে মিথ্যে মামলা দায়ের করত গোয়েল এবং তাঁর সঙ্গীরা৷

    এর আগে ২০১৭ সালে ২৫১ টাকার ফোন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েও প্রতারণার দায়ে গ্রেফতার হতে হয়েছিল গোয়েলকে৷ এর পর ফের ২৩৯৯ টাকায় মোবাইল ফোন এবং ৯৯৯০ টাকায় এলইডি টিভি তৈরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে নতুন সংস্থা খোলেন মোহিত গোয়েল৷ কিন্তু সেই সংস্থার বিরুদ্ধেও একাধিক এফআইআর দায়ের হয়েছিল৷ সোমবার আদালতে তোলা হলে একাধিক আইনজীবী গোয়েলের জামিনের আবেদনের পক্ষে সওয়াল করেন৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাঁর জামিনের আর্জি খারিজ হয়ে যায়৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: