রেশন তুলতে গেলে এবার থেকে মোবাইলের ওটিপি বাধ্যতামূলক

Mobile OTP to be Mandatory for Getting Rations; Rules Changed from February 1

করোনা পরবর্তী সময় অনেক কিছুই বদলে গিয়েছে চারপাশে৷ বদলের এই পরিভাষা 'নিউ নর্মাল'৷ ফের এক পরিবর্তন যুক্ত হল৷ কেন্দ্রীয় সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, অন্নপূর্ণা (Annapurna) এবং অন্ত্যেদয় (Antyodaya) অন্ন যোজনার মাধ্যমে রেশন তুলতে গেলে মোবাইলের ওটিপি (Mobile OTP) বাধ্যতামূলক৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা পরবর্তী সময় অনেক কিছুই বদলে গিয়েছে চারপাশে৷ বদলের এই পরিভাষা 'নিউ নর্মাল'৷ ফের এক পরিবর্তন যুক্ত হল৷ কেন্দ্রীয় সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, অন্নপূর্ণা (Annapurna) এবং অন্ত্যেদয় (Antyodaya) অন্ন যোজনার মাধ্যমে রেশন তুলতে গেলে মোবাইলের ওটিপি (Mobile OTP) বাধ্যতামূলক৷ সরকারের এই রেশন ব্যবস্থায় দেশের কোটি কোটি মানুষ প্রতি মাসে উপকৃত হন৷

    মহামারির কথা ভেবেই বায়োমেট্রিকের বদলে মোবাইল ওটিপি-র কথা ভাবল সরকার৷ কারণ বায়োমেট্রিকে ভাইরাস সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও, মোবাইল ওটিপি সম্পূর্ণ নিরাপদ৷ জানা গিয়েছে গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশে এই নিয়ম লাগু হয়েছে৷ তেলেঙ্গানায় সবার আগে এই নিয়ম চালু হল৷ ধীরে ধীরে দেশের অন্য রাজেও শুরু হয়ে যাবে৷

    মোবাইলের ওটিপি-তে রেশন:

    হায়দরাবাদের মুখ্য রেশনিং অফিসারের জানিয়েছেন যে, তেলেঙ্গানার হায়দরাবাদ ও রাঙ্গারেড্ডি জেলাগ ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ডের (ওটিপি) মাধ্যমে রেশন বিতরণ করবে৷ ওটিপি যাচাই হওয়ার পরেই ৬৭০টি নায্য মূল্যের দোকান থেকে রেশন দেওয়া হবে৷ হায়দরাবাদে ৫ লক্ষ ৮০ হাজার ৬৮০ জনের রেশন কার্ড রয়েছে৷ রাঙ্গারেড্ডিতে সংখ্যাটা ৫ লক্ষ ২৪ হাজার ৬৫৬৷ সমস্ত কার্ডধারীদের ফোন নম্বরের সঙ্গে আধার কার্ডের লিঙ্ক করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

    রেশন কার্ডের জন্য কারা আবেদন করতে পারে:

    ভারতে ১৮ বছরের ওপর যে কোনও ব্যক্তি রেশন কার্ডের আবেদন করতে পারেন৷ একটি মাত্র রাজ্যেই রেশন তোলা যাবে৷ রেশন কার্ডে পরিবারের প্রধান ও বাকিদের তথ্যও থাকে৷

    কীভাবে আবেদন করতে হয়:

    কয়েকটি ধাপ অবলম্বন করে সহজেই রেশন কার্ডের আবেদন করা সম্ভব

    প্রথম ধাপ: প্রতি রাজ্যের ফুড পোর্টালে অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন জমা দেওয়া যায়৷ যেমন কেউ উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা হলে তাঁকে ভিজিট করতে হবে https://fcs.up.gov.in/FoodPortal.aspx

    দ্বিতীয় ধাপ: নিজ রাজ্যের ওয়েবসাইটে গিয়ে পিডিএফ ফর্ম ডাউনলোড করতে হবে

    তৃতীয় ধাপ: আধার কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা যে কোনও সচিত্র পরিচয় পত্রের প্রয়োজন হয় নথি হিসাবে দেখানোর জন্য

    চতুর্থ ধাপ: অনলাইন ফি ৫ থেকে ৪৫ টাকা পর্যন্ত হয়৷ টাকা দেওয়ার প্রক্রিয়া মিটে যাওয়ার পর তা যাচাই করতে পাঠানো হয়

    পঞ্চম ধাপ: ৩০ দিনের মধ্যে যাচাই হয়ে যায় সাধারণত৷ তবে প্রদত্ত নথির যদি যাচাইয়ের সময় না মেলে সেক্ষেত্রে আবেদন বাতিল হয়ে যায়৷

    যাচাইকরণের জন্য প্রয়োজনীয় নথি:

    আধার কার্ড (Aadhaar Card), প্যান কার্ড (PAN Card), পরিবারের প্রধানের পাসপোর্ট সাইজ ফটো (Passport-size photo of the Family head), উপার্জনের সার্টিফিকেট (Income Certificate), গ্যাস কানেকশনের বিস্তারিত তথ্য, জাতের সার্টিফিকেট (Caste Certificate) ব্যাঙ্কের পাসবই (Bank Passbook), রেজিস্ট্রেশনের সময় মোবাইল নম্বর

    Published by:Subhapam Saha
    First published: