কুখ্যাত অপরাধীকে এক গুলিতে মাটিতে ফেললেন এসআই প্রিয়াঙ্কা, লোকে বলছে, লেডি সিঙ্ঘম!

কুখ্যাত অপরাধীকে এক গুলিতে মাটিতে ফেললেন এসআই প্রিয়াঙ্কা, লোকে বলছে, লেডি সিঙ্ঘম!

ভোর চারটের সময় ধুন্ধুমার কাণ্ড রাজধানীতে।

ভোর চারটের সময় ধুন্ধুমার কাণ্ড রাজধানীতে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ভোর চারটে। গোটা শহর যখন ঘুমে আচ্ছন্ন, তখন তিনি ও তাঁর দলবল অতন্দ্র পাহারায়। আসলে আগে থেকেই অপরাধীদের আসার খবর পেয়েছিল দিল্লি পুলিশ। তাই এসআই প্রিয়াঙ্কা ও তাঁর টিম অপরাধীদের ধরতে তৈরি ছিল। রোহিত চৌধুরী নামের এক কুখ্যাত অপরাধী, যার মাথার দাম চার লাখ টাকা, তাকে এদিন এক গুলিতে মাটিতে ফেললেন দিল্লি পুলিশের লেডি সিংঙ্ঘম। ভোর চারটের সময় ধুন্ধুমার কাণ্ড রাজধানীতে। এসিপি পঙ্কজ ও এসআই প্রিয়াঙ্কার বুলেটপ্রুফ জ্যাকেটে গুলিও লাগে। কিন্তু তাঁরা দুজনেই রোহিত চৌধুরী ও পারভীন টিটুকে ধরাশায়ী করলেন।

    ভ্যারো সিং মার্গের পার্কিংয়ের পাশে বৃহস্পতিবার ভোর চারটে নাগাদ রোহিত ও টিটু আসে। পুলিশের কাছে আগেই খবর ছিল। তাই এসআই প্রিয়াঙ্কা ও এসিপি পঙ্কজ দলবল নিয়ে ওই পার্কিংয়ের পাশে এক জায়গায় তাদের ধরার জন্য ওত পেতে ছিলেন। রোহিত টিটু দুজনেই কুখ্যাত অপরাধী। আদ দুজনেই বহুদিন ধরে ফেরার। বেশ কয়েকবর পুলিশের হাতের নাগালে এসেও পালিয়ে যায় তারা। এদিন অবশ্য পার্কিংয়ের সমনে আসতেই শুরু হয় দুপক্ষের গুলির লড়াই। পুলিশ তাদের ধরতে গেলে গুলি চালায় দুই দাগী অপরাধী।

    প্রিয়াঙ্কা ও পঙ্কজের বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ছুঁয়ে যায় গুলি। তবে তারা দমে যাননি। এরপরই রোহিত চৌধুরীর পা লক্ষ্য করে গুলি চালান প্রিয়াঙ্কা। এক গুলিতেই আহত রোহিত মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। ওদিকে টিটুও ততক্ষণে ঘায়েল। এরপর কুখ্যাত অপরাধীকে ধরতে পুলিশের আর কোনও অসুবিধা হয়নি। দুজনকে হাসপাতালে পৌঁছানো হয়েছে। রোহিত চৌধুরী নামে ওই অপরাধের মাথার দাম চার লাখ টাকা।

    এর আগে কখনও কোনও এনকাউন্টারের ঘটনায় দিল্লি পুলিশের কোনও মহিলা এসআই অংশ নেননি। তাই এনকাউন্টারের ইতিহাসে এসআই প্রিয়াঙ্কা এদিন রেকর্ড করলেন। তাঁর সাহসিকতার প্রশংসা চলছে পুলিশ মহলে। এমনকী সারা দেশের সংবাদমাধ্যমও তাঁকে এখন লেডি সিঙ্ঘম নামে ডাকতে শুরু করেছে।

    Published by:Suman Majumder
    First published:

    লেটেস্ট খবর