‘সিবিআই এফআইআর করায় খুশি’, প্রতিক্রিয়া নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলের

‘সিবিআই এফআইআর করায় খুশি’, প্রতিক্রিয়া নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলের

সোমবার দিল্লিতে নারদাকাণ্ডে জড়িত ১৩ জন অভিযুক্তের নামে এফআইআর দায়ের করল সিবিআই ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: সোমবার দিল্লিতে নারদাকাণ্ডে জড়িত ১৩ জন অভিযুক্তের নামে এফআইআর দায়ের করল সিবিআই ৷ এই ১৩ জনের বিরুদ্ধে দুর্নীতিদমন আইনে অভিযোগ দায়ের করল সিবিআই ৷ অভিযুক্তদের শীঘ্রই নোটিস পাঠাতে পারে সিবিআই ৷ নারদাকাণ্ড নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্যই নোটিস পাঠাতে পারে ৷ প্রাথমিকভাবে ফুটেজের সত্যতা মেলাতেই সোমবার দিল্লিতে এই এফআইআর দায়ের করল সিবিআই ৷

সিবিআই-এর এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েল ৷ নারদ কাণ্ডে ১৩ জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের এফআইআর দায়ের নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে ম্যাথু জানালেন, ‘সাংবাদিকের কাজ করেছি ৷ দুর্নীতিগ্রস্তদের দেখাতে চেয়েছি ৷ সিবিআই এফআইআর করায় খুশি ৷ ’

হাইকোর্টে সোমবার জমা পড়ল নারদকাণ্ডে প্রাথমিক রিপোর্ট ৷ রিপোর্ট অনুযায়ী, নারদ কাণ্ডে জড়িত ১৩ জনের বিরুদ্ধে দিল্লিতে এফআইআর দায়ের করল সিবিআই ৷

নারদকাণ্ডে FIR রুজু নিয়ে দ্বিধায় ছিল সিবিআই। সোমবারই শেষ দিন ছিল সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া এক মাসের সময়সীমার। কিন্তু এই ৩০ দিনেও FIR রুজু করতে পারেনি সিবিআই। নারদকাণ্ডে প্রাথমিক অনুসন্ধানে তিন দিন সময় দেয় হাইকোর্ট। সুপ্রিম কোর্ট তা বাড়িয়ে এক মাস করে।

নারদ স্টিং অপারেশনের ৭৩টি ফুটেজ খতিয়ে দেখেছে সিবিআই। তাই সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া দ্বিতীয় বিকল্পের পথেই হাঁটতে চলেছে সিবিআই। এদিকে, ২০ এপ্রিল হাজিরা দিতে নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলকে ফের নোটিস দিল মুচিপাড়া থানা। হাজিরা না দিলে আইনি ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি কলকাতা পুলিশের।

নারদ মামলার রায়ে প্রাথমিকের তদন্তের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার হাতে ৷ তদন্ত রিপোর্ট জমা দেওয়ার জন্য কলকাতা হাইকোর্টের দেওয়া ৭২ ঘণ্টা সময়সীমা পরে বাড়িয়ে এক মাস করে দেয় শীর্ষ আদালত ৷ ৩০ দিনের মধ্যে প্রাথমিক অনুসন্ধান শেষ করে রিপোর্ট জমা দিতে হবে সিবিআইকে ৷ আজ শেষ হচ্ছে সময়সীমা ৷ নারদকাণ্ডে আজ সিবিআই কী পদক্ষেপ নেয় সেই দিকে তাকিয়ে রাজ্য রাজনীতি।

২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটের আগে প্রকাশ‍্যে আসে নারদ স্টিং ফুটেজ। ১২ তৃণমূল নেতা এবং এক আইপিএস-এর বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। বিজেপির সদর দফতরে দেখানো ফুটেজ নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। সিবিআই তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়। আজ নারদ মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল আদালত।

First published: 07:14:03 PM Apr 17, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर