• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • বৃষ্টির জমা জল সরাতে ম্যানহোলে নিজেই নামলেন বিজেপি কাউন্সিলর !

বৃষ্টির জমা জল সরাতে ম্যানহোলে নিজেই নামলেন বিজেপি কাউন্সিলর !

কর্ণাটকের মেঙ্গালুরু শহরের স্থানীয় বিজেপি কাউন্সিলর মনোহর শেট্টি ৷ তাঁর এই উদ্যোগ দেখে চমকে উঠেছেন প্রত্যেকেই ৷

কর্ণাটকের মেঙ্গালুরু শহরের স্থানীয় বিজেপি কাউন্সিলর মনোহর শেট্টি ৷ তাঁর এই উদ্যোগ দেখে চমকে উঠেছেন প্রত্যেকেই ৷

কর্ণাটকের মেঙ্গালুরু শহরের স্থানীয় বিজেপি কাউন্সিলর মনোহর শেট্টি ৷ তাঁর এই উদ্যোগ দেখে চমকে উঠেছেন প্রত্যেকেই ৷

  • Share this:

    DP Satish

    #মেঙ্গালুরু: বৃষ্টিতে জল জমে একাকার কাণ্ড ৷ নর্দমার জল ওভারফ্লো হচ্ছে ৷ এই অবস্থায় নিজেই শহরের ম্যানহোলে পরিষ্কারের কাজে নামলেন কর্ণাটকের মেঙ্গালুরু শহরের স্থানীয় বিজেপি কাউন্সিলর মনোহর শেট্টি ৷ তাঁর এই উদ্যোগ দেখে চমকে উঠেছেন প্রত্যেকেই ৷

    সাধারণত রাস্তার ম্যানহোল কোনও কারণে আটকে গিয়ে জমা জল না সরলে তা পর্যবেক্ষণ করে রিপোর্ট দেন এক পুরকর্মী। সেই রিপোর্ট অনুসারে ম্যানহোল মেরামতির কাজ করেন অন্য কোনও পুরকর্মী। কিন্তু সম্প্রতি মেঙ্গালুরুতে যা ঘটল, তা নিজের চোখে না দেখলে বিশ্বাসই হবে না ৷ সবাইকে চমকে গিয়ে ম্যানহোলে জমা জল পরিষ্কার করতে নিজেই নেমে পড়লেন ৪৭ বছরের ওই বিজেপি কাউন্সিলর ৷ এর আগে অবশ্য ওই খোলা ম্যানহোলে নেমে পুরকর্মীদের পরিষ্কার করার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি ৷ কিন্তু সেই নির্দেশ না মানায় নিজেই ম্যানহোলে নেমে পড়েন সাফ করার কাজে ৷

    তাঁদের আপত্তি অবশ্য কাউন্সিলরকে কর্তব্য থেকে হঠাতে পারেনি। পোশাক পরিবর্তন করে এরপর ফের ম্যানহোলে ঢুকে পড়ে সাফাইয়ের কাজটিও সারেন মনোহর শেট্টি। News18-কে কাউন্সিলর শেট্টি জানিয়েছেন, ‘‘ আমি জেট অপারেটরকে ম্যানহোলে নেমে হাইস্পিড ওয়াটার স্প্রেয়ারের মাধ্যমে পাইপ পরিষ্কার করতে বলেছিলাম ৷ কিন্তু উনি তা শোনেননি ৷ এই ধরণের কাজের জন্য তাঁকে নিয়োগ করা হয়নি বলে জানান ৷ অবস্থা তখন আরও খারাপ হচ্ছিল ৷ কেউ রাজি হচ্ছিল না ম্যানহোলের ভিতরে যেতে ৷ তখন আমি নিজেই ম্যানহোলে ঢুকে জমা জল পরিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নিলাম ৷ আমার দলের আরও চার কর্মী আমাকে এই কাজে সাহায্য করেন ৷ প্রায় আট ফুট গভীর অন্ধকার ম্যানহোলের ভিতরে প্রবেশ করে টর্চের আলোর সাহায্যে ভিতরটা পরিষ্কার করি ৷ প্রায় অর্ধেক দিন লেগে যায় পুরো কাজটি করতে ৷ ’’

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: