• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • MAN OUT ON BAIL IN SODOMY CASE RAPED AND KILLED 7 YEAR OLD GIRL IN UP RM

ধর্ষণ করে জেল খাটছিল, জামিনে ছাড়া পেয়ে ফের নাবালিকাকে ধর্ষণ করল দাগি আসামি

Representational Image

ফের ধর্ষণ উত্তরপ্রদেশে

  • Share this:

    #গোরখপুর: পাশনবিক, নক্কারজনক! অপ্রাকৃত যৌন সম্পর্কের অভিযোগে অভিযুক্ত দাগি আসামি দিন কয়েক আগে জামিনে ছাড়া ফের ধর্ষণ করল ! উত্তরপ্রদেশের সন্ত কবীর নগর জেলার বেলহার এলাকায় এক সাত বছরের নাবালিকাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে খুন করে অভিযুক্ত।

    শনিবার পুলিশি জেরায় অপরাধ স্বীকার করায় অভিযুক্তকে রবিবার গ্রেফতার করে পুলিশ। জেরায় অভিযুক্ত জানায় খুনের পর নাবালিকার দেখ কোথায় পুঁতে রেখেছে! ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

    রবিবার সকালে, বসতি জোনের আইজি অনিল কুমার রাই ও এসপি ব্রিজেশ সিং নাবালিকার গ্রামে যান। পুলিশকে দেখে স্থানীয় বাসিন্দারা দোষীর শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করে। পুলিশ আধিকারিকরা তাঁদের আস্বস্ত করেন যে, দোষী শাস্তি পাবেই। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গ্রামে প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

    জানা গিয়েছে, বুধবার থেকেই নিখোঁজ হয় সন্ত কবীর নগর জেলার অরাহিয়া-মাঞ্ছারিয়া গ্রামের সাত বছরের নাবালিকা। নিখোঁজের তিন ঘন্টা পর গ্রামের কাছেই একটি জঙ্গল থেকে মেয়েটির কাপড় উদ্ধার হয়। নাবালিকা ক্লাস চতুর্থ শ্রেনির ছাত্রী। বাবা পেশায় কৃষক।

    মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন বাবা। এরপরই বিহার পুলিশ অপহরণের মামলা দায়ের করে তল্লাশি শুরু করে। শনিবার বেলহার পুলিশ থানার অন্তর্গত অখলনা গ্রামের বাসিন্দা ২২ বছরের লাল বাহাদুরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশি জেরায় অভিযুক্ত দোষ স্বীকার করে পুরো ঘটনা খুলে বলে। জানায়, নাবালিকা যখন গ্রামের একটি মাঠে একা ছিল, তখন তাকে অপহারণ করে ২ কিলোমিটার দূরে সিয়ারাহওয়া ঘাটে নিয়ে যায়। সেখানেই ধর্ষণ করে নৃশংসভাবে খুন করে। এরপর দেহ লোপাটের জন্য একটি নালার পাশে মাটিতে মৃতদেহ পুঁতে দেয় ।

    এসপি ব্রিজেশ সিং জানিয়েছেন, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২০১ ধারা ( প্রমাণ লোপাট), ৩৬৩ ধারা ( অপহরণের শাস্তি), ৩০২ ( খুন), ৩৭৬ ( ধর্ষণ) ও Protection of Children from Sexual Offences (Pocso) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। রবিবারই তাঁকে জেলে পাঠানো হয়। অভিযুক্ত এর আগে এক নাবালককে ধর্ষণ করার অভিযোগে জেল খাটছিল। তিন মাস আগে জামিনে ছাডা পায় সে।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: