ডিভোর্স ফাইল করল স্ত্রী, রাগে শ্বশুরবাড়িতে হামলা চালাল স্বামী

ডিভোর্স ফাইল করল স্ত্রী, রাগে শ্বশুরবাড়িতে হামলা চালাল স্বামী
পণের দাবিতে শ্বশুরবাড়িতে হামলা চালাল বছর ২৮-র এক ব্যক্তি ৷দিল্লির মালভিয়া নগরের ঘটনা ৷

পণের দাবিতে শ্বশুরবাড়িতে হামলা চালাল বছর ২৮-র এক ব্যক্তি ৷দিল্লির মালভিয়া নগরের ঘটনা ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: পণের দাবিতে শ্বশুরবাড়িতে হামলা চালাল বছর ২৮-র এক ব্যক্তি ৷দিল্লির মালভিয়া নগরের ঘটনা ৷ জানা গিয়েছে অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম  চিন্টু।  শুক্রবার রাত পৌনে ৮টা নাগাদ তিনি আচমকা শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে হামলা চালায় ৷ ঘটনায়  মৃত্যু হয়েছে চিন্টুর শ্বশুর ও শাশুড়ির ৷ আহত হয়েছে আরও পাঁচজন ৷সূত্রের খবর, আট বছর আগে পালওয়ালের একটি গ্রামের বাসিন্দা চিন্টুর সঙ্গে বিয়ে হয় মালভিয়া নগরের বাসিন্দা রেনুর ৷ বিয়ের পর থেকেই পণের জন্য নানাভাবে অত্যাচার চালাত চিন্টু ৷ যতদিন গিয়েছে অত্যাচারের মাত্রা তত বেড়ে চলেছে ৷ অবশেষে সহ্য করতে না পেরে দুই সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়ি ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রেনু ৷ এরপর দুই পরিবারের মধ্যে এই বিষয়ে আলোচনা হলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে রেনু তার বাপের বাড়িতেই থাকবেন ৷ রেনুর বাপের বাড়ি চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি চিন্টু ৷ তিনি বিভিন্নভাবে তার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন ৷ কিন্তু কোনও লাভ হয়নি ৷ রেনু তার সঙ্গে কোনওরকম সম্পর্ক রাখতে অস্বীকার করেন ৷এরপর রাগের মাথায় শুক্রবার শ্বশুরবাড়িতে চড়াও হন চিন্টু ৷ ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায় রেনুর উপরে ৷ তাকে বাঁচাতে রেনুর মা এগিয়ে এলে তার উপরও হামলা চালায় চিন্টু ৷ এরপর শ্বশুর ও শ্যালককে আঘাত করেন চিন্টু ৷ এমনকি তার নিজের সন্তানরা ভয়ে চিৎকার করে উঠায় তাদের উপরেও হামলা করেন তিনি ৷


    সকলে চিৎকার করে উঠায় প্রতিবেশীরা ছুটে এসে ধরে ফেলে চিন্টুকে ৷ বেধড়ক মারধর করা হয় তাকে ৷ এরপর আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ৷ সেখানে চিন্টুর শ্বশুরকে মৃত বলে ঘোষণা করে চিকিৎসকেরা ৷ বাকিদের চিকিৎসা চলছে ৷ গণপিটুনিতে আহত চিন্টুকেও হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে ৷

    First published: