মাইনের টাকা চাওয়ায় পরিচারিকাকে কেটে ফেলা হল ১৬ টুকরোয়

Representational Image. Courtesy: Pixabay.

ঘটনার দুসপ্তাহ পর মঞ্জিত বাড়ি ফিরলে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ ।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কাজের খোঁজে বড় শহরে এসেছিল ১৬ বছরের কিশোরী । জুটেও গিয়েছিল পরিচারিকার কাজ । তবে মিলত না পারিশ্রমিক । এক বছর পর সেই ন্যায্য টাকা দাবি করেই মর্মান্তিক পরিণতি হল সোনি কুমারির । খুন করে ১৬ টুকরোয় কেটে ফেলা হল তাকে ।

    ঝাড়খণ্ডের রাঁচির মালগো গ্রাম বাসিন্দা সোনিকে দিল্লি নিয়ে এসেছিল মঞ্জিত করকেতা । তাঁর সাগরেদ সাহু আর গৌরির জীবিকা গরীব পরিবারের মেয়েদের বড় শহরে এনে কাজ জুটিয়ে দেওয়া ।

    আরও পড়ুন: বিমানবন্দরে হস্তমৈথুন, দিল্লি থেকে গ্রেফতার এনআরআই প্রৌঢ়

    দিল্লির পশ্চিম বিহারে কাজ জুটে গেলেও সোনিকে হাতের মুঠোয় রাখতে তার পারিশ্রমিকের টাকা নিজের কাছেই রেখে দিত মঞ্জিত । যেমনটা সে করত অন্য মেয়েদের ক্ষেত্রেও ।

    এক বছর কাজ করার পর দেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সোনি । জমা টাকা চাইতে গেলে মঞ্জিতের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে সে । এরপরই সোনিকে খুন করে তার দেহ ১৬ টুকরোয় কেটে ব্যাগে ভরে রাও বিহারের সি ব্লক-এর কাছে ফেলে রাখে মঞ্জিত ।

    ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিল মঞ্জিত । ব্যাগ উদ্ধারের পর গোটা এলাকায় জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে সোনির পরিচয় জানতে পারে পুলিশ । সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চিহ্নিত করে মঞ্জিতকে । ঘটনার দুসপ্তাহ পর মঞ্জিত বাড়ি ফিরলে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ । জেরায় খুনের কথা স্বীকার করেছে সে ।

    First published: