দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্করপিও না জলের ট্যাঙ্ক? ভোটের মধ্যেও বিহারে এই বাড়ির ছাদে নজর সবার

স্করপিও না জলের ট্যাঙ্ক? ভোটের মধ্যেও বিহারে এই বাড়ির ছাদে নজর সবার
স্করপিও-র আদলে জলের ট্যাঙ্ক৷

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, শুধু যে গাড়ির মতো দেখতে জলের ট্যাঙ্ক তৈরি করেছেন তাই নয়, তার গায়ে নিজের আসল গাড়ির নম্বর প্লেটও লাগিয়েছেন ওই ব্যক্তি৷

  • Share this:
#ভাগলপুর: বাড়ির ছাদে অনেকেই বিভিন্ন আকৃতির জলের ট্যাঙ্ক তৈরি করেন৷ কিন্তু সেসব কিছুকেই ছাপিয়ে গিয়েছেন বিহারের এক বাসিন্দা৷ বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের উত্তাপের মধ্যেও অনেকেরই নজর কেড়ে নিয়েছে এই জলের ট্যাঙ্কের ভাইরাল ছবি৷ আসলে বিহারের ভাগলপুরের বাসিন্দা ইন্তাসার আলম নামে একজন নিজের বাড়ির ছাদের মাথায় মহিন্দ্রার স্করপিও গাড়ির আদলে জলের ট্যাঙ্ক তৈরি করেছেন৷

কিন্তু হঠাৎ কেন এমন ভাবনা? আসলে নিজের প্রথম গাড়ি হিসেবে একটি স্করপিও কিনেছিলেন ইন্তাসার আলম৷ তার পরেই এই গাড়ির প্রেমে পড়ে যান তিনি৷ আর গাড়ির প্রতি নিজের ভালবাসা প্রকাশ করতেই চারতলা বাড়ির ছাদে স্করপিও গাড়ির আদলে একটি জলের ট্যাঙ্ক বানিয়েছেন তিনি৷ যা বহুদূর থেকেও দেখা যাচ্ছে৷

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, শুধু যে গাড়ির মতো দেখতে জলের ট্যাঙ্ক তৈরি করেছেন তাই নয়, তার গায়ে নিজের আসল গাড়ির নম্বর প্লেটও লাগিয়েছেন ওই ব্যক্তি৷ তিনি জানিয়েছেন, গাড়ির প্রতি ভালবাসা থাকলেও স্করপিও-র আদলে জলের ট্যাঙ্ক তৈরির ভাবনা আসলে তাঁর স্ত্রীর৷ তিনি আগ্রাতে গিয়ে একটি বাড়ির ছাদে এই ধরনের ট্যাঙ্ক দেখে এসে স্বামীকে তা জানান৷ স্ত্রীর প্রস্তাবে সঙ্গে সঙ্গে সায় দেন আলম৷ আগ্রা থেকে রাজমিস্ত্রি আনিয়ে এই ট্যাঙ্ক তিনি তৈরি করেছেন বলে জানান আলম৷ সবমিলিয়ে স্করপিও-র আদলে জলের ট্যাঙ্ক তৈরি করতে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা মতো খরচ হয়েছে তাঁর৷ দৈনিক ১২০০ টাকা করে মজুরি নিয়েছেন মিস্ত্রিরা৷

গোটা দেশে তো বটেই, বিহারেও স্করপিও এসইউভি-র বিপুল চাহিদা রয়েছে৷ এবড়ো খেবড়ো রাস্তা, চড়াই উতরোই পেরিয়ে গন্তব্যে পৌঁছনোর জন্য শক্তপোক্ত এই গাড়িটি বেছে নিচ্ছেন অনেকেই৷ বিহারের নির্বাচনে রাজনীতিবিদদেরও প্রথম পছন্দ হিসেবে উঠে আসছে স্করপিও৷ জানা গিয়েছে, শুধুমাত্র ভাগলপুরেই স্করপিও-র চাহিদা এতটাই বেশি যে স্থানীয় ডিলারের পক্ষেও এত গাড়ির জোগান দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: October 28, 2020, 10:39 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर