Mamata Banerjee on Tripura: 'এভাবে আটকানো যাবে না, ত্রিপুরায় আমরাই জিতব!' নবান্নে থেকেই চ্যালেঞ্জ মমতার

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ Photo-File/PTI

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন আরও জানিয়েছেন, ত্রিপুরার প্রাক্তন অধ্যক্ষ এবং পাঁচ বারের বিধায়ক জিতেন সরকার তৃণমূলে যোগ দিতে চেয়ে তাঁকে ফোন করেছেন (Mamata Banerjee on Tripura)৷

  • Share this:

    #কলকাতা: বাংলার পর এবার ত্রিপুরাতেও জিতবে তৃণমূল৷ নবান্নে বসেই এই দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর আরও অভিযোগ, ত্রিপুরায় তৃণমূলকে আটকাতে রীতিমতো গুন্ডাগিরি চলছে৷ ত্রিপুরায় আইনশৃঙ্খলা নেই বলেও অভিযোগ তাঁর৷ যদিও এ ভাবে তৃণমূলকে আটকানো যাবে না বলেই দাবি আত্মবিশ্বাসী মুখ্যমন্ত্রী৷

    ত্রিপুরায় তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপি-র সংঘাত দিন দিন আরও তীব্র হচ্ছে৷ এমন কি, ত্রিপুরায় তৃণমূল নেতারা যে হোটেলে উঠেছেন, সেখানেও সমস্যা তৈরি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ৷ হোটেল কর্তৃপক্ষের উপরেও পুলিশ, প্রশাসন নানা রকম ভাবে চাপ সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ৷ হোটেলে বিদ্যুৎ সংযোগও বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ৷ এমন কি, তৃণমূল নেতাদের ঠিক মতো খাবার পরিবেশন করা হচ্ছে না বলেও অভিযোগ৷

    এ দিন ত্রিপুরা প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'হোটেলে গিয়েও ডিস্টার্ব করছে৷ এটা বাড়াবাড়ি হচ্ছে৷ ওখানে ডেমোক্র্যাসির 'ডি' নেই৷ লোকতন্ত্রের 'ল' নেই৷ আইনশৃঙ্খলা বলতেও কিছু নেই৷ ওখানে গুন্ডাগিরি চলছে৷' এর পরই আত্মবিশ্বাসী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'এরকম ভাবে আমাদের আটকানো যাবে না৷ এবার আমরা ত্রিপুরায় জিতব৷ আমরা চাই বাংলার প্রকল্পগুলি ত্রিপুরায় চালু হোক৷ ত্রিপুরার মানুষ বিনা পয়সায় চিকিৎসা পাক, বিনা পয়সায় চাল পাক৷ আমরা চাই ত্রিপুরার মানুষ ভালো থাকুক৷'

    মুখ্যমন্ত্রী এ দিন আরও জানিয়েছেন, ত্রিপুরার প্রাক্তন অধ্যক্ষ এবং পাঁচ বারের বিধায়ক জিতেন সরকার তাঁর বেশ কিছু অনুগামীকে নিয়ে তৃণমূলে যোগ দিতে চেয়ে তাঁকে ফোন করেছেন৷

    বাংলায় তৃতীয় বার ক্ষমতায় আসার পর এবার ত্রিপুরায় ক্ষমতা দখলের জন্য সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েছে তৃণমূল৷ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ তৃণমূলের আরও বেশ কয়েকজন নেতা ইতিমধ্যেই ত্রিপুরায় ক্ষমতায় আসার দাবি করেছেন৷ যদিও বিজেপি বিষয়টিকে গুরুত্ব দেয়নি৷ কিন্তু এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ত্রিপুরা জয়ের দাবি করলেন৷ ফলে নিঃসন্দেহে বিষয়টি অন্য মাত্রা পেল৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: