Lockdown: ১৫ এপ্রিল থেকেই কি মহারাষ্ট্রে সম্পূর্ণ লকডাউন! খুব শীঘ্রই বড় ঘোষণা করতে চলেছে উদ্ধভ ঠাকরে সরকার

Lockdown: ১৫ এপ্রিল থেকেই কি মহারাষ্ট্রে সম্পূর্ণ লকডাউন! খুব শীঘ্রই বড় ঘোষণা করতে চলেছে উদ্ধভ ঠাকরে সরকার

মহারাষ্ট্রে যেভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, তাতে রাজ্য সরকার পূর্ণ লকডাউনের দিকেই এগোচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।

মহারাষ্ট্রে যেভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, তাতে রাজ্য সরকার পূর্ণ লকডাউনের দিকেই এগোচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।

  • Share this:

    #মুম্বই: মহারাষ্ট্রে যেভাবে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, তাতে রাজ্য সরকার পূর্ণ লকডাউনের দিকেই এগোচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে। আজ আগামীকাল রাত ১২টার পর থেকেই লকডাউন ঘোষণা করবে মহারাষ্ট্র সরকার। অর্থাৎ ১৫ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকেই থেকে গোটা রাজ্য জুড়ে শুরু হতে পারে লকডাউন। আজই এই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করতে উদ্ধভ ঠাকরে সরকার প্রস্তুত বলে জানা যাচ্ছে।

    বিগত কয়েকদিন ধরেই রাজ্যের টাস্ক ফোর্স, চিকিৎসক ও মন্ত্রীদের সঙ্গে এই বিষয়ে অনলাইন বৈঠক সেরেছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধভ ঠাকরে। টাস্ক ফোর্স থেকে ১৫ দিনের লকডাউন ঘোষণা করার পরামর্শ দিয়েছে। তবে সেই নিয়েও লকডাউন ১৫ দিন নাকি তার কম দিনের জন্য হবে তা নিয়ে আলোচনা চলছে। এছাড়া লকডাউনে দিনমজুর ও দৈনিক রোজগারের ভিত্তিতে যাঁদের সংসার চলে তাঁদের জন্য কী আর্থিক প্যাকেজের ব্যবস্থা করা যায় সেই নিয়েও আলোচনা চলছে। মূলত করোনা শৃঙ্খল ভেঙে ফেলার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে মহারাষ্ট্র। জানাচ্ছেন মন্ত্রী আসলাম শেখ। এছাড়াও হাসপাতালের পরিকাঠামো নিয়েও তাদের মধ্যে কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

    তবে লকডাউন ছাড়াও আর কী কী উপায় করোনা সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব, তা নিয়েও বিগত বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। যে ভাবে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ প্রতিদিন করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন, তাতে মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে বেডের সংখ্যাতেও ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। এমনকি পর্যাপ্ত পরিমাণে অক্সিজেনেরও অভাব দেখা যাওয়ায় চিন্তা বেড়েছে।

    রবিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপে জানিয়েছিলেন রাজ্যের প্রতিটি জেলায় যাতে অক্সিজেন প্লান্ট তৈরি করা যায়, সেই ব্যাপারেও সরকার ভাবছে। এছাড়াও প্রতিটি বেসরকারি হাসপাতালে যাতে যথেষ্ট পরিমাণে রেমডিসিভির ইনজেকশন থাকে সেই ব্যাপারেও আলোচনা হয়েছে।

    মহামারীর কথা মাথায় রেখে ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্রে জারি রয়েছে বিভিন্ন বিধি নিষেধ। সপ্তাহান্তে লকডাউন, নাইট কার্ফু সহ বিভিন্ন বিষয়ে রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। এগুলি আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত জারি থাকবে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: