• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • MADHYAPRADES MAN CLIMBS TREE WITH THE AADHAAR CARD OF HIS WIFE TO AVOID GETTING VACCINATED SWD

Vaccine: ভ্যাকসিন দেব না! স্ত্রী-র আধার কার্ড নিয়ে গাছে চড়লেন স্বামী

স্ত্রীও যাতে ভ্যাকসিন (Vaccine) নিতে না পারেন, তাই সঙ্গে নিলেন তাঁর আধার কার্ড। ততক্ষণ গাছে চড়ে রইলেন, যতক্ষণ না ভ্যাকসিন দিতে আসা স্বাস্থ্যকর্মীরা গ্রাম থেকে চলে যান!

স্ত্রীও যাতে ভ্যাকসিন (Vaccine) নিতে না পারেন, তাই সঙ্গে নিলেন তাঁর আধার কার্ড। ততক্ষণ গাছে চড়ে রইলেন, যতক্ষণ না ভ্যাকসিন দিতে আসা স্বাস্থ্যকর্মীরা গ্রাম থেকে চলে যান!

  • Share this:

    #ভোপাল: ঠেলায় না পড়লে বেড়াল গাছে ওঠে না! মানুষ ওঠে কি? ঠেলা কিনা ঠিক নেই, ভ্যাকসিনের ভয়ে গাছেই উঠলেন মধ্যপ্রদেশের এক ব্যক্তি। স্ত্রীও যাতে ভ্যাকসিন (Vaccine) নিতে না পারেন, তাই সঙ্গে নিলেন তাঁর আধার কার্ড। ততক্ষণ গাছে চড়ে রইলেন, যতক্ষণ না ভ্যাকসিন দিতে আসা স্বাস্থ্যকর্মীরা গ্রাম থেকে চলে যান!

    কোভিড (Covid 19) অতিমারির সঙ্গে লড়াইয়ে ভ্যাকসিন-ই অন্যতম হাতিয়ার বলে বারবার জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা। দেশজুড়ে সার্বিক ভ্যাকসিন দানের প্রক্রিয়া চলছে। তৃতীয় ঢেউ এসে পড়ার আগে যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা। তবু অনেকেরই ভয় কাটছে না ভ্যাকসিন দেওয়া নিয়ে। যেমন কাটেনি মধ্যপ্রদেশের রাজগড় জেলার পাটনা কালান গ্রামের বাসিন্দা কানোয়ারলাল নামের ওই ব্যক্তির। সম্প্রতি কানোয়ারলালদের গ্রামে কোভিড ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্প করা হয়েছিল স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে।

    দফতরের আধিকারিকদের দেখেই গোঁ ধরেন কানোয়ারলাল। তাঁর স্ত্রী ভ্যাকসিন নিতে কিছুটা রাজি হয়েছেন দেখে চেঁচাতে শুরু করেন তিনি। এরপর কিছুতেই স্ত্রী তাঁর কথা শুনছেন না দেখে, হঠাৎ তাঁর আধার কার্ড নিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে ছুটে একটি গাছে চড়ে বসেন। গ্রামের লোক শত বুঝিয়েও তাঁকে গাছ থেকে নামিয়ে আনতে পারেননি। এরপর অন্তত স্ত্রীয়ের আধার কার্ড দিয়ে দেওয়ার জন্য তাঁকে অনুরোধ জানানো হলে তিনি কার্ডটি ছিঁড়ে গিলে ফেলার হুমকি দিতে শুরু করেন। ক্যাম্পের বদলে কানোয়ারলালকে নিয়েই গ্রামজুড়ে শুরু হয় হুলস্থুল।

    তখনকার মতো রণে ভঙ্গ দিয়ে স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা ফিরে গেলেও তাঁর সমস্যা সমাধান করে বোঝাতে ফের ওই গ্রামে যান তাঁরা।কানোয়ারলাল জানান, জ্বর এবং গা, হাত-পা ব্যথা হওয়ার ভয়ে তিনি ভ্যাকসিন নিতে চান না। তাঁর স্ত্রী-ও ভ্যাকসিন নিলে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। এরপর শুরু হয় তাঁকে বোঝানো। শেষে ভ্যাকসিন নেওয়া কতটা জরুরি বুঝে রাজি হন কানোয়ারলাল। এরপর স্ত্রীকে নিয়েই অন্য গ্রামের ক্যাম্পে ভ্যাকসিন নিয়েছেন তিনি। কানোয়ারলাল এরপর বলেন, “ভুল ভেঙে গাছে চড়েছিলাম। এরপর করোনার উপর চড়ে বসে তাকে মারতে চাই।”

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: