• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • নিজের বাড়িতেই খুন কনস্টেবল ও তাঁর স্ত্রী, সন্দেহের তীর মেয়ের দিকে

নিজের বাড়িতেই খুন কনস্টেবল ও তাঁর স্ত্রী, সন্দেহের তীর মেয়ের দিকে

পুলিশ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে তাঁদের হত্যা করা হয় বলে মনে করা হচ্ছে

পুলিশ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে তাঁদের হত্যা করা হয় বলে মনে করা হচ্ছে

পুলিশ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে তাঁদের হত্যা করা হয় বলে মনে করা হচ্ছে

  • Share this:

    #ইন্দোর: ধারালো অস্ত্র দিয়ে নৃশংস ভাবে খুন হতে হল স্পেশাল আর্মড ফোর্সের (এসএএফ) পদে নিযুক্ত এক কনস্টেবল এবং তাঁর স্ত্রীকে ৷ পুলিশ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার ভোররাতে তাঁদের হত্যা করা হয় বলেই অনুমান৷

    কে বা কারা এই খুনের সাথে যুক্ত তা এখনও পরিষ্কার নয়৷ তাই আসামিদের সনাক্ত করাও সম্ভব হয়নি৷ তবে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় সন্দেহের তালিকায় আছে নিহত কনস্টেবলের ১৭ বছর বয়সি মেয়ে এবং তার পুরুষ বন্ধু৷ আরও জানানো হয়েছে, ৪৫ বছর বয়সি ওই ব্যক্তি জ্যোতিপ্রসাদ শর্মা এবং তাঁর ৪৩ বছর বয়সী স্ত্রী নীলম এর মৃতদেহগুলি ছিল রক্তে মাখা এবং তাঁদের পোশাকেও ছিল রক্তের দাগ৷ দেহগুলি এরোড্রোম থানা এলাকায় অবস্থিত তাঁদের নিজ বাসস্থানে পাওয়া যায়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) প্রশান্ত চৌবে জানান, ধারাল কোনও অস্ত্রের সাহায্যে হত্যা করা হয়েছে এই দম্পতিকে ।

    প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, ভোররাতে বাড়ির ভেতর থেকে উচ্চস্বরে চেঁচামেচি করার শব্দ আসে এবং সেই সময় কনস্টেবলের ১৭বছর বয়সি মেয়েকে বাড়ির সামনে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়৷ এই বিষয়ে তাকে প্রশ্ন করে তাদের প্রতিবেশীরা ও তার ঠাকুরদা-ঠাকুরমা, যাঁরা তাদের বাড়ির কাছাকাছিই থাকতেন৷ এর উত্তরে মেয়েটি জানায়, তার মা-বাবার মধ্যে অশান্তি, ঝামেলা চলছে৷ এই ঘটনার পরই নিহতের নাবালিকা মেয়ে এবং তার পুরুষ বন্ধু নিখোঁজ ৷ তাই তাদের জড়িত থাকার বিষয়ে সন্দেহ বেড়ে যায় পুলিশের ৷ তাদের তল্লাশি চলছে।

    চৌবে বলেন, প্রায় এক মাস আগে ওই কনস্টেবলের সঙ্গে তাঁর মেয়ের ওই পুরুষ বন্ধুর কথা কাটাকাটি হয়েছিল। তিনি আরও জানান, দেহগুলি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে এবং ঘটনার তদন্ত চলছে৷

    Published by:Simli Dasgupta
    First published: