• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • সবার চোখে ধুলো দিয়ে মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যে দু’টো বিয়ে করলেন মধ্যপ্রদেশের যুবক !

সবার চোখে ধুলো দিয়ে মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যে দু’টো বিয়ে করলেন মধ্যপ্রদেশের যুবক !

Representational Image

Representational Image

মুসাখেড়ি অঞ্চলের বাসিন্দা ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ এটাই যে তিনি ডিসেম্বরের ২ তারিখে খান্ডওয়ার এক মহিলাকে বিয়ে করেন। আবার ঠিক পাঁচ দিন পরেই অর্থাৎ ৭ তারিখ ইনদওরের মহাও অঞ্চলের অপর এক মহিলাকে বিয়ে করেন।

  • Share this:

#ইনদওর: ২৬ বছর মাত্র তাঁর বয়স। কিন্তু কাজ তিনি সারা জীবন মনে রাখার মতো করেছেন বটে! মাত্র পাঁচ দিনের ব্যবধানে দু'টি মেয়েকে তিনি বিয়ে করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের ইনদওর শহরে। মধ্যপ্রদেশের খান্ডওয়া কোতয়ালি পুলিশ স্টেশনের ইন্সপেক্টর বি এল মান্দলোই জানিয়েছেন শনিবার তাঁরা এই বিষয়ে মেয়ের বাড়ির পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অবশ্য যাঁর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ, সেই ব্যক্তি পলাতক।

মুসাখেড়ি অঞ্চলের বাসিন্দা এই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ এটাই যে তিনি ডিসেম্বরের ২ তারিখে খান্ডওয়ার এক মহিলাকে বিয়ে করেন। আবার ঠিক পাঁচ দিন পরেই অর্থাৎ ৭ তারিখ ইনদওরের মহাও অঞ্চলের অপর এক মহিলাকে বিয়ে করেন। কিন্তু কী ভাবে জানা গেল যে একই ব্যক্তি দুই মহিলাকে বিয়ে করেছেন? খান্ডওয়ার যে মহিলাকে ব্যক্তি বিয়ে করেছিলেন, সেই মেয়েটির কোনও এক আত্মীয় ইনদওরে যান অপর একটি বিয়েতে। বরকে দেখে তাঁর সন্দেহ হওয়ায় তিনি কিছু ছবি তুলে ডিসেম্বরের সাত তারিখে খান্ডওয়ার সেই মহিলার বাড়িতে পাঠান। সেই ছবি দেখে সবার টনক নড়ে। বোঝা যায় যে একই ব্যক্তি দু'টি বিয়ে করেছেন।

খান্ডওয়ায় মেয়েটির পরিবার বুঝতে পারে যে তাঁরা প্রতারিত হয়েছেন। তখন তাঁরা থানায় গিয়ে সব ঘটনা জানান এবং ব্যক্তিটির নামে এফআইআর করেন। জানা যায় যে এই বিয়ের জন্য সর্বমোট ১০ লক্ষ টাকা খরচ করেছেন তাঁরা। খান্ডওয়ার যে মহিলার সঙ্গে এই ব্যক্তির বিয়ে হয়, তিনি জানান যে বিয়ের পর তাঁর স্বামী তাঁকে ইনদওরে নিয়ে যান। তিনি বলেন যে ইনদওরেই তিনি থাকেন। স্বভাবতই এই নিয়ে সন্দেহ করার মতো কিছু ছিল না। কিছু দিন পরে ব্যক্তিটি তাঁর প্রথম স্ত্রীকে বলেন যে বিশেষ কোনও কাজে ভোপাল যেতে হবে। কিন্তু আসলে তিনি মহাওতে আরেকটি বিয়ে করতে গিয়েছিলেন।

২ ডিসেম্বর বিয়ের দিন ওই ব্যক্তি তাঁর বাবা মা, ভাই বোন, ও অন্যান্য বন্ধুদের সঙ্গে এসেছিলেন। ইন্দোরের মহাও অঞ্চলের যে মহিলাকে এই ব্যক্তি বিয়ে করেছেন, তিনি জানান যে বিয়ের অনেক আগে থেকেই বাবা-মার সম্মতি অনুযায়ী সব কিছু ঠিক ছিল। সাত তারিখের পর থেকে ওই ব্যক্তি মোবাইল ফোন বন্ধ করে পালিয়ে যান। পুলিশ এখন তাঁকে খুঁজছে।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: