দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

টাকার জন্য দুই স্ত্রী–এর সঙ্গে সেক্স লাইভ স্ট্রিমিং!‌ জঘন্য কাণ্ড করে গ্রেফতার ১

টাকার জন্য দুই স্ত্রী–এর সঙ্গে সেক্স লাইভ স্ট্রিমিং!‌ জঘন্য কাণ্ড করে গ্রেফতার ১
প্রতীকী ছবি

পুলিশ জানিয়েছে, ওই অ্যাপগুলি থেকে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করেছেন ওই ব্যক্তি। প্রথমে প্রলোভন দেখানোর জন্য একটি ব্যক্তিগত ছবি ডিসপ্লে পিকচারে প্রকাশ করেন তিনি।

  • Share this:

ইন্টারনেটে এখন প্রলোভনের শেষ নেই। একাধিক ওয়েবসাইট মারফত রোজই টাকা উপার্জনের লোভ দেখানো হয়। সহজে ওয়েবসাইট থেকে উপার্জনের জন্য তাই নিজের স্ত্রী–দের কাজে লাগালেন মধ্য প্রদেশের ২৪ বছরের যুবক। তিনি দুই স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে নিয়মিত অনলাইনে সেক্স করতেন। আর সেই যৌনতার ভিডিও বিভিন্ন অ্যাপে লাইভ স্ট্রিম করে টাকা উপার্জন করতে। জাতীয় সংবাদমাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে। ওই যুবক দশম শ্রেণি পাশ, কিন্তু টেক স্যাভি। সেই কারণেই এই কাণ্ড করা আরও সহজ হয়েছিল। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে যখন ওই যুবকের দ্বিতীয় স্ত্রী সরাসরি পুলিশের কাছে গিয়ে অভিযোগ করেন, তাঁকে দিয়ে জোর করে অন্যায় কাজ করাচ্ছেন ওই যুবক, নিয়মিত শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করছেন। শনিবার ধর্ষণ ও ব্যাক্তিগত পরিসর ভঙ্গ করার অভিযোগে গ্রেফতার করে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই অ্যাপগুলি থেকে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করেছেন ওই ব্যক্তি। প্রথমে প্রলোভন দেখানোর জন্য একটি ব্যক্তিগত ছবি ডিসপ্লে পিকচারে প্রকাশ করেন তিনি। তারপর যাঁরা সেই ছবি লাইক করেছেন, তাঁদের কাছে পৌঁছে যায় একটি মেনু। সেখানে ১০০ টাকা থেকে শুরু করে ৫০০, ৭০০, ১০০০ টাকার নানারকম অপশন ছিল। সেখানে মুখ দেখিয়ে সেক্স করা থেকে শুরু করে, মুখ না দেখিয়ে সেক্স করা, সব অপশনই ছিল। পুলিশ অভিযোগ পাওয়ার পর ওই ব্যক্তির বাড়িতে হানা দেয়। হানা দিয়ে মোট ২১ লক্ষ টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে। তার মধ্যে ছিল ৪৫ হাজার টাকা নগদ, ১৫ লক্ষ টাকার সোনা। এছাড়াও অগাস্টে খোলা একটি অ্যাকাউন্টে প্রায় ৬ লক্ষ টাকার লেনদেন ধরা পড়ে পুলিশের কাছে।

একটি জাতীয় সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে, ওই যুবকের দ্বিতীয় স্ত্রী জানতেন না যে তাঁর একটি বিয়ে রয়েছে। ফেসবুকে আলাপ হওয়ার পর ওই যুবক অভিযোগকারী মহিলাকে বিদিশাতে ডেকে পাঠায়। সেখানে তাঁরা বিয়ে করে। তারপর অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ভিডিও করে সেটি ভাইরাল করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেল করতে থাকে। ওই ব্যক্তির প্রথম স্ত্রী আপাতত সাতমাসের অন্তঃস্বত্তা। তাঁকে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের লোভ দেখিয়ে এই কর্মকাণ্ডে সামিল করেছিল যুবক। আর দ্বিতীয় স্ত্রী, যিনি উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা, সেই পরবর্তীতে পুলিশের কাছে গিয়ে খবর করে।

ট্যাঙ্গো সহ একাধিক অশ্লীল অ্যাপে একান্ত মুহূর্ত লাইভ স্ট্রিমিং করতে বাধ্য করত ওই যুবক। একাধিক ডেটিং অ্যাপেও অ্যাক্টিভ ছিলেন যুবক।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: October 28, 2020, 9:16 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर