ভয়ঙ্কর! দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে ছেলেদের সামনে স্ত্রীর মুন্ডু কেটে দেবতাকে অর্পণ করল স্বামী

ভয়ঙ্কর! দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে ছেলেদের সামনে স্ত্রীর মুন্ডু কেটে দেবতাকে অর্পণ করল স্বামী
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই মহিলার কাটা মুন্ডুটি দেবতার পায়ের কাছে পড়ে থাকতে দেখেন পুলিশ আধিকারিকরা ।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই মহিলার কাটা মুন্ডুটি দেবতার পায়ের কাছে পড়ে থাকতে দেখেন পুলিশ আধিকারিকরা ।

  • Share this:

    #মধ্যপ্রদেশ: আদৌ কি একবিংশ শতকে দাঁড়িয়ে এতটুকু এগিয়েছে আমাদের এই দেশ? কুসংস্কার আর অন্ধবিশ্বাসের বেড়াজাল থেকে কি মুক্ত হয়েছে দেশের সাধারণ মানুষ?

    আজও সংবাদ মাধ্যমে এই ধরনের খবর চোখে পড়লে চমকে উঠতে হয় । তা হলে কি আমরা নিজেদের সভ্য মানুষ বলে দাবি করে ভুল করি? মধ্যপ্রদেশের বসউদা গ্রামের সাম্প্রতিক একটি ঘটনা নৃশংসতার সমস্ত সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছে ।

    সেখানে দেবতাকে খুশি করতে স্ত্রী’র মুন্ডছেদ করেছে স্বামী । তাও আবার নিজের সন্তানদের সামনেই । ব্রজেশ কেওয়াত নামে ওই ৫০ বছরের ওই ব্যক্তি তার দুই সন্তান, মনোজ ও সুরেন্দ্র । তাদের সামনেই তাদের মায়ের গলা কেটে দেবতার পায়ে অর্পণ করে বাবা ব্রজেশ । এই ঘটনার পরই পালানোর চেষ্টা করেছিল ‘গুণধর’ স্বামী । কিন্তু পুলিশ গ্রেফতার করে তাকে ।


    পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি মারাত্মকভাবে কুসংস্কার আচ্ছন্ন । এর আগেও দেবতার সামনে একই কারণে একটি ছাগল বলি দিয়েছিল সে । এরপর ব্রজেশের অন্ধ বিশ্বাসের বলি হতে হল তার নিরাপরাধ স্ত্রী’কে । মাঝ রাতে স্ত্রী’র মুন্ডু ছেদ করার সময়ই তার দুই ছেলে তা দেখতে পায়। তাদের ভয় দেখিয়ে, হুমকি দিয়ে মুখ বন্ধ রাখতে বলে ব্রজেশ । কিন্তু ছেলেরা কোনওক্রমে পালিয়ে গিয়ে প্রতিবেশীদের খবর দেয় ।

    সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে যায় স্থানীয় পুলিশ । সেখানে গিয়ে রক্তাক্ত পড়ে থাকতে দেখা যায় ব্রজেশের স্ত্রী’কে । ওই মহিলার কাটা মুন্ডুটি দেবতার পায়ের কাছে পড়ে থাকতে দেখেন পুলিশ আধিকারিকরা । পুলিশ দেখেই পালানোর চেষ্টা করে ব্রজেশ । কিন্তু ব্যর্থ হয় । তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

    Published by:Simli Raha
    First published:

    লেটেস্ট খবর