• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • লাভ জিহাদ: উত্তরপ্রদেশের মহিলার গর্ভস্রাব হয়নি,বলপূর্বক গর্ভপাতের রিপোর্টও ভুয়ো, জানালেন আধিকারিক

লাভ জিহাদ: উত্তরপ্রদেশের মহিলার গর্ভস্রাব হয়নি,বলপূর্বক গর্ভপাতের রিপোর্টও ভুয়ো, জানালেন আধিকারিক

Representational Image

Representational Image

পিঙ্কি ওরফে মুসকান জাহান নামের ওই মহিলা জানায়, যে তাকে গর্ভপাত কতে বাধ্য করা হয়েছে। তবে মোরাদাবাদের চাইল্ড প্রোটেকশন কমিশনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যে মহিলার এই অভিযোগ সত্যি নয়।

  • Share this:

    #মোরাদাবাদঃ গত নভেম্বরের শেষ দিকে উত্তরপ্রদেশ এবং আরও কিছু রাজ্যে এসেছে নতুন অ্যান্টি-কনভারশন আইন (Anti-Conversion Law)। এই অ্যান্টি-কনভারশন বা লাভ জিহাদ আইনের জেরেই, রশিদ নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। খবর পাওয়া যায়, পিঙ্কি নামের ২২ বছর বয়সি এক যুবতী বিয়ে করতে গিয়েছিল রশিদকে। রশিদকে গ্রেফতার করার পর, পিঙ্কিকে রাখা হয়েছিল সরকারি হোমে।

    এরপর পিঙ্কি ওরফে মুসকান জাহান নামের ওই মহিলা জানায়, যে তাকে গর্ভপাত করতে বাধ্য করা হয়েছে। তবে মোরাদাবাদের চাইল্ড প্রোটেকশন কমিশনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যে মহিলার এই অভিযোগ সত্যি নয়।গত সপ্তাহে, লাভ জিহাদের প্রথম ঘটনা সামনে আসার পরেই, পুলিশ এই ঘটনা নিয়ে তদন্ত শুরু করে। অভিযোগ ছিল রশিদ জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করিয়ে বিয়ে করছিল পিঙ্কিকে। সে কারণে, অ্যান্টি কনভার্শন আইনের আওতায় রশিদ নামের ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর কিছুদিন পরেই, জানতে পারা যায় যে জোর করে পিঙ্কির গর্ভপাত করানো হয়েছে।

    এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পর, চাইল্ড প্রোটেকশন কমিশনে পড়ে যায় চাঞ্চল্য। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে, তদন্ত শুরু করেন কমিশনের কর্মকর্তারা। তদন্ত শেষ হলে, কমিশনের চেয়ারম্যান ডাঃ বিশেষ গুপ্তা জানিয়েছেন, পিঙ্কি নামের ওই মহিলার গর্ভপাত করানো হয়নি। বরং তিনি তিন মাসের অন্তঃসত্বা।

    সূত্রের খবর, ডাঃ গুপ্তা বলেছেন, “আমরা মোরাদাবাদের ডিপিও-এর ডিরেক্টরকে নির্দেশ দিয়েছিলাম ঘটনার সত্যতা বিচার করার জন্য ওই মহিলার শারীরিক পরীক্ষা করে দেখতে। পরীক্ষা করানো হয়েছে, এবং রিপোর্টে স্পষ্ট জানা গিয়েছে যে মহিলা তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা। আমাদের কাছে প্রমাণ আছে।”

    Published by:Antara Dey
    First published: