• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Extramarital Affair: বৌদির সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম দেওরের, জেনে গেল দাদা

Extramarital Affair: বৌদির সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম দেওরের, জেনে গেল দাদা

love affair with sister in law the brother murdered his elder brother- Photo-Representative

love affair with sister in law the brother murdered his elder brother- Photo-Representative

নিজের স্ত্রী ও ভাইয়ের মধ্যের অবৈধ প্রেমের (Extramarital Affair) কথা জানতে পেরে যায় বড় ভাই৷

  • Share this:

    #কুশীনগর: উত্তরপ্রদেশের কুশীনগর (Kushinagar) জেলায় ছোটভাই নিজের বড় ভাইকে মেরে ফেলল৷ মৃত্যুর কারণ হল দেওর ও বৌদির মধ্যে প্রেম (Love Affair) চলছিল৷  আর নিজের স্ত্রী ও ভাইয়ের মধ্যের অবৈধ প্রেমের (Extramarital Affair) কথা জানতে পেরে  যায় বড় ভাই৷ পুলিশ হত্যার অরোপে মৃতের ভাই ও স্ত্রীকে গ্রেফতার করে নিয়েছে৷ বৌদির সঙ্গে জোরকদমে প্রেম (Extramarital Affair) এমন জায়গায় পৌঁছে যায় যে নিজের বড় ভাইকে খুন করতেও পিছপা হয়নি৷ ভাইকে খুন  (Murder) করার পর সে সেই শবদেহটি গর্তে ফেলে দেয়৷

    পুলিশ মৃতের শবের উদ্ধার করে পোস্টমর্টেমের জন্য পাঠিয়ে দিয়েছে৷ তারপরেই তদন্তে নামে পুলিশ৷ তদন্ত চলাকালীন মৃতের ভাই ও তাঁর স্ত্রী-র মধ্যে পরকীয়া (Extramarital Affair)  চলছে৷ পুলিশ দুইজনকেই গ্রেফতার করে নিয়েছে৷ পুলিশ গ্রেফতারের পর তাদের জেলে পাঠিয়ে দেয়৷ ১৯ ডিসেম্বর হাটা কোতবালি-র সকরৌলি গ্রামের বাসিন্দা সন্তোষ সাহনি শবদেহ ক্ষেতে পড়ে রয়েছে (Murder) খবর পায়৷ সূচনা অনুসারে সেখানে গিয়ে শবদেহ উদ্ধার করে করে পুলিশ (Police) এবং বডি পোস্টমর্টেমের জন্য পাঠিয়ে দেয়৷ ঘটনার তদন্ত শুরু করে৷

    আরও পড়ুন - Virat Kohli's Fitness Update: মেগা গুরুত্বপূর্ণ IND vs SA তৃতীয় টেস্টে কি কোহলি খেলবেন, যা জানাল ক্যাম্প

    পুলিশ (Police) তদন্ত করতে নেমে জানতে পারে মৃতের ভাই রঞ্জনের সম্পর্ক রয়েছে৷ রঞ্জনকে গ্রেফতার করার পুলিশ জেরা শুরু করে৷ তাতেই এই হত্যাকাণ্ড থেকে পর্দা উঠে যায়৷ রঞ্জন সাহানির নিজের ভাইয়ের স্ত্রী-র সঙ্গে অবৈধ প্রেমের (Love Affair) সম্পর্ক ছিল৷

    আরও দেখুন - Video: "আগামী ২৫ দিন খুব গুরুত্বপূর্ণ, সংক্রমণ বাড়লে আরও কড়া বিধিনিষেধ", কড়া বার্তা Mamata-র

    সেই সম্পর্কের জেরে ভাইকে রাতে ঘুমের সময় উঠে লাঠি-ডান্ডা দিয়ে মেরে মেরে হত্যা (Murder) করে দেয়৷ মামলার খোলসা হওয়ার পর সিও পীযূষকান্ত রায় বলেছেন নিজের অপরাধ কবুল করেন৷ দুজনের কাছে কথার পর হত্যার ডান্ডাও উদ্ধার করা হয়৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: